دُعَاؤُهُ فِي يَوْمِ الْأَضْحَى وَ الْجُمُعَةِ
Repelling
the trickery of enemies
1
My God, Thou guided me but I diverted myself,
إلهِي هَدَيْتَنِي فَلَهَوْتُ،
1
2
Thou admonished me but my heart became hardened,
وَوَعَظْتَ فَقَسَوْتُ،
2
3
Thou tried me graciously but I disobeyed.
وَأَبْلَيْتَ الْجَمِيلَ فَعَصَيْتُ،
3
4
Then, when Thou caused me to know it, I came to know
that from
ثُمَّ عَرَفْتُ مَا أَصْدَرْتَ؟
4
5
which Thou hadst turned [me] away, so I prayed
forgiveness and Thou released, and I returned
إذْ عَرَّفْتَنِيهِ فَاسْتَغْفَرْتُ، فَأَقَلْتَ
فَعُدتُ،
5
6
and Thou covered over. So Thine, my God, is the
praise!
فَسَتَرْتَ فَلَكَ إلهِي الْحَمْدُ.
6
7
I plunged into the valleys of destruction
تَقَحَّمْتُ أَوْدِيَةَ الْهَلاَكِ،
7
8
and settled in the ravines of ruin, exposing myself
to Thy chastisements
وَحَلَلْتُ شِعَابَ تَلَف تَعَرَّضْتُ فِيهَا
لِسَطَوَاتِكَ،
8
9
and the descent of Thy punishments!
وَبِحُلُولِهَا عُقُوبَاتِكَ،
9
10
My mediation with Thee is the profession of Unity,
وَوَسِيلَتِي إلَيْكَ التَّوْحِيدُ،
10
11
my way of coming to Thee that I associate nothing
with Thee,
وَذَرِيْعَتِي أَنِّي لَمْ أُشْرِكْ بِكَ شَيْئاً،
11
12
nor do I take along with Thee a god;
وَلَمْ أَتَّخِذْ مَعَكَ إلهاً،
12
13
I have fled to Thee with my soul –
وَقَدْ فَرَرْتُ إلَيْكَ بِنَفْسِي،
13
14
in Thee is the place of flight for the evildoer,
وَإلَيْكَ مَفَرُّ الْمُسِيءِ،
14
15
the place of escape for him who has squandered the
share of his soul and seeks asylum.
وَمَفْزَعُ الْمُضَيِّعِ لِحَظِّ نَفْسِهِ،
الْمُلْتَجِئِ.
15
16
How many an enemy has unsheathed the sword of his
enmity toward me,
فَكَمْ مِنْ عَدُوٍّ انْتَضى عَلَيَّ سَيْفَ
عَدَاوَتِهِ،
16
17
honed the cutting edge of his knife for me,
وَشَحَذَ لِيْ ظُبَةَ مُدْيَتِهِ،
17
18
sharpened the tip of his blade for me,
وَأَرْهَفَ لِي شَبَا حَدِّهِ،
18
19
mixed his killing potions for me,
وَدَافَ لِيْ قَوَاتِلَ سُمُومِهِ،
19
20
pointed toward me his straight-flying arrows,
وَسَدَّدَ نَحْوِي صَوَائِبَ سِهَامِهِ،
20
21
not allowed the eye of his watchfulness to sleep
toward me,
وَلَمْ تَنَمْ عَنِّي عَيْنُ حِرَاسَتِهِ،
21
22
and secretly thought of visiting me with something
hateful and making me gulp down the bitter water of
his bile!
وَأَضْمَرَ أَنْ يَسُومَنِي الْمَكْرُوهَ وَيُجَرِّ
عَنِّي زُعَافَ مَرَارَتِهِ ،
22
23
So Thou looked my God, at my weakness in bearing
oppressive burdens,
فَنَظَرْتَ يا إلهِيْ إلَى ضَعْفِي عَنِ احْتِمَـالِ
الْفَـوَادِحِ ،
23
24
my inability to gain victory over him who aims to
war against me,
وَعَجْزِي عَنِ الانْتِصَارِ مِمَّنْ قَصَدَنِيْ
بِمُحَارَبَتِهِ،
24
25
and my being alone before the great numbers of him
who is hostile toward me
وَوَحْدَتِي فِي كَثِيرِ عَدَدِ مَنْ نَاوَانِيْ
25
26
and lies in wait for me with an affliction about
which I have not thought.
وَأَرْصَدَ لِيْ بِالْبَلاءِ فِيمَا لَمْ أُعْمِلْ
فِيهِ فِكْرِي،
26
27
Thou set out at once to help me
فَابْتَدَأْتَنِي بِنَصْرِكَ،
27
28
and Thou braced up my back!
وَشَدَدْتَ أَزْرِي بِقُوَّتِكَ،
28
29
Thou blunted for me his blade,
ثُمَّ فَلَلْتَ لِيَ حَدَّهُ،
29
30
made him, after a great multitude, solitary,
وَصَيَّرْتَهُ مِنْ بَعْدِ جَمْع عَدِيْد وَحْدَهُ،
30
31
raised up my heel over him,
وَأَعْلَيْتَ كَعْبِي عَلَيْهِ،
31
32
and turned back upon him what he had pointed
straight.
وَجَعَلْتَ مَا سَدَّدَهُ مَرْدُوداً عَلَيْهِ،
32
33
So Thou sent him back, his rage not calmed,
فَرَدَدْتَهُ لَمْ يَشْفِ غَيْظَهُ،
33
34
his burning thirst not quenched!
وَلَمْ يَسْكُنْ غَلِيلُهُ،
34
35
Biting his fingers,
قَدْ عَضَّ عَلَى شَوَاهُ،
35
36
he turned his back in flight, his columns having
been of no use.
وَأَدْبَرَ مُوَلِّياً قَدْ أَخْلَفَتَ سَرَاياهُ.
36
37
How many an oppressor has oppressed me with his
tricks,
وَكَمْ مِنْ باغ بَغانِيْ بِمَكَائِدِهِ،
37
38
set up for me the net of his snares,
وَنَصَبَ لِيْ شَرَكَ مَصَائِدِهِ،
38
39
appointed over me the inspection of his regard,
وَوَكَّلَ بِيْ تَفَقُّ#1583;َ رِعَايَتِهِ،
39
40
and lay in ambush for me, the lying in ambush of a
predator for its game,
وَأَظْبَأَ إلَيَّ إظْبَآءَ السَّبُعِ لِطَرِيْدَتِهِ،
40
41
waiting to take advantage of its prey,
انْتِظَـاراً لانْتِهَازِ الْفُرْصَةِ لِفَرِيسَتِهِ،
41
42
while he showed me the smile of the flatterer
وَهُوَ يُظْهِرُ لِيْ بَشَاشَةَ المَلَقِ،
42
43
and looked at me with the intensity of fury!
وَيَنْظُـرُنِي عَلَى شِدَّةِ الْحَنَقِ،
43
44
So when Thou saw, my God, (blessed art Thou and high
exalted) the depravity of his secret thoughts
فَلَمَّا رَأَيْتَ يَا إلهِي تَبَارَكْتَ
وَتَعَالَيْتَ دَغَلْ سَرِيرَتِهِ،
44
45
and the ugliness of what he harboured, Thou threw
him on his head into his own pitfall
وَقُبْحَ مَا انْطَوى عَلَيْهِ، أَرْكَسْتَهُ لاُِمِّ
رَأْسِهِ فِي زُبْيَتِهِ،
45
46
and dumped him into the hole of his own digging.
وَرَدَدْتَهُ فِي مَهْوى حُفْرَتِهِ،
46
47
So he was brought down low, after his overbearing,
by the nooses of his own snare,
فَانْقَمَعَ بَعْدَ اسْتِطَالَتِهِ ذَلِيلاً فِي
رِبَقِ حِبالتِهِ
47
48
wherein he had thought he would see me;
الَّتِي كَانَ يُقَدِّرُ أَنْ يَرَانِي فِيهَا،
48
49
and what came down upon his courtyard – had it not
been for Thy mercy – was on the point of coming down
upon me!
وَقَدْ كَادَ أَنْ يَحُلَّ بِيْ لَوْلاَ رَحْمَتُكَ
مَا حَلَّ بِسَاحَتِهِ.
49
50
How many an evier has choked upon me in his agony,
وَكَمْ مِنْ حَاسِد قَدْ شَرِقَ بِي بِغُصَّتِهِ،
50
51
fumed over me in his rage, cut me with the edge of
his tongue,
وَشَجِيَ مِنِّي بِغَيْظِهِ، وَسَلَقَنِي بِحَدِّ
لِسَانِهِ،
51
52
showed malice toward me by accusing me of his own
faults,
وَوَحَرَنِي بِقَرْفِ عُيُوبِهِ،
52
53
made my good repute the target of his shots,
وَجَعَلَ عِرْضِيْ غَرَضاً لِمَرَامِيهِ،
53
54
collared me with his own constant defects,
وَقَلَّدَنِي خِلاَلاً لَمْ تَزَلْ فِيهِ،
54
55
showed malice toward me with his trickery, and aimed
at me with his tricks!
وَوَحَرنِي بِكَيْدِهِ، وَقَصَدَنِي بِمَكِيدَتِهِ،
55
56
So I called upon Thee, my God, seeking aid from
Thee,
فَنَادَيْتُكَ يَا إلهِي مُسْتَغِيْثاً بِكَ،
56
57
trusting in the speed of Thy response,
وَاثِقاً بِسُرْعَةِ إجَابَتِكَ،
57
58
knowing that he who seeks haven in the shadow of Thy
wing will not be mistreated,
عَالِماً أَنَّهُ لاَ يُضْطَهَدُ مَنْ آوى إلَى ظِلِّ
كَنَفِكَ،
58
59
and he who seeks asylum in the stronghold of Thy
victory will not be frightened.
وَلاَ يَفْزَعُ مَنْ لَجَأَ إلَى مَعْقِل
انْتِصَارِكَ،
59
60
So Thou fortified me against his severity through
Thy power.
فَحَصَّنْتَنِي مِنْ بَأْسِهِ بِقُدْرَتِكَ.
60
61
How many a cloud of detested things Thou hast
dispelled from me,
وَكَمْ مِنْ سَحَائِبِ مَكْرُوه جَلَّيْتَهَا عَنِّي،
61
62
a cloud of favour Thou hast made rain down upon me,
وَسَحَائِبِ نِعَم أَمْطَرْتَهَا عَلَيَّ،
62
63
a stream of mercy Thou hast let flow,
وَجَدَاوِلِ رَحْمَة نَشَرْتَهَا،
63
64
a well-being in which Thou hast clothed me, an eye
of mishap Thou hast blinded,
وَعَافِيَة أَلْبَسْتَهَا، وَأَعْيُنِ أَحدَاث
طَمَسْتَهَا،
64
65
and a wrap of distress Thou hast removed!
وَغَواشي كُرُبَات كَشَفْتَهَا،
65
66
How many a good opinion Thou hast verified, a
destitution Thou hast redressed,
وَكَمْ مِنْ ظَنٍّ حَسَن حَقَّقْتَ، وَعَدَم جَبَرْتَ،
66
67
an infirmity Thou hast restored to health, and a
misery Thou hast transformed!
وَصَرْعَة أَنْعَشْتَ وَمَسْكَنَة، حَوَّلْتَ،
67
68
All of that was favour and graciousness from Thee,
كُلُّ ذَلِكَ إنْعَامَاً وَتَطَوُّلاً مِنْكَ،
68
69
and in all of it I was occupied with acts of
disobeying Thee.
وَفِي جَمِيعِهِ انْهِمَاكاً مِنِّي عَلَى
مَعَاصِيْكَ،
69
70
My evildoing did not hinder Thee from completing Thy
beneficence,
لَمْ تَمْنَعْكَ إساءَتِي عَنْ إتْمَامِ إحْسَانِكَ،
70
71
nor was I stopped from committing acts displeasing
to Thee.
وَلاَ حَجَرَنِي ذالِكَ عَنِ ارْتِكَابِ مَسَاخِطِكَ،
71
72
Thou art not questioned as to what Thou dost! Thou
wert asked, and Thou bestowed.
لاَ تُسْأَلُ عَمَّا تَفْعَلُ، وَلَقَدْ سُئِلْتَ
فَأَعْطَيْتَ،
72
73
Thou wert not asked, and Thou began. Thy bounty was
requested, and Thou didst not skimp.
وَلَمْ تُسْأَلْ فابْتَدَأْتَ، وَاسْتُمِيحَ فَضْلُكَ
فَمَا أَكْدَيْتَ،
73
74
Thou refused, my Master, everything but beneficence,
أَبَيْتَ يَا مَوْلاَيَ إلاَّ إحْسَانَـاً
74
75
kindness, graciousness, and favour,
وَامْتِنَاناً وَتَطوُّلاً وَإنْعَامـاً ،
75
76
and I refused everything but plunging into what Thou
hast made unlawful,
وَأَبَيْتُ إلاَّ تَقَحُّماً لِحُرُماتِكَ،
76
77
transgressing Thy bounds, and paying no heed to Thy
threat!
وَتَعَدِّياً لِحُدُودِكَ، وَغَفْلَةً عَنْ وَعِيدِكَ.
77
78
So Thine is the praise, my God, the All-powerful who
is not overcome,
فَلَكَ الْحَمْدُ إلهِي مِنْ مُقْتَدِر لاَ يُغْلَبُ،
78
79
and the Possessor of patient waiting who does not
hurry!
وَذِي أَناة لاَ تَعْجَلُ.
79
80
This is the station of one who confesses to
lavishness of favours,
هَذَا مَقَامُ مَنِ اعْتَرَفَ بِسبوغِ النِّعَمِ،
80
81
counters them with shortcomings, and bears witness
to his own negligence.
وَقَابَلَهَا بِالتَّقْصِيرِ، وَشَهِدَ عَلَى نَفْسِهِ
بِالتَّضْيِيْعِ.
81
82
O God, so I seek nearness to Thee through the
elevated rank of Muhammad and the radiant degree of
‘Ali,
أللَّهُمَّ فَإنِّي أَتَقَرَّبُ إلَيْكَ
بِالْمُحَمَّدِيَّةِ الرَّفِيعَةِ،
82
83
and I turn to Thee through them so that Thou wilt
give me
وَالْعَلَوِيَّةِ الْبَيْضَآءِ، وَأَتَـوَجَّهُ إلَيْكَ
بِهِمَا،
83
84
refuge from the evil of [so and so],
تُعِيذَنِيْ مِنْ شَرِّ [كَذَا وَكَذَا] فَإنَّ ذَالِكَ
84
85
for that will not constrain Thee in Thy wealth,
لا يَضِيْقُ عَلَيْكَ فِي وُجْدِكَ،
85
86
nor trouble Thee in Thy power,
وَلاَ يَتَكَأدُّكَ فِي قُدْرَتِكَ،
86
87
and Thou art powerful over everything!
وَأَنْتَ عَلَى كُلِّ شَيْء قَدِيرٌ،
87
88
So give me, my God, by Thy mercy and Thy lasting
bestowal of success,
فَهَبْ لِي يا إلهِي مِنْ رَحْمَتِكَ وَدَوَامِ
تَوْفِيقِكَ،
88
89
that which I may take as a ladder with which to
climb to Thy good pleasure
مَا أَتَّخِذُهُ سُلَّماً أَعْرُجُ بِهِ إلى
رِضْوَانِكَ،
89
90
and be secure from Thy punishment, O Most merciful
of the merciful!
وَآمَنُ بِهِ مِنْ عِقَابِكَ، يَا أَرْحَمَ
الرَّاحِمِينَ.
90

পরম করুণাময় এবং অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি

শত্রুদের বিশ্বাস ঘাতকতা এবং হিংস্রতা প্রতিহত করার আবেদন করে তাঁর একটি মুনাজাত।
হে আমার প্রভু, আমাকে আপনি রক্ষা করেছেন আর আমি তা অস্বীকার করেছি।
আপনি আমাকে উপদেশ দিয়েছেন আর আমার দিল শক্ত হয়ে গিয়েছিল।
আপনি আমাকে পর্যাপ্ত নেয়ামত দিয়েছেন আর আমি অমান্য করেছি।
সেজন্য, যখন আপনি আমাকে জ্ঞাত করেছেন, তাই আমি ক্ষমা চেয়েছি এবং আপনি ক্ষমা করেছেন। তখন আমি ভুল করেছি এবং আপনি তা লুকিয়ে রেখেছেন। সেজন্য, হে আমার প্রভু, সকল প্রশংসাই আপনার জন্য। আমি ধ্বংসে উপত্যকা নিক্ষিপ্ত হয়েছি এবং ধ্বংসের গিরিখাতে প্রবিষ্ট হয়েছি, যার দ্বারা আমি আপনার গোসসায় পতিত হয়েছি এবং যার ভিতরে প্রবিষ্ট করে আমি নিজের উপরে আপনার পক্ষ হতে শাস্তি চাপিয়েছি।
আপনার একত্ববাদে বিশ্বাসী হয়ে এবং আপনার সাথে মধ্যস্থতার সুপারিশের জন্য যে আমি আপনার সাথে কখনও কাউকে শরীক করিনি এবং আপনি ব্যতীত কোনো মা’বুদ গ্রহণ করিনি।
মূলত, আমি দিলের সাথে আপনার সাথে অবনত।
াাপনার কাছে গুনাহ্গারের পলায়ন এবং আপনার কাছে তার আশ্রয় যে তার ভগ্যকে নষ্ট করেছে এবং অবশেষে আশ্রয়ের খেঁজে হন্যে হয়ে উঠেছে।
এভাবে শত্রু আমার বিপক্ষে তার তলোয়ার উত্তোলন করেছে, আমার জন্য তার ছুরির প্রান্ত ভাগ ধার করেছে, এর অগ্রভাগ আমার জন্য শান দিয়েছে, আমার জন্য তার সবচেয়ে বিশ মিশিয়েছে, তার অনিক্ষিপ্ত তীর আমার দিকে তাক করেছে, তার সতর্ক চোখ আমাকে দেখা বিরত হয় না। সে আমার অনিষ্ট করতে এরাদা করেছে এবং আমাকে সবচেয়ে তিক্ত পেয়ালাকাপ পান করাবার এরাদা করেছে আপনি প্রত্যক্ষ করেছেন তার প্রতিশোধ নিতে আমার অক্ষমতাকে তার শত্রুতার বান আমার দিকে তাক করেছে, তার শত্রুতার মাঝে আমার নিঃসঙ্গতা যে আমার প্রতি শত্রুভাবাপন্ন এবং আমাকে দুর্দশায় পতিত করতে যে সুযোগের অপেক্ষা করছিল, যা আমি খখনো ভাবিনি।
তাই, আপনি আমাকে সাহায্য করতে ব্রতী হয়েছিলেন এবং আপনার শক্তির দ্বারা আমাকে বেষ্টন করেছিলেনতখন আমার প্রতি তার তীক্ষèতাকে ভোঁতা করে দিয়েছেন, সংখ্যধিক্কের শক্তির পর তাকে একা করে দিয়েছেন। তার হাতের উপরে আমার হাতটি স্তাপন করেছেন এবং তার উপর ঝঞ্জাট উঠিয়েছেন, যা সে নিজেই প্রস্তুত করেছে।
এভাবে আপনি তাকে প্রতিহত করেছেন, তার বিড়বিড়ানিতে অসন্তুষ এবং ক্রোধ প্রশান্ত থাকে। মূলত সে তার হাত কামড়িয়েছিল এবং যখন তার শত্রুরা তাকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছিল তখন সে তার আঘাত করা বিরত রেখেছিল অনেক বিশ্বাসঘাতক কপটতার সাথে আমার বিরুদ্ধে শত্রুতা করেছিল, আমাকে ফাঁদে ফেলতে টোপ ফেলেছিল। তল্লআসী করতে তার শ্যেন দৃষ্টি আমার প্রতি তাক কািয়েছিল এবং শিকারের প্রত্যাশায় একটি জানোয়ারের মত আমার জন্য ওত পেতেছিল, সুযোগের অপেক্ষা করে। সে উৎফুল্ল্তায় আটখান হয়ে গিয়েছিলযখন সে আমার মর্মবেদনার কথা বিবেচনা করেছিল।
তাই, হে আমার অনুগ্রহশীল এবং মর্যাদাবান প্রভু, আপনি তার চরিত্রের বিশ্বাসঘাতকতা এবং তার কল্পনার মন্দ প্রত্যক্ষ করেছিলেন, আপনি তাকে ঘাড় ধাক্কা দিয়েছেলেন এবং জাহান্নামে অতল গহবরে ডুবিয়ে দিয়েছিলেন।
এভাবে, তার একগেিয়মির পর সে তার ফাঁদে আটকা পড়েছিল, যাতে সে আমাকে দেখার প্রত্যামা করেছিল এবং তার ওপর যে দুর্যোগ ছিল তা আমার প্রতি খুবই নিকটবর্তী হয়ে গিয়েছিল। আপনার করুনায় তা আমার উপর বর্তায নি।
আমার প্রতি তার গোসসার কারণে এক হিংকুক আমার উপর ভর করেছিল ; আমার ওপর তার ক্রোধ ঢালতে। তার জবানের তীক্ষèতা দ্বারা আমার ক্ষতিসাধন করেছিল। আমার ওপর অপবাদের কলংক নিক্ষেপ করেছিল। আমার সম্মানকে সে অপবাদে তীরে লক্ষ্যবস্তু বানিয়েছিল। সে আমার গলায় অপবাদের ঝুড়ি লাগিয়ে দিয়েছিল। যাতে সে নিজে নিয়োযিত ছিল। বিম্বাসঘাতকতার সাহায্যে আমাকে চ’র্ণ করে দিয়েছিল এবং আমাকে তার ছলনার বস্তু বানিয়েছিল।
হে আমর প্রভু, তাই আপনার দ্রুত জওয়াবের আস্থায় আমি আপনার কাছে মিনাত করেছি, আপনার কাছে অভিযোগ করেছি। এটা জেনে যে, যে আপনার নিরাপত্তার মধ্যে আশ্রয় নেয় সে কখনও দুর্দশাগ্রস্ত হতে পারে না।যে আপনার সাহায্যে দৃঢ় হাতলের নিচে আশ্রয় নেয় তার কোনো ভয় নেই। আর আপনি তার ক্ষমতায় তার হিংস্রতা থেকে আমাকে রক্ষা করেছেন।
আমার ওপর থেকে অনেক মন্দ মেঘ দূর করে দিয়েছেন। আমার ওপর অসুগ্রহের মেঘ হতে বারি বর্ষণ করেছেন। আমার কাছ দিয়ে ক্ষমার নদী প্রবাহিত করেছেন।
আপনি নিরাপত্তা দ্বারা আমাকে আচ্ছাদিত করেছেন। দুর্ঘটনায় অন্ধ চোখকে আপনি আপসারিত কছেন। আপরি দুর্দশার পর্দাকে দূর করে দিয়েেেছন আনেক আশাকে আপনি সত্য করে দিয়েছেন। আপনি চাহিদাকে পূর্ণ করেছেন, তার পতিত হওয়া থেকে আপনি উঠিয়েছেন এবং বস্ত্রাদি দিয়েছেন, যা আপনি দূরে সরিয়ে নিয়েছিলেন। আপনি এ সবটুকুই করেছেন আপনার সাহায্য এবং সদাশয়তার অংশ থেকে। এসবের মধ্য দিয়ে আমি আপনার অবাধ্য হওয়া থেকে বিরত রয়েছি। আমার হীনমন্যতার কারণে আম,ার কাছ থেকে আপনার সদাশয়তা বিরত রাখেন নি অথবা আপনার কাছে ঘৃনীত এমন কাজ সংগঠন করিনি।
আপনি যা করেন তার জন্য আপনাকে জিজ্ঞাসিত হতে হবে না। মূলত আপনি অনুরোধ রক্ষা করেন এবং দান করেন যদ অনুরোধ করা না হয় তাহলে আপনি সাহায্য করা মুরু করে দেন। যখন আপনার বদান্যতা চাওয়া হয়েছিল আপনি তা অকার্যকর রাখেননি।
হে আমার প্রভু, আপনি সৎকর্ম, সদায়তা, দয়া এবং সাহায্য ছাড়া আর কিছুই করেননি। তবুও আমি আপনার নিষেধকৃত কর্মে নিয়োজিত হওেয়া ছাড়া আর কিছুই করিনি, আমার সীমাকে অতিক্রম করে এবং আপনার হুমকির তোয়াক্কা না করে।
সেজন্য, সকল প্রশংসা আপনার জন্য, হে সর্বশক্দিতমান, যিনি পরাভ’ত হতে পারে না। হে ধৈর্য্যরে অধিকারী যিনি কখনও তড়িঘড়ি করেন না। এই হল তার অবস্থা যে আপনার সীমাহীন সাহায্যের ব্যাপানে অবগত, যে অবাধ্যতার মাধ্যমে এগুলো প্রতিশোদ করে এবং এগুলো অপচয়ের দ্বারা সে নিজের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য বহন করে।
সেজন্য, হে প্রভু, আমি হযরত মুহাম্মদের তাঁর এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আনুগত্যের ত্বরিকায় এবং হযরত ইমাম আলি আঃ এর উদ্ভাসত ঈমানের মধ্য দিয়ে আপনার দিকে অগ্রসর হই।
আমাকে এরকম শত্রুদের চক্রান্ত তেকে আমাকে আশ্রয় দেয়ার জন্য আমি তাদের মাধ্যমে আপনার কাছে দোয়া করছি।
মূলত আপনার কুদরতে এটা আপনার জন্য কোনো কঠিন নয়।
অথবা আপনার ক্ষমতায় এটা কঠিনও নয়।
সব কিছুর উপর আপনার ক্ষমতা বিদ্যমান।
সেজন্য, হে আমার আল্লাহ্, আমাকে ক্ষমা এবং আপনার চিরস্থায়ী করুনা দিন, যা আমি একটি মই হিসেবে ধরতে পারি। যা দ্বারা আমি যেন আপনার মকবুলিয়াতে আরোহণ করতে পারি এবং যা দ্বারা আমি আমি আপনার শাস্তি হতে নিরাপদ হতে পারি, হে পরম দয়াময়।
Ref: হযরত ইমাম জয়নাল আবেদীন আল ছহীফাহ্ আল সাজ্জাদীয়াহ্
অনুবাদ মুহাম্মদ মাঈনউদ্দিন
অন্যধারা, ৩৮/২-ক বাংলাবাজার (৫ম তলা) ঢাকা-১১০০
প্রকাশকাল : সেপ্টেম্বর ২০০৮
বাংলা অনুবাদ: প্রকাশক ২০০৮