بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَنِ الرَّحِيمِ

In the Name of Allah, the
All-merciful, the All-compassionate


دُعَاؤُهُ فِي يَوْمِ عَرَفَةَ
His
Supplication on the Day of ‘Arafa
1
“Praise belongs to God, Lord of the worlds” (1:2)!
الْحَمْدُ للهِ رَبِّ الْعَالَمِينَ.
1
2
O God, to Thee belongs praise! Originator of the
heavens and the earth!
أللَّهُمَّ لَـكَ الْحَمْدُ بَدِيْعَ السَّموَاتِ
وَالأَرْضِ،
2
3
Possessor of majesty and munificence!
ذَا الْجَلاَلِ وَالإكْرَامِ،
3
4
Lord of lords! Object of worship of every worshiper!
رَبَّ الاَرْبَابِ وَإلهَ كُلِّ مَألُوه،
4
5
Creator of every creature!
وَخَالِقَ كُلِّ مَخْلُوق،
5
6
Inheritor of all things! “There is nothing like Him”
(42:11),
وَوَارِثَ كُلِّ شَيْء، لَيْسَ كَمِثْلِهِ شَـيْءٌ،
6
7
knowledge of nothing escapes Him,
وَلا يَعْزُبُ عَنْهُ عِلْمُ شَيْء،
7
8
He “encompasses everything” (41:54),
وَهُوَ بِكُلِّ شَيْء مُحِيطٌ،
8
9
and He is watchful over everything (ref.33:52).
وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْء رَقِيبٌ،
9
10
Thou art God, there is no god but Thou, the Unique,
the Alone, the Single, the Isolated.
أَنْتَ الله لاَ إلهَ إلاَّ أَنْتَ الاَحَـدُ
الْمُتَوَحِّدُ الْفَرْدُ الْمُتَفَرِّدُ،
10
11
Thou art God, there is no god but Thou, the
Generous, the Generously Bestowing,
وَأَنْتَ اللهُ لاَ إلهَ إلاَّ أَنْتَ الْكَرِيمُ
الْمُتَكَرِّمُ،
11
12
the All-mighty, the Mightily Exalted, the
Magnificent, the Magnificently Magnified.
الْعَظِيمُ الْمُتَعَظِّمُ، الْكَبِيرُ
الْمُتَكَبِّرُ.
12
13
Thou art God, there is no god but Thou, the
All-high, the Sublimely High, “the Strong in
prowess” (13:13).
وَأَنْتَ اللهُ لاَ إلهَ إلاَّ أَنْتَ العَلِيُّ
الْمُتَعَالِ، الْشَدِيْدُ الْمِحَـالِ.
13
14
Thou art God, there is no god but Thou, the
All-merciful, the All-compassionate, the
All-knowing, the All-wise.
وَأَنْتَ اللهُ لا إلهَ إلاَّ أَنْتَ الـرَّحْمنُ
الرَّحِيمُ الْعَلِيمُ الْحَكِيمُ.
14
15
Thou art God, there is no god but Thou, the
All-hearing, the All-seeing, the Eternal, the
All-aware.
وَأَنْتَ اللهُ لا إلهَ إلاّ أَنْتَ السَّمِيعُ
الْبَصِيرُ الْقَدِيمُ الْخَبِيرُ،
15
16
Thou art God, there is no god but Thou, the
Generous, the Most Generous, the Everlasting, the
Most Everlasting.
وَأَنْتَ اللهُ لاَ إلهَ إلاّ أَنْتَ الْكَرِيمُ
الاَكْرَمُ الدَّائِمُ الادْوَمُ،
16
17
Thou art God, there is no god but Thou, the First
وَأَنْتَ اللهُ لا إلهَ إلاّ أَنْتَ الاوَّلُ
17
18
before every one, the Last after every number.
قَبْلَ كُلِّ أَحَد وَالاخِرُ بَعْدَ كُلِّ عَدَد،
18
19
Thou art God, there is no god but Thou, the Close in
His highness,
وَأَنْتَ اللهُ لا إلهَ إلاّ أَنْتَ الدَّانِي فِي
عُلُوِّهِ،
19
20
the High in His closeness.
وَالْعَالِي فِي دُنُوِّهِ،
20
21
Thou art God, there is no god but Thou, Possessor of
radiance and glory, magnificence and praise.
وَأَنْتَ اللهُ لاَ إلهَ إلاَّ أَنْتَ ذُو الْبَهَاءِ
وَالْمَجْدِ وَالْكِبْرِيَاءِ وَالْحَمْدِ.
21
22
Thou art God, there is no god but Thou. Thou hast
brought forth the things without root,
وَأَنْتَ اللهُ لاَ إلهَ إلاّ أَنْتَ الَّذِي
أَنْشَأْتَ الاشْيَاءَ مِنْ غَيْرِ سِنْخ،
22
23
formed what Thou hast formed without exemplar,
وَصَوَّرْتَ مَا صَوَّرْتَ مِنْ غَيْرِ مِثال،
23
24
and originated the originated things without
limitation.
وَابْتَدَعْتَ الْمُبْتَدَعَاتِ بِلاَ احْتِذَآء.
24
25
It is Thou who hast ordained each thing with an
ordination,
أَنْتَ الَّذِي قَدَّرْتَ كُلَّ شَيْء تَقْدِيراً
25
26
eased each thing with an easing,
وَيَسَّرْتَ كُلَّ شَيْء تَيْسِيراً،
26
27
and governed everything below Thyself with a
governing.
وَدَبَّرْتَ مَا دُونَكَ تَدْبِيْراً.
27
28
It is Thou whom no associate helps with Thy creation
وَأَنْتَ الَّذِي لَمْ يُعِنْكَ عَلَى خَلْقِكَ
شَرِيكٌ
28
29
and no vizier aids in Thy command.
وَلَمْ يُؤازِرْكَ فِي أَمْرِكَ وَزِيرٌ،
29
30
Thou hast no witness and no equal.
وَلَمْ يَكُنْ لَكَ مُشَاهِدٌ وَلا نَظِيرٌ.
30
31
It is Thou who willed, and what Thou willed was
unfailing,
أَنْتَ الَّذِي أَرَدْتَ فَكَانَ حَتْماً مَا
أَرَدْتَ،
31
32
who decreed, and what Thou decreed was just,
وَقَضَيْتَ فَكَانَ عَدْلاً مَا قَضَيْتَ،
32
33
who decided, and what Thou decided was fair.
وَحَكَمْتَ فَكَانَ نِصْفاً مَا حَكَمْتَ،
33
34
It is Thou whom place does not contain,
أَنْتَ الَّـذِي لا يَحْوِيْـكَ مَكَانٌ
34
35
before whose authority no authority stands up,
وَلَمْ يَقُمْ لِسُلْطَانِكَ سُلْطَانٌ،
35
36
and whom no proof or explication can thwart.
وَلَمْ يُعْيِكَ بُرْهَانٌ وَلا بَيَانٌ.
36
37
It is Thou who hast counted everything in numbers,
أَنْتَ الَّذِي أَحْصَيْتَ كُلَّ شَيْء عَدَدَاً،
37
38
appointed for everything a term,
وَجَعَلْتَ لِكُلِّ شَيْء أَمَداً،
38
39
and ordained everything with an ordination.
وَقَدَّرْتَ كُلَّ شَيْء تَقْدِيْراً.
39
40
It is Thou before whose selfness imaginations fall
short,
أَنْتَ الَّذِي قَصُرَتِ الاوْهَامُ عَنْ
ذَاتِيَّتِكَ،
40
41
before whose howness understandings have no
incapacity,
وَعَجَزَتِ الافْهَامُ عَنْ كَيْفِيَّتِكَ ،
41
42
and the place of whose whereness eyes perceive not.
وَلَمْ تُدْرِكِ الابْصَارُ مَوْضِعَ أَيْنِيَّتِكَ.
42
43
It is Thou who hast no bounds, lest Thou be bounded,
أَنْتَ الَّذِي لا تُحَدُّ فَتَكُونَ مَحْدُوداً،
43
44
who art not exemplified, lest Thou be found,
وَلَمْ تُمَثَّلْ فَتَكُونَ مَوْجُوداً،
44
45
who dost not beget, lest Thou be begotten.
وَلَمْ تَلِدْ فَتَكُونَ مَوْلُوداً.
45
46
It is Thou with whom there is no opposite, lest it
contend with Thee,
أَنْتَ الَّذِي لا ضِدَّ مَعَكَ فَيُعَانِدَكَ،
46
47
who hast no equal, lest it vie with Thee, who hast
no rival, lest it resist Thee.
وَلا عِدْلَ فَيُكَاثِرَكَ، وَلاَ نِدَّ لَكَ
فَيُعَارِضَكَ.
47
48
It is Thou who art He who began, devised,
أَنْتَ الَّـذِي ابْتَدَأ وَاخْتَـرَعَ
48
49
brought forth, originated,
وَاسْتَحْدَثَ وَابْتَـدَعَ
49
50
and made well all that He made.
وَأَحْسَنَ صُنْعَ مَا صَنَعَ،
50
51
Glory be to Thee! How majestic is Thy station!
سُبْحانَكَ! مَا أَجَلَّ شَأنَكَ،
51
52
How high Thy place among the places!
وَأَسْنَى فِي الامَاكِنِ مَكَانَكَ،
52
53
How cleanly Thy Separator cleaves with the truth!
وَأَصْدَعَ بِالْحَقِّ فُرقَانَكَ.
53
54
Glory be to Thee! The Gentle – how gentle Thou art!
سُبْحَانَكَ مِنْ لَطِيفٍ مَا أَلْطَفَكَ،
54
55
The Clement – how clement Thou art! The Wise – how
knowing Thou art!
وَرَؤُوفٍ مَا أَرْأَفَكَ، وَحَكِيمٍ مَا أَعْرَفَكَ!
55
56
Glory be to Thee! The King – how invincible Thou
art!
سُبْحَانَكَ مِنْ مَلِيْكٍ مَا أَمْنَعَكَ،
56
57
The Munificent – how full of plenty Thou art! The
Elevated – how elevated Thou art!
وَجَوَادٍ مَا أَوْسَعَكَ، وَرَفِيعٍ مَا أَرْفَعَكَ،
57
58
Possessor of radiance and glory, magnificence and
praise!
ذُو الْبَهاءِ وَالْمَجْدِ وَالْكِبْرِيَاءِ
وَالْحَمْدِ .
58
59
Glory be to Thee! Thou hast stretched forth Thy hand
with good things,
سُبْحَانَكَ بَسَطْتَ بِالْخَيْرَاتِ يَدَكَ
59
60
and from Thee guidance has come to be known,
وَعُرِفَتِ الْهِدَايَةُ مِنْ عِنْدِكَ،
60
61
so he who begs from Thee religion or this world will
find Thee.
فَمَنِ الْتَمَسَكَ لِدِينٍ أَوْ دُنْيا وَجَدَكَ.
61
62
Glory be to Thee! Whatever passes in Thy knowledge
is subjected to Thee,
سُبْحَانَكَ خَضَعَ لَكَ مَنْ جَرى فِي عِلْمِكَ،
62
63
all below Thy Throne are humbled before Thy
mightiness,
وَخَشَعَ لِعَظَمَتِكَ مَا دُونَ عَرْشِكَ،
63
64
and every one of Thy creatures follows Thee in
submission.
وَانْقَادَ لِلتَّسْلِيْمِ لَكَ كُلُّ خَلْقِكَ.
64
65
Glory be to Thee! Thou art not sensed, nor touched,
nor felt,
سُبْحَانَكَ لاَ تُحَسَّ، وَلاَ تُجَسُّ، وَلاَ
تُمَسُّ،
65
66
nor beguiled, nor held back, nor challenged, nor
kept up with,
وَلاَ تُكَادُ، وَلاَ تُمَاطُ، وَلاَ تُنَازَعُ، وَلاَ
تُجَارى،
66
67
nor resisted, nor deceived, nor circumvented.
وَلاَ تُمارى، وَلاَ تُخَادَعُ، وَلاَ تُمَاكَرُ.
67
68
Glory be to Thee! Thy path is smooth ground, Thy
command right guidance, and Thou art a living,
eternal refuge.
سُبْحَانَكَ سَبِيلُكَ جَدَدٌ، وَأَمْرُكَ رَشَدٌ،
وَأَنْتَ حَيٌّ صَمَدٌ.
68
69
Glory be to Thee! Thy word is decisive, Thy decree
unfailing, Thy will resolute.
سُبْحَانَكَ قَوْلُكَ حُكْمٌ، وَقَضَآؤُكَ حَتْمٌ،
وَإرَادَتُكَ عَزْمٌ.
69
70
Glory be to Thee! None can reject Thy wish, none can
change Thy words.
سُبْحَانَكَ لاَ رَادَّ لِمَشِيَّتِكَ، وَلاَ
مُبَدِّلَ لِكَلِمَاتِكَ.
70
71
Glory be to Thee, Outdazzling in signs, Creator of
the heavens, Author of the spirits!
سُبْحَانَكَ بَاهِرَ الايآتِ، فَاطِرَ السَّمَوَاتِ
بَارِئ، النَّسَماتِ.
71
72
To Thee belongs praise, a praise that will be
permanent with Thy permanence!
لَكَ الْحَمْدُ حَمْدَاً يَدُومُ بِدَوامِكَ،
72
73
To Thee belongs praise, a praise everlasting through
Thy favour!
وَلَكَ الْحَمْدُ حَمْداً خَالِداً بِنِعْمَتِكَ،
73
74
To Thee belongs praise, a praise that will parallel
Thy benefaction!
وَلَكَ الْحَمْدُ حَمْداً يُوَازِي صُنْعَكَ،
74
75
To Thee belongs praise, a praise that will increase
Thy good pleasure!
وَلَكَ الْحَمْدُ حَمْداً يَزِيدُ عَلَى رِضَاكَ،
75
76
To Thee belongs praise, a praise along with the
praise of every praiser
وَلَكَ الْحَمْدُ حَمْداً مَعَ حَمْدِ كُلِّ حَامِد،
76
77
and a thanksgiving before which falls short the
thanksgiving of every thanksgiver;
وَشُكْراً يَقْصُرُ عَنْهُ شُكْرُ كُلِّ شَاكِر،
77
78
a praise which is suitable for none but Thee
حَمْداً لاَ يَنْبَغِي إلاَّ لَكَ،
78
79
and through which nearness is sought to none but
Thee;
وَلاَ يُتَقَرَّبُ بِهِ إلاَّ إلَيْكَ،
79
80
a praise which will make permanent the first
[bounty]
حَمْداً يُسْتَدَامُ بِهِ الاَوَّلُ،
80
81
and call forth the permanence of the last;
وَيُسْتَدْعَى بِهِ دَوَامُ الاخِرِ،
81
82
a praise which will multiply through recurrence of
times
حَمْداً يَتَضَاعَفُ عَلَى كُرُورِ الاَزْمِنَةِ،
82
83
and increase through successive doublings;
وَيَتَزَايَدُ أَضْعَافَاً مُتَرَادِفَةً،
83
84
a praise which the guardians will not be able to
number
حَمْداً يَعْجِزُ عَنْ إحْصَآئِهِ الْحَفَظَةُ،
84
85
and which exceeds what the writers number in Thy
Book;
وَيَزِيدُ عَلَى مَا أَحْصَتْهُ فِي كِتابِكَ
الْكَتَبَةُ،
85
86
a praise which will counterbalance Thy glorious
Throne
حَمْداً يُوازِنُ عَرْشَكَ المَجِيْدَ،
86
87
and equal Thy elevated Footstool;
وَيُعَادِلُ كُرْسِيَّكَ الرَّفِيعَ،
87
88
a praise whose reward with Thee will be complete
حَمْداً يَكْمُلُ لَدَيْكَ ثَوَابُهُ،
88
89
and whose recompense will comprise every recompense;
وَيَسْتَغْرِقُ كُلَّ جَزَآء جَزَآؤُهُ،
89
90
a praise whose outward conforms to its inward,
حَمْداً ظَاهِرُهُ وَفْقٌ لِبَاطِنِهِ،
90
91
and whose inward conforms to correct intention;
وَبَاطِنُهُ وَفْقٌ لِصِدْقِ النِّيَّةِِ،
91
92
a praise with whose like no creature has praised
Thee
حَمْداً لَمْ يَحْمَدْكَ خَلْقٌ مِثْلَهُ،
92
93
and whose excellence none knows but Thou;
وَلاَ يَعْرِفُ أَحَدٌ سِوَاكَ فَضْلَهُ،
93
94
a praise in which he who strives to multiply Thy
praise will be helped
حَمْداً يُعَانُ مَنِ اجْتَهَدَ فِي تَعْدِيْدِهِ،
94
95
and he who draws the bow to the utmost in fulfilling
it will be confirmed;
وَيُؤَيَّدُ مَنْ أَغْرَقَ نَزْعَاً فِي تَوْفِيَتِهِ،
95
96
a praise which will gather all the praise which Thou
hast created
حَمْداً يَجْمَعُ مَا خَلَقْتَ مِنَ الْحَمْدِ،
96
97
and tie together all which Thou wilt afterwards
create;
وَيَنْتَظِمُ مَا أَنْتَ خَالِقُهُ مِنْ بَعْدُ،
97
98
a praise than which no praise is nearer to Thy word
حَمْداً لاَ حَمْدَ أَقْرَبُ إلَى قَوْلِكَ مِنْهُ،
98
99
and than which none is greater from any who praise
Thee;
وَلاَ أَحْمَدَ مِمَّنْ يَحْمَدُكَ بِهِ،
99
100
a praise whose fullness will obligate increase
through Thy generosity
حَمْداً يُوجِبُ بِكَرَمِكَ الْمَزِيدَ بِوُفُورِهِ
100
101
and to which Thou wilt join increase after increase
as graciousness from Thee;
وَتَصِلُهُ بِمَزِيْد بَعْدَ مَزِيْد طَوْلاً مِنْكَ،
101
102
a praise that will befit the generosity of Thy face
and meet the might of Thy majesty!
حَمْداً يَجِبُ لِكَرَمِ وَجْهِكَ، وَيُقَابِلُ عِزَّ
جَلاَلِكَ.
102
103
My Lord, bless Muhammad and the Household of
Muhammad,
رَبِّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِ مُحَمَّد
103
104
the distinguished, the chosen,
الْمُنْتَجَبِ، الْمُصْطَفَى،
104
105
the honoured, the brought nigh, with the most
excellent of Thy blessings,
الْمُكَرَّمِ، الْمُقَرَّبِ، أَفْضَلَ صَلَوَاتِكَ،
105
106
benedict him with the most complete of Thy
benedictions,
وَبارِكْ عَلَيْهِ أَتَمَّ بَرَكاتِكَ،
106
107
and have mercy upon him with the most enjoyable of
Thy mercies!
وَتَرَحَّمْ عَلَيْهِ أَمْتَعَ رَحَمَاتِكَ.
107
108
My Lord, bless Muhammad and his Household with a
fruitful blessing,
رَبِّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ، صَلاَةً
زَاكِيَةً،
108
109
more fruitful than which there is no blessing!
لاَ تَكُونُ صَلاَةٌ أَزْكَى مِنْهَا،
109
110
Bless him with a growing blessing,
وَصَلِّ عَلَيْهِ صَلاَةً نَامِيَةً،
110
111
more growing than which there is no blessing!
لاَ تَكُونُ صَلاةٌ أَنْمَى مِنْهَا،
111
112
And bless him with a pleasing blessing,
وَصَلِّ عَلَيْهِ صَلاةً رَاضِيَةً،
112
113
beyond which there is no blessing!
لاَ تَكُونُ صَلاةٌ فَوْقَهَا.
113
114
My Lord, bless Muhammad and his Household
رَبِّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ،
114
115
with a blessing which will please him and increase
his good pleasure!
صَلاَةً تُرْضِيهِ وَتَزِيدُ عَلَى رِضَاهُ،
115
116
Bless him with a blessing which will please Thee and
increase Thy good pleasure toward him!
وَصَلِّ عَلَيْهِ صَلاَةً تُرْضِيكَ وَتَزِيدُ عَلَى
رِضَاكَ لَهُ،
116
117
And bless him with a blessing through other than
which Thou wilt not be pleased for him,
وَصَلِّ عَلَيْهِ صَلاَةً لاَ تَرْضَى لَهُ إلاَّ
بِهَا،
117
118
and for which Thou seest no one else worthy!
وَلاَ تَرى غَيْرَهُ لَهَا أَهْلاً.
118
119
My Lord, bless Muhammad and his Household
رَبِّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ،
119
120
with a blessing which will pass beyond Thy good
pleasure, be continuous in its continuity through
Thy subsistence,
صَلاَةً تُجَاوِزُ رِضْوَانَكَ، وَيَتَّصِلُ
اتِّصَالُهَا بِبَقَآئِكَ،
120
121
and never be spent, just as Thy words will never be
spent!
وَلاَ يَنْفَدُ كَمَا لاَ تَنْفَدُ كَلِماتُكَ.
121
122
My Lord, bless Muhammad and his Household
رَبِّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ
122
123
with a blessing which will tie together the
blessings of Thy angels,
وَآلِهِ صَلاَةً تَنْتَظِمُ صَلَوَاتِ مَلائِكَتِكَ
123
124
Thy prophets, Thy messengers, and those who obey
Thee,
وَأَنْبِيآئِكَ وَرُسُلِكَ وَأَهْلِ طَاعَتِكَ.
124
125
comprise the blessings of Thy servants,
وَتَشْتَمِلُ عَلَى صَلَوَاتِ عِبَادِكَ
125
126
jinn or mankind, and those worthy of Thy response,
مِنْ جِنّكَ وَإنْسِكَ وَأَهْلِ إجَابَتِكَ،
126
127
and bring together the blessings of every one of the
kinds of Thy creatures which Thou hast sown and
authored!
وَتَجْتَمِعُ عَلَى صَلاَةِ كُلِّ مَنْ ذَرَأْتَ
وَبَرَأْتَ مِنْ أَصْنَافِ خَلْقِكَ.
127
128
My Lord, bless Muhammad and his Household
رَبِّ صَلِّ عَلَيْهِ وَآلِهِ
128
129
with a blessing which will encompass every blessing,
bygone and new!
صَلاَةً تُحِيطُ بِكُلِّ صَلاَة سَالِفَة
وَمُسْتَأْنَفَة،
129
130
Bless him and his Household
وَصَلِّ عَلَيْهِ وَعَلَى آلِهِ
130
131
with a blessing which is pleasing to Thee and
everyone below Thee
صَلاَةً مَرْضِيَّةً لَكَ وَلِمَنْ دُونَكَ،
131
132
and will bring forth with all that a blessing with
which Thou wilt multiply those blessings
وَتُنْشِئُ مَعَ ذَلِكَ صَلَوَات تُضَاعِفُ مَعَهَا
تِلْكَ الصَّلَوَاتِ عِنْدَهَا،
132
133
and increase them through the recurrence of days
with an increasing
وَتَزِيدُهَا عَلَى كُرُورِ الاَيَّامِ زِيَادَةً
133
134
in multiples which none can count but Thou!
فِي تَضَاعِيفَ لاَ يَعُدُّهَا غَيْرُكَ.
134
135
My Lord, bless the best of his Household,
رَبِّ صَلِّ عَلَى أَطَائِبِ أَهْلِ بَيْتِهِ
135
136
those whom Thou hast chosen for Thy command,
الَّذِينَ اخْتَرْتَهُمْ لاَِمْرِكَ،
136
137
appointed the treasurers of Thy knowledge, the
guardians of Thy religion,
وَجَعَلْتَهُمْ خَزَنَةَ عِلْمِكَ، وَحَفَظَةَ
دِيْنِكَ،
137
138
Thy vicegerents in Thy earth, and Thy arguments
against Thy servants,
وَخُلَفَآءَكَ فِي أَرْضِكَ، وَحُجَجَكَ عَلَى
عِبَادِكَ،
138
139
purified from uncleanness and defilement through a
purification by Thy desire (ref:33:33),
وَطَهَّرْتَهُمْ مِنَ الرِّجْسِ وَالدَّنَسِ
تَطْهِيراً بِإرَادَتِكَ،
139
140
and made the mediation to Thee and the road to Thy
Garden!
وَجَعَلْتَهُمُ الْوَسِيْلَةَ إلَيْكَ وَالْمَسْلَكَ
إلَى جَنَّتِكَ،
140
141
My Lord, bless Muhammad and his Household
رَبِّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ
141
142
with a blessing which makes plentiful Thy gifts and
generosity,
صَلاةً تُجْزِلُ لَهُمْ بِهَا مِنْ نِحَلِكَ
وَكَرَامَتِكَ،
142
143
perfects for them Thy bestowals and awards,
وَتُكْمِلُ لَهُمُ الاَشْيَآءَ مِنْ عَطَاياكَ
وَنَوَافِلِكَ،
143
144
and fills out their share of Thy kindly acts and
benefits!
وَتُوَفِّرُ عَلَيْهِمُ الْحَظَّ مِنْ عَوَائِدِكَ
وَفَوائِدِكَ.
144
145
My Lord, bless him and his Household with a blessing
whose first has no term,
رَبِّ صَلِّ عَلَيْهِ وَعَلَيْهِمْ صَلاَةً لاَ أَمَدَ
فِي أَوَّلِهَا،
145
146
whose term has no limit, and whose last has no
utmost end!
وَلاَ غَايَةَ لاَِمَدِهَا، وَلاَ نِهَايَةَ
لاِخِرِهَا.
146
147
My Lord, bless them to the weight of Thy Throne and
all below it,
رَبِّ صَلِّ عَلَيْهِمْ زِنَةَ عَرْشِكَ وَمَا
دُونَهُ،
147
148
the amount that fills the heavens and all above
them,
وَمِلءَ سَموَاتِكَ وَمَا فَوْقَهُنَّ،
148
149
the number of Thy earths and all below and between
them,
وَعَدَدَ أَرَضِيْكَ، وَمَا تَحْتَهُنَّ، وَمَا
بَيْنَهُنَّ،
149
150
a blessing that will bring them near to Thee in
proximity, please Thee and them,
صَلاَةً تُقَرِّبُهُمْ مِنْكَ زُلْفى وَتَكُونُ لَكَ
وَلَهُمْ رِضَىً،
150
151
and be joined to its likes forever!
وَمُتَّصِلَةٌ بِنَظَائِرِهِنَّ أَبَداً.
151
152
O God, surely Thou hast confirmed Thy religion in
all times
أللَّهُمَّ إنَّكَ أَيَّدْتَ دِينَكَ فِي كُلِّ أَوَان
152
153
with an Imam whom Thou hast set up as a guidepost to
Thy servants and a lighthouse in Thy lands,
بِإمَام أَقَمْتَهُ عَلَماً لِعِبَادِكَ وَّمَنارَاً
فِي بِلاَدِكَ،
153
154
after his cord has been joined to Thy cord!
بَعْدَ أَنْ وَصَلْتَ حَبْلَهُ بِحَبْلِكَ،
154
155
Thou hast appointed him the means to Thy good
pleasure,
وَجَعَلْتَهُ الذَّرِيعَةَ إلَى رِضْوَانِكَ،
155
156
made obeying him obligatory, cautioned against
disobeying him,
وَافْتَرَضْتَ طَاعَتَهُ، وَحَذَّرْتَ مَعْصِيَتَهُ،
156
157
and commanded following his commands, abandoning
what he has prohibited,
وَأَمَرْتَ بِامْتِثَالِ أوَاِمِرِه وَالانْتِهَآءِ
عِنْدَ نَهْيِهِ،
157
158
and that no forward-goer go ahead of him or
back-keeper keep back from him! So he is the
preservation of the shelter-seekers,
وَأَلاَّ يَتَقَدَّمَهُ مُتَقَدِّمٌ، وَلاَ
يَتَأَخَّرَ عَنْهُ مُتَأَخِّرٌ،فَهُوَ عِصْمَةُ
اللاَّئِذِينَ
158
159
the cave of the faithful, the handhold of the
adherents, and the radiance of the worlds!
، وَكَهْفُ الْمُؤْمِنِينَ، وَعُرْوَةُ
الْمُتَمَسِّكِينَ، وَبَهَآءُ الْعَالَمِينَ.
159
160
O God, so inspire Thy guardian to give thanks for
that in which Thou hast favoured him,
أللَّهُمَّ فَأَوْزِعْ لِوَلِيِّكَ شُكْرَ مَا
أَنْعَمْتَ بِهِ عَلَيْهِ،
160
161
inspire us with the like concerning him, grant him
‘an authority from Thee to help him’ (ref.17:80),
وَأَوْزِعْنَا مِثْلَهُ فِيهِ، وَآتِهِ مِنْ لَدُنْكَ
سُلْطَاناً نَصِيراً،
161
162
open for him an easy opening, aid him with Thy
mightiest pillar,
وَافْتَحْ لَهُ فَتْحاً يَسِيراً، وَأَعِنْهُ
بِرُكْنِكَ الاعَزِّ،
162
163
brace up his back, strengthen his arm, guard him
with Thy eye,
وَاشْدُدْ أَزْرَهُ، وَقَوِّ عَضُدَهُ، وَرَاعِهِ
بِعَيْنِكَ،
163
164
defend him with Thy safeguarding, help him with Thy
angels,
وَاحْمِهِ بِحِفْظِكَ، وَانْصُرْهُ بِمَلائِكَتِكَ،
164
165
and assist him with Thy most victorious troops!
Through him establish Thy Book, Thy bounds,
وَامْدُدْهُ بِجُنْدِكَ الاَغْلَبِ وَأَقِمْ بِهِ
كِتَابَكَ وَحُدُودَكَ،
165
166
Thy laws, and the norms of Thy Messenger’s Sunna
(Thy blessings, O God, be upon him and his
Household),
وَشَرَائِعَكَ وَسُنَنَ رَسُولِكَ صَلَوَاتُكَ
اللَّهُمَّ عَلَيْهِ وَآلِهِ،
166
167
bring to life the guideposts of Thy religion,
deadened by the wrongdoers,
وَأَحْيِ بِهِ مَا أَمَاتَهُ الظَّالِمُونَ مِنْ
مَعَالِمِ دِينِكَ،
167
168
burnish the rust of injustice from Thy way,
وَاجْلُ بِهِ صَدَآءَ الْجَوْرِ عَنْ طَرِيقَتِكَ،
168
169
sift the adversity from Thy road,
وَأَبِنْ بِهِ الضَّرَّآءَ مِنْ سَبِيلِكَ،
169
170
eliminate those who deviate from Thy path,
وَأَزِلْ بِهِ النَّاكِبِينَ عَنْ صِرَاطِكَ،
170
171
and erase those who seek crookedness in Thy
straightness!
وَامْحَقْ بِهِ بُغَاةَ قَصْدِكَ عِوَجاً،
171
172
Make his side mild toward Thy friends, stretch forth
his hand over Thy enemies,
وَأَلِنْ جَانِبَهُ لاَِوْلِيَآئِكَ، وَابْسُطْ يَدَهُ
عَلَى أَعْدَائِكَ،
172
173
give us his clemency, his mercy, his tenderness, his
sympathy,
وَهَبْ لَنا رَأْفَتَهُ وَرَحْمَتَهُ وَتَعَطُّفَهُ
وَتَحَنُّنَهُ،
173
174
and make us his hearers and obeyers, strivers toward
his good pleasure,
وَاجْعَلْنَا لَهُ سَامِعِينَ مُطِيعِينَ، وَفِي
رِضَاهُ سَاعِينَ،
174
175
assistants in helping him and defending him,
وَإلَى نُصْرَتِهِ وَالْمُدَافَعَةِ عَنْهُ
مُكْنِفِينَ،
175
176
and brought near through that to Thee and Thy
Messenger
وَإلَيْكَ وَإلَى رَسُولِكَ صَلَواتُكَ
176
177
(Thy blessings, O God, be upon him and his
Household).
اللَّهُمَّ عَلَيْهِ وَآلِهِ بِذَلِكَ مُتَقَرِّبِينَ.
177
178
O God, and bless the friends [of the Imams], the
confessors of their station,
أللَّهُمَّ وَصَلِّ عَلَى أَوْلِيآئِهِمُ
الْمُعْتَرِفِينَ بِمَقَامِهِمْ،
178
179
the keepers to their course, the pursuers of their
tracks,
الْمُتَّبِعِينَ مَنْهَجَهُمْ، الْمُقْتَفِيْنَ
آثَارَهُمْ،
179
180
the clingers to their handhold, the adherents to
their guardianship,
الْمُسْتَمْسِكِينَ بِعُرْوَتِهِمْ، الْمُتَمَسِّكِينَ
بِوَلاَيَتِهِمْ،
180
181
the followers of their imamate, the submitters to
their command,
الْمُؤْتَمِّينَ بِإمَامَتِهِمْ، الْمُسَلِّمِينَ
لاَِمْرِهِمْ
181
182
the strivers to obey them, the awaiters of their
days,
الْمُجْتَهِدِيْنَ فِي طاعَتِهِمْ، الْمُنْتَظِرِيْنَ
أَيَّامَهُمْ،
182
183
the directors of their eyes toward them,
الْمَادِّينَ إلَيْهِمْ أَعْيُنَهُمْ،
183
184
with blessings blessed, pure, growing, fresh, and
fragrant!
الصَّلَوَاتِ الْمُبَارَكَاتِ الزَّاكِيَاتِ
النَّامِيَاتِ الغَادِيَاتِ، الرَّائِحاتِ.
184
185
Give them and their spirits peace,
وَسَلِّمْ عَلَيْهِمْ وَعَلَى أَرْوَاحِهِمْ،
185
186
bring together their affair in reverential fear,
وَاجْمَعْ عَلَى التَّقْوَى أَمْرَهُمْ،
186
187
set right their situations,
وَأَصْلِحْ لَهُمْ شُؤُونَهُمْ،
187
188
turn toward them,
وَتُبْ عَلَيْهِمْ
188
189
“Surely Thou art Ever-turning, All-compassionate”
(2:128) and the Best of forgivers,
إنَّكَ أَنْتَ التَّوَّابُ الرَّحِيمُ وَخَيْرُ
الْغَافِرِينَ،
189
190
and place us with them in the Abode of Peace,
through Thy mercy, O Most Merciful of the merciful!
وَاجْعَلْنَا مَعَهُمْ فِي دَارِ السَّلاَمِ
بِرَحْمَتِكَ يَا أَرْحَمَ الرَّاحِمِينَ.
190
191
O God, this is the Day of ‘Arafa,
أللَّهُمَّ هَذَا يَوْمُ عَرَفَةَ،
191
192
a day which Thou hast made noble, given honour, and
magnified. Within it Thou hast spread Thy mercy,
يَوْمٌ شَرَّفْتَهُ وَكَرَّمْتَهُ وَعَظَّمْتَهُ،
نَشَرْتَ فِيهِ رَحْمَتَكَ،
192
193
showed kindness through Thy pardon, and made
plentiful Thy giving,
وَمَنَنْتَ فِيهِ بِعَفْوِكَ وَأَجْزَلْتَ فِيهِ
عَطِيَّتَكَ،
193
194
and by it Thou hast been bounteous toward Thy
servants.
وَتَفَضَّلْتَ بِهِ عَلَى عِبَادِكَ.
194
195
I am Thy servant whom Thou favoured before creating
him and after creating him.
أللَّهُمَّ وَأَنَا عَبْدُكَ الَّذِي أَنْعَمْتَ
عَلَيْهِ قَبْلَ خَلْقِكَ لَهُ، وَبَعْدَ خَلْقِكَ
إيَّاهُ،
195
196
Thou madest him one of those whom Thou guided to Thy
religion,
فَجَعَلْتَهُ مِمَّنْ هَدَيْتَهُ لِدِينِكَ،
196
197
gavest success in fulfilling Thy right, preserved
through Thy cord,
وَوَفَّقْتَهُ لِحَقِّكَ، وَعَصَمْتَهُ بِحَبْلِكَ،
197
198
included within Thy party, and directed aright to
befriend Thy friends
وَأَدْخَلْتَهُ فِيْ حِزْبِكَ، وَأَرْشَدْتَهُ
لِمُوَالاَةِ أَوْليآئِكَ،
198
199
and show enmity to Thine enemies. Then Thou
commanded him, but he did not follow Thy commands,
وَمُعَادَاةِ أَعْدَائِكَ، ثُمَّ أَمَرْتَهُ فَلَمْ
يَأْتَمِرْ،
199
200
Thou restricted Him, but he did not heed Thy
restrictions, Thou prohibited him from disobedience
toward Thee, but he broke Thy command by doing what
Thou hadst prohibited,
وَزَجَرْتَهُ فَلَمْ يَنْزَجِرْ، وَنَهَيْتَهُ عَنْ
مَعْصِيَتِكَ فَخَالَفَ أَمْرَكَ إلَى نَهْيِكَ،
200
201
not in contention with Thee, nor to display pride
toward Thee;
لاَ مُعَانَدَةً لَكَ وَلاَ اسْتِكْبَاراً عَلَيْكَ،
201
202
on the contrary, his caprice called him to that
which Thou hadst set apart and cautioned against,
بَلْ دَعَاهُ هَوَاهُ إلَى مَا زَيَّلْتَهُ، وَإلَى
مَا حَذَّرْتَهُ،
202
203
and he was helped in that by Thy enemy and his
enemy.
وَأَعَانَهُ عَلَى ذالِكَ عَدُوُّكَ وَعَدُوُّهُ،
203
204
So he went ahead with it knowing Thy threat, hoping
for Thy pardon,
فَأَقْدَمَ عَلَيْهِ عَارِفاً بِوَعِيْدِكَ، رَاجِياً
لِعَفْوِكَ،
204
205
and relying upon Thy forbearance, though he was the
most obligated of Thy servants
وَاثِقاً بِتَجَاوُزِكَ، وَكَانَ أَحَقَّ عِبَادِكَ ـ
205
206
– given Thy kindness toward him – not to do so.
مَعَ مَا مَنَنْتَ عَلَيْهِ ـ أَلاَّ يَفْعَلَ،
206
207
Here I am, then, before Thee, despised,
وَهَا أَنَا ذَا بَيْنَ يَدَيْكَ صَاغِراً،
207
208
lowly, humble, abject, fearful,
ذَلِيلاً، خَاضِعَاً، خَاشِعاً، خَائِفَاً،
208
209
confessing the dreadful sins with which I am
burdened
مُعْتَرِفاً بِعَظِيم مِنَ الذُّنُوبِ تَحَمَّلْتُهُ،
209
210
and the great offenses that I have committed,
وَجَلِيْل مِنَ الْخَطَايَا اجْتَرَمْتُهُ،
210
211
seeking sanctuary in Thy forgiveness, asking shelter
in Thy mercy,
مُسْتَجِيراً بِصَفْحِكَ، لائِذاً بِرَحْمَتِكَ،
211
212
and certain that no sanctuary-giver will give me
sanctuary from Thee
مُوقِناً أَنَّهُ لاَ يُجِيرُنِي مِنْكَ مُجِيرٌ،
212
213
and no withholder will hold me back from Thee.
وَلاَ يَمْنَعُنِي مِنْكَ مَانِعٌ .
213
214
So act kindly toward me, just as Thou actest kindly
by Thy shielding him who commits sins,
فَعُدْ عَلَيَّ بِمَا تَعُودُ بِهِ عَلَى مَنِ
اقْتَرَفَ مِنْ تَغَمُّدِكَ،
214
215
be munificent toward me, just as Thou art munificent
by pardoning him who throws himself before Thee,
وَجُدْ عَلَيَّ بِمَا تَجُودُ بِهِ عَلَى مَنْ أَلْقَى
بِيَدِهِ إلَيْكَ مِنْ عَفْوِكَ،
215
216
and show kindness to me, just as it is nothing great
for Thee
وَامْنُنْ عَلَيَّ بِمَا لاَ يَتَعَاظَمُكَ
216
217
to show kindness by forgiving him who expectantly
hopes in Thee!
أَنْ تَمُنَّ بِهِ عَلَى مَنْ أَمَّلَكَ مِنْ
غُفْرَانِكَ،
217
218
Appoint for me in this day an allotment through
which I may attain a share of Thy good pleasure,
وَاجْعَلْ لِي فِي هَذَا الْيَوْمِ نَصِيباً أَنَالُ
بِهِ حَظّاً مِنْ رِضْوَانِكَ،
218
219
and send me not back destitute of that with which
Thy worshipers return from among Thy servants!
وَلاَ تَرُدَّنِي صِفْراً مِمَّا يَنْقَلِبُ بِهِ
الْمُتَعَبِّدُونَ لَكَ مِنْ عِبَادِكَ،
219
220
Though I have not forwarded the righteous deeds
which they have forwarded,
وَإنِّي وَإنْ لَمْ أُقَدِّمْ مَا قَدَّمُوهُ مِنَ
الصَّالِحَاتِ،
220
221
I have forwarded the profession of Thy Unity
فَقَد قَدَّمْتُ تَوْحِيدَكَ،
221
222
and the negation from Thee of opposites, rivals, and
likenesses,
وَنَفْيَ الاَضْدَادِ وَالاَنْدَادِ وَالاشْبَاهِ
عَنْكَ،
222
223
I have come to Thee by the gateways by which Thou
hast commanded that people come,
وَأَتَيْتُكَ مِنَ الاَبْوَابِ الَّتِي أَمَرْتَ أَنْ
تُؤْتى مِنْها،
223
224
and I have sought nearness to Thee through that,
without seeking nearness through which,
وَتَقَرَّبْتُ إلَيْكَ بِمَا لاَ يَقْرُبُ ،
224
225
none gains nearness to Thee.
أَحَدٌ مِنْكَ إلاَّ بِالتَّقَرُّبِ بِهِ
225
226
Then I followed all this with repeated turning
toward Thee,
ثُمَّ أَتْبَعْتُ ذلِكَ بِالاِنابَةِ إلَيْكَ،
226
227
lowliness and abasement before Thee, good opinion of
Thee, and trust in what is with Thee;
وَالتَّذَلُّلِ وَالاسْتِكَانَةِ لَكَ، وَحُسْنِ
الظَّنِّ بِكَ، وَالثِّقَةِ بِمَا عِنْدَكَ،
227
228
and to that I coupled hope in Thee,
وَشَفَعْتُهُ بِرَجآئِكَ
228
229
since the one who hopes in Thee is seldom
disappointed!
الَّذِي قَلَّ مَا يَخِيبُ عَلَيْهِ رَاجِيْكَ،
229
230
I asked Thee with the asking of one vile, lowly,
وَسَأَلْتُكَ مَسْأَلَةَ الْحَقِيرِ الذّلِيلِ
230
231
pitiful, poor, fearful, seeking sanctuary;
الْبَائِسِ الْفَقِيْرِ الْخَائِفِ الْمُسْتَجِيرِ،
231
232
all that in fear and pleading, seeking refuge and
asking shelter,
وَمَعَ ذَلِكَ خِيفَةً وَتَضَرُّعاً وَتَعَوُّذاً
وَتَلَوُّذاً،
232
233
not presumptuous through the pride of the proud,
لاَ مُسْتَطِيلاً بِتَكبُّرِ الْمُتَكَبِّرِينَ،
233
234
nor exalting myself with the boldness of the
obedient,
وَلاَ مُتَعَالِياً بِدالَّةِ الْمُطِيعِينَ،
234
235
nor presumptuous of the intercession of the
interceders.
وَلاَ مُسْتَطِيلاً بِشَفَاعَةِ الشَّافِعِينَ،
235
236
For I am still the least of the least and the
lowliest of the lowly,
وَأَنَا بَعْدُ أَقَلُّ الاَقَلِّيْنَ، وَأَذَلُّ
الاَذَلِّينَ،
236
237
like a dust mote or less!
وَمِثْلُ الذَّرَّةِ أَوْ دُونَهَا.
237
238
O He who does not hurry the evildoers nor restrain
those living in ease!
فَيَا مَنْ لَمْ يَعَاجِلِ الْمُسِيئِينَ، وَلاَ
يَنْدَهُ الْمُتْرَفِينَ،
238
239
O He who shows kindness through releasing the
stumblers and gratuitous bounty through respiting
the offenders!
وَيَا مَنْ يَمُنُّ بِإقَالَةِ الْعَاثِرِينَ،
وَيَتَفَضَّلُ بإنْظَارِ الْخَاطِئِينَ،
239
240
I am the evildoer, the confessor, the offender, the
stumbler!
أَنَا الْمُسِيءُ الْمُعْتَرِفُ الْخَاطِئُ
الْعَاثِرُ،
240
241
I am he who was audacious toward Thee as one
insolent!
أَنَا الَّذِيْ أَقْدَمَ عَلَيْكَ مُجْتَرِئاً،
241
242
I am he who disobeyed Thee with forethought!
أَنَا الَّذِي عَصَاكَ مُتَعَمِّداً،
242
243
I am he who hid myself from Thy servants and
blatantly showed myself to Thee!
أَنَا الَّذِي اسْتَخْفى مِنْ عِبَادِكَ وَبَارَزَكَ،
243
244
I am he who was awed by Thy servants and felt secure
from Thee!
أَنَا الَّذِي هَابَ عِبَادَكَ وَأَمِنَكَ
244
245
I am he who dreaded not Thy penalty and feared not
Thy severity!
أَنَا الَّذِي لَمْ يَرْهَبْ سَطْوَتَكَ وَلَمْ يَخَفْ
بَأْسَكَ
245
246
I am the offender against himself! I am the hostage
to his own affliction!
أَنَا الْجَانِي عَلَى نَفْسِهِ، أَنَا الْمُرْتَهَنُ
بِبَلِيَّتِهِ،
246
247
I am short in shame! I am long in suffering!
الْقَلِيلُ الْحَيَاءِ، أَنَا الطَّوِيلُ الْعَنآءِ،
247
248
By the right of him whom Thou hast distinguished
among Thy creation
بِحَقِّ مَنِ انْتَجَبْتَ مِنْ خَلْقِكَ،
248
249
and by him whom Thou hast chosen for Thyself!
وَبِمَنِ اصْطَفَيْتَهُ لِنَفْسِكَ،
249
250
By the right of him whom Thou hast selected from
among Thy creatures and by him whom Thou hast picked
for Thy task!
بِحَقِّ مَنِ اخْتَرْتَ مِنْ بَريَّتِكَ، وَمَنِ
اجْتَبَيْتَ لِشَأْنِكَ،
250
251
By the right of him the obeying of whom Thou hast
joined to obeying Thee,
بِحَقِّ مَنْ وَصَلْتَ طَاعَتَهُ بِطَاعَتِكَ،
251
252
and by him the disobeying of whom Thou hast made
like disobeying Thee!
وَمَنْ جَعَلْتَ مَعْصِيَتَهُ كَمَعْصِيَتِكَ
252
253
And by the right of him whose friendship Thou hast
bound to Thy friendship
بِحَقِّ مَنْ قَرَنْتَ مُوَالاَتَهُ بِمُوالاتِكَ،
253
254
and by him whose enmity Thou hast linked to Thine
enmity!
وَمَنْ نُطْتَ مُعَادَاتَهُ بِمُعَادَاتِكَ.
254
255
Shield me in this day of mine, by that through which
Thou shieldest him who prays fervently to Thee while
disavowing
تَغَمَّدْنِي فِي يَوْمِيَ هَذَا بِمَا تَتَغَمَّدُ
بِهِ مَنْ جَارَ إلَيْكَ مُتَنَصِّلاً،
255
256
and him who seeks refuge in Thy forgiveness while
repenting!
وَعَاذَ بِاسْتِغْفَارِكَ تَائِباً،
256
257
Attend to me with that through which Thou attendest
to the people of obedience toward Thee,
وَتَوَلَّنِي بِمَا تَتَوَلَّى بِهِ أَهْلَ طَاعَتِكَ،
257
258
proximity to Thee, and rank with Thee!
وَالزُّلْفَى لَدَيْكَ، وَالْمَكَانَةِ مِنْكَ،
258
259
Single me out, as Thou singlest him out who fulfils
Thy covenant,
وَتَوَحَّدْنِي بِمَا تَتَوَحَّدُ بِهِ مَنْ وَفى
بِعَهْدِكَ،
259
260
fatigues himself for Thy sake alone, and exerts
himself in Thy good pleasure!
وَأَتْعَبَ نَفْسَهُ فِيْ ذَاتِكَ، وَأَجْهَدَهَا فِي
مَرْضَاتِكَ،
260
261
Take me not to task for my neglect in respect to
Thee,
وَلاَ تُؤَاخِذْنِي بِتَفْرِيطِيْ فِي جَنْبِكَ،
261
262
my transgressing the limit in Thy bounds, and
stepping outside Thy ordinances!
وَتَعَدِّي طَوْرِيْ فِي حُدودِكَ، وَمُجَاوَزَةِ
أَحْكَامِكَ.
262
263
Draw me not on little by little by granting me a
respite,
وَلاَ تَسْتَدْرِجْنِي بِإمْلائِكَ لِي
263
264
like the drawing on little by little of him who
withholds from me the good he has
اسْتِدْرَاجَ مَنْ مَنَعَنِي خَيْرَ مَا عِنْدَهُ،
264
265
by not sharing with Thee in letting favour down upon
me!
وَلَمْ يَشْرَكْكَ فِي حُلُولِ نِعْمَتِهِ بِي،
265
266
Arouse me from the sleep of the heedless,
وَنَبِّهْنِي مِنْ رَقْدَةِ الْغَافِلِينَ،
266
267
the slumber of the prodigal, and the dozing of the
forsaken!
وَسِنَةِ الْمُسْرِفِينَ، وَنَعْسَةِ الْمَخْذُولِينَ.
267
268
Take my heart to that in which Thou hast employed
the devout,
وَخُذْ بِقَلْبِي إلَى مَا اسْتَعْمَلْتَ بِهِ
القَانِتِيْنَ،
268
269
enthralled the worshipers, and rescued the remiss!
وَاسْتَعْبَدْتَ بِهِ الْمُتَعَبِّدِينَ،
وَاسْتَنْقَذْتَ بِهِ الْمُتَهَاوِنِينَ،
269
270
Give me refuge from that which will keep me far from
Thee,
وَأَعِذْنِي مِمَّا يُبَاعِدُنِي عَنْكَ،
270
271
come between me and my share from Thee,
وَيَحُولُ بَيْنِي وَبَيْنَ حَظِّي مِنْكَ،
271
272
and bar me from that which I strive for in Thee!
وَيَصُدُّنِي عَمَّا أُحَاوِلُ لَدَيْكَ.
272
273
Make easy for me the road of good deeds toward Thee,
وَسَهِّلْ لِي مَسْلَكَ الْخَيْرَاتِ إلَيْكَ،
273
274
racing to them from where Thou hast commanded,
وَالْمُسَابَقَةِ إلَيْهَا مِنْ حَيْثُ أَمَرْتَ،
274
275
and coveting them as Thou desirest!
وَالْمُشَاحَّةَ فِيهَا عَلَى مَا أَرَدْتَ.
275
276
Efface me not along with those whom Thou effacest
for thinking lightly of what Thou hast promised!
وَلاَ تَمْحَقْنِي فِيمَنْ تَمْحَقُ مِنَ
الْمُسْتَخِفِّينَ بِمَا أَوْعَدْتَ،
276
277
Destroy me not with those whom Thou destroyest for
exposing themselves to Thy hate!
وَلاَ تُهْلِكْنِي مَعَ مَنْ تُهْلِكُ مِنَ
الْمُتَعَرِّضِينَ لِمَقْتِكَ،
277
278
Annihilate me not among those whom Thou annihilatest
for deviating from Thy roads!
وَلاَ تُتَبِّرْني فِيمَنْ تُتَبِّرُ مِنَ
الْمُنْحَرِفِينَ عَنْ سُبُلِكَ.
278
279
Deliver me from the floods of trial,
وَنَجِّنِيْ مِنْ غَمَرَاتِ الْفِتْنَةِ،
279
280
save me from the gullets of affliction,
وَخَلِّصْنِي مِنْ لَهَوَاتِ الْبَلْوى،
280
281
and grant me sanctuary from being seized by respite!
وَأَجِرْنِي مِنْ أَخْذِ الاِمْلاءِ،
281
282
Come between me and the enemy who misguides me,
وَحُلْ بَيْنِي وَبَيْنَ عَدُوٍّ يُضِلُّنِي،
282
283
the caprice which ruins me, and the failing which
overcomes me!
وَهَوىً يُوبِقُنِي، وَمَنْقَصَة تَرْهَقُنِي.
283
284
Turn not away from me with the turning away in wrath
from one with whom Thou art not pleased!
وَلاَ تُعْرِضْ عَنِّي إعْرَاضَ مَنْ لاَ تَرْضَى
عَنْهُ بَعْدَ غَضَبِكَ،
284
285
Let me not lose heart in expecting from Thee, lest I
be overcome by despair of Thy mercy!
وَلاَ تُؤْيِسْنِي مِنَ الامَلِ فِيكَ، فَيَغْلِبَ
عَلَيَّ الْقُنُوطُ مِنْ رَحْمَتِكَ،
285
286
Grant me not that which I cannot endure,
وَلاَ تَمْنَحْنِي بِمَا لاَ طَاقَةَ لِيْ بِهِ،
286
287
lest Thou weighest me down with the surplus of Thy
love which Thou loadest upon me!
فَتَبْهَظَنِي مِمَّا تُحَمِّلُنِيهِ مِنْ فَضْلِ
مَحَبَّتِكَ،
287
288
Send me not from Thy hand, the sending of him who
possesses no good,
وَلاَ تُرْسِلْنِي مِنْ يَدِكَ إرْسَالَ مَنْ لاَ
خَيْرَ فِيهِ،
288
289
toward whom Thou hast no need, and who turns not
back [to Thee]!
وَلاَ حَاجَةَ بِكَ إلَيْهِ، وَلاَ إنابَةَ لَهُ،
289
290
Cast me not with the casting of him who has fallen
from the eye of Thy regard
وَلاَ تَرْمِ بِيَ رَمْيَ مَنْ سَقَطَ مِنْ عَيْنِ
رِعَايَتِكَ،
290
291
and been wrapped in degradation from Thee!
وَمَنِ اشْتَمَلَ عَلَيْهِ الْخِزْيُ مِنْ عِنْدِكَ،
291
292
Rather take my hand [and save me] from the falling
of the stumblers,
بَلْ خُذْ بِيَدِيْ مِنْ سَقْطَةِ الْمُتَرَدِّدِينَ،
292
293
the disquiet of the deviators, the slip of those
deluded, and the plight of the perishers!
وَوَهْلَةِ الْمُتَعَسِّفِيْنَ، وَزَلّةِ
الْمَغْرُورِينَ، وَوَرْطَةِ الْهَالِكِينَ.
293
294
Release me from that with which Thou hast afflicted
the ranks of Thy servants and handmaids
وَعَافِنِي مِمَّا ابْتَلَيْتَ بِهِ طَبَقَاتِ
عَبِيدِكَ وَإمآئِكَ،
294
295
and make me reach the utmost degrees of him about
whom Thou art concerned, towards whom Thou showest
favour, and with whom Thou art pleased,
وَبَلِّغْنِي مَبَالِغَ مَنْ عُنِيتَ بِهِ،
وَأَنْعَمْتَ عَلَيْهِ، وَرَضِيتَ عَنْهُ،
295
296
so that Thou lettest him live as one praiseworthy
and takest him to Thee as one felicitous!
فَأَعَشْتَهُ حَمِيداً، وَتَوَفَّيْتَهُ سَعِيداً،
296
297
Collar me with the collar of abstaining from that
which makes good deeds fail
وَطَوِّقْنِي طَوْقَ الاِقْلاَعِ عَمَّا يُحْبِطُ
الْحَسَنَاتِ،
297
298
and takes away blessings!
وَيَذْهَبُ بِالْبَرَكَاتِ،
298
299
Impart to my heart restraint before ugly works of
evil
وَأَشْعِرْ قَلْبِيَ الازْدِجَارَ عَنْ قَبَائِحِ
السَّيِّئاتِ،
299
300
and disgraceful misdeeds!
وَفَوَاضِحِ الْحَوْبَاتِ،
300
301
Divert me not by that which I cannot reach except
through Thee from doing that which alone makes Thee
pleased with me!
وَلاَ تَشْغَلْنِي بِمَا لاَ أُدْرِكُهُ إلاَّ بِكَ
عَمَّا لا َ يُرْضِيْكَ عَنِّي غَيْرُهُ،
301
302
Root out from my heart the love of this vile world,
which keeps from everything which is with Thee,
وَانْزَعْ مِنْ قَلْبِي حُبَّ دُنْيَا دَنِيَّة تَنْهى
عَمَّا عِنْدَكَ،
302
303
bars from seeking the mediation to Thee, and
distracts from striving for nearness to Thee!
وَتَصُدُّ عَنِ ابْتِغَآءِ الْوَسِيلَةِ إلَيْكَ،
وَتُذْهِلُ عَنِ التَّقَرُبِ مِنْكَ،
303
304
Embellish for me solitude in prayer whispered to
Thee by night and by day!
وَزَيِّنَ لِيَ التَّفَرُّدَ بِمُنَاجَاتِكَ
بِاللَّيْلِ وَالنَّهَارِ،
304
305
Give me a preservation which will bring me close to
dread of Thee,
وَهَبْ لِي عِصْمَةً تُدْنِينِي مِنْ خَشْيَتِكَ،
305
306
cut me off from committing things made unlawful by
Thee,
وَتَقْطَعُنِي عَنْ رُكُوبِ مَحَارِمكَ،
306
307
and spare me from captivation by dreadful sins!
وَتَفُكُّنِي مِنْ أَسْرِ الْعَظَائِمِ،
307
308
Give me purification from the defilement of
disobedience,
وَهَبْ لِي التَّطْهِيرَ مِنْ دَنَسِ الْعِصْيَانِ،
308
309
take away from me the filth of offenses,
وَأَذْهِبْ عَنِّي دَرَنَ الْخَطَايَا،
309
310
dress me in the dress of Thy well-being,
وَسَرْبِلْنِي بِسِرْبالِ عَافِيَتِكَ،
310
311
cloak me in the cloak of Thy release,
وَرَدِّنِي رِدَآءَ مُعَافاتِكَ،
311
312
wrap me in Thy ample favours,
وَجَلِّلْنِي سَوابِغَ نَعْمَائِكَ،
312
313
and clothe me in Thy bounty and Thy graciousness!
وَظَاهِرْ لَدَيَّ فَضْلَكَ وَطَوْلَكَ،
313
314
Strengthen me with Thy giving success and Thy
pointing the right way,
وَأَيْدْنِي بِتَوْفِيقِكَ وَتَسْدِيْدِكَ،
314
315
help me toward righteous intention, pleasing words,
and approved works,
وَأَعِنِّي عَلَى صالِحِ النِّيَّةِ وَمَرْضِيِّ
الْقَوْلِ وَمُسْتَحْسَنِ الْعَمَلِ.
315
316
and entrust me not to my force and my strength in
place of Thy force and Thy strength!
وَلاَ تَكِلْنِي إلَى حَوْلِي وَقُوَّتِي دُونَ
حَوْلِكَ وَقُوَّتِكَ،
316
317
Degrade me not on the day Thou raisest me up to meet
Thee,
وَلاَ تَخْزِنِي يَوْمَ تَبْعَثُنِي لِلِقائِكَ،
317
318
disgrace me not before Thy friends,
وَلاَ تَفْضَحْنِي بَيْنَ يَدَيْ أَوْلِياِئكَ،
318
319
make me not forget remembering Thee, take not away
from me thanking Thee,
وَلاَ تُنْسِنِي ذِكْرَكَ، وَلاَ تُذْهِبْ عَنِّي
شُكْرَكَ،
319
320
but enjoin it upon me in states of inattention when
the ignorant are heedless of Thy boons,
بَلْ أَلْزِمْنِيهِ فِي أَحْوَالِ السَّهْوِ عِنْدَ
غَفَلاَتِ الْجَاهِلِينَ لاِلائِكَ،
320
321
and inspire me to laud what Thou hast done for me
وَأَوْزِعْنِي أَنْ أُثْنِيَ بِمَا أَوْلَيْتَنِيهِ،
321
322
and confess to what Thou hast conferred upon me!
وَأَعْتَرِفِ بِمَا أَسْدَيْتَهُ إلَيَّ،
322
323
Place my beseeching Thee above the beseeching of the
beseechers
وَاجْعَلْ رَغْبَتِي إلَيْكَ فَوْقَ رَغْبَةِ
الْرَّاغِبِينَ،
323
324
and my praise of Thee above the praise of the
praisers!
وَحَمْدِي إيَّاكَ فَوْقَ حَمْدِ الْحَامِدِيْنَ،
324
325
Abandon me not with my neediness for Thee,
وَلاَ تَخْذُلْنِي عِنْدَ فاقَتِي إلَيْكَ،
325
326
destroy me not for what I have done for Thee,
وَلاَ تُهْلِكْنِي بِمَا أَسْدَيْتُهُ إلَيْكَ،
326
327
and slap not my brow with that with which Thou
slappest the brow of those who contend with Thee,
وَلاَ تَجْبَهْنِي بِمَا جَبَهْتَ بِهِ لْمَعَانِدِينَ
لَكَ،
327
328
for I am submitted to Thee. I know that the argument
is Thine,
فَإنِّي لَكَ مُسَلِّمٌ، أَعْلَمُ أَنَّ الْحُجَّةَ
لَكَ،
328
329
that Thou art closest to bounty, most accustomed to
beneficence,
وَأَنَّكَ أَوْلَى بِالْفَضْلِ، وَأَعْوَدُ
بِالاحْسَانِ،
329
330
“worthy of reverent fear, and worthy of forgiveness”
(75:56),
وَأَهْلُ التَّقْوَى، وَأَهْلُ الْمَغْفِرَةِ،
330
331
that Thou art closer to pardoning than to punishing,
وَأَنَّكَ بِأَنْ تَعْفُوَ أَوْلَى مِنْكَ بِأَنْ
تُعَاقِبَ،
331
332
and that Thou art nearer to covering over than to
making notorious!
وَأَنَّكَ بِأَنْ تَسْتُرَ أَقْرَبُ مِنْكَ إلَى أنْ
تَشْهَرَ،
332
333
Let me live an agreeable life that will tie together
what I want
فَأَحْيِنِي حَياةً طَيِّبَةً تَنْتَظِمُ بِما أُرِيدُ
333
334
and reach what I love while I not bring what Thou
dislikest
وَتَبْلُغُ مَا أُحِبُّ مِنْ حَيْثُ لاَ آتِي مَا
تَكْرَهُ
334
335
and not commit what Thou hast prohibited;
وَلاَ أَرْتَكِبُ مَا نَهَيْتَ عَنْهُ،
335
336
and make me die the death of him whose light runs
before him and on his right hand!
وَأَمِتْنِي مِيْتَةَ مَنْ يَسْعَى نُورُهُ بَيْنَ
يَدَيْهِ، وَعَنْ يِمِيِنهِ،
336
337
Abase me before Thyself and exalt me before Thy
creatures,
وَذَلِّلْنِي بَيْنَ يَدَيْكَ، وَأَعِزَّنِيْ عِنْدَ
خَلْقِكَ،
337
338
lower me when I am alone with Thee and raise me
among Thy servants,
وَضَعْنِي إذَا خَلَوْتُ بِكَ، وَارْفَعْنِي بَيْنَ
عِبادِكَ،
338
339
free me from need for him who has no need of me
وَأَغْنِنِي عَمَّنْ هُوَ غَنِيٌّ عَنِّي،
339
340
and increase me in neediness and poverty toward
Thee!
وَزِدْنِي إلَيْكَ فَاقَةً وَفَقْراً،
340
341
Give me refuge from the gloating of enemies,
وَأَعِذْنِي مِنْ شَمَاتَةِ الاَعْدَاءِ،
341
342
the arrival of affliction, lowliness and suffering!
وَمِنْ حُلُولِ الْبَلاءِ، وَمِنَ الذُّلِّ
وَالْعَنَآءِ،
342
343
Shield me in what Thou seest from me,
تَغَمَّدني فِيمَا اطَّلَعْتَ عَلَيْهِ مِنِّي
343
344
the shielding of him who would have power over
violence had he no clemency,
بِمَا يَتَغَمَّدُ بِهِ الْقَادِرُ عَلَى الْبَطْشِ
لَوْلاَ حِلْمُهُ،
344
345
and would seize for misdeeds had he no lack of
haste!
وَالاخِذُ عَلَى الْجَرِيرَةِ لَوْلاَ أَناتُهُ،
345
346
When Thou desirest for a people a trial or an evil,
deliver me from it, for I seek Thy shelter;
وَإذَا أَرَدْتَ بِقَوْم فِتْنَةً أَوْ سُوءً
فَنَجِّنِي مِنْهَا لِواذاً بِكَ،
346
347
and since Thou hast not stood me in the station of
disgrace in this world of Thine, stand me not in
such a station in the next world of Thine!
وَإذْ لَمْ تُقِمْنِي مَقَامَ فَضِيحَة فِي دُنْيَاكَ
فَلاَ تُقِمْنِي مِثْلَهُ فِيْ آخِرَتِكَ،
347
348
Couple for me the beginnings of Thy kindnesses with
their ends
وَاشْفَعْ لِي أَوَائِلَ مِنَنِكَ بِأَوَاخِرِهَا،
348
349
and the ancient of Thy benefits with the freshly
risen!
وَقَدِيمَ فَوَائِدِكَ بِحَوَادِثِهَا.
349
350
Prolong not my term with a prolonging through which
my heart will harden!
وَلاَ تَمْدُدْ لِيَ مَدّاً يَقْسُو مَعَهُ قَلْبِي،
350
351
Strike me not with a striking that will take away my
radiance!
وَلاَ تَقْرَعْنِي قَارِعَةً يَذْهَبُ لَها بَهَآئِي،
351
352
Visit me not with a meanness that will diminish my
worth
وَلاَ تَسُمْنِي خَسِيْسَةً يَصْغُرُ لَهَا قَدْرِي،
352
353
or a deficiency that will keep my rank unknown!
وَلاَ نَقِيصَةً يُجْهَلُ مِنْ أَجْلِهَا مَكَانِي،
353
354
Frighten me not with a fright by which I will
despair or a terror through which I will dread,
وَلاَ تَرُعْنِي رَوْعَةً أُبْلِسُ بِها، وَلاَ
خِيْفةً أوجِسُ دُونَهَا.
354
355
but make me stand in awe of Thy threat,
اجْعَلْ هَيْبَتِي في وَعِيدِكَ،
355
356
take precautions against Thy leaving no excuses
وَحَذَرِي مِنْ إعْذارِكَ وَإنْذَارِكَ،
356
357
and Thy warning, and tremble at the recitation of
Thy verses!
وَرَهْبَتِي عِنْدَ تِلاَوَةِ آياتِكَ،
357
358
Fill my night with life by keeping me awake therein
for worshipping Thee,
وَاعْمُرْ لَيْلِي بِإيقَاظِي فِيهِ لِعِبَادَتِكَ،
358
359
solitude with vigil for Thee, exclusive devotion to
reliance upon Thee,
وَتَفَرُّدِي بِالتَّهَجُّدِ لَكَ، وَتَجَرُّدِي
بِسُكُونِي إلَيْكَ،
359
360
setting my needs before Thee,
وَإنْزَالِ حَوَائِجِي بِكَ،
360
361
and imploring that Thou wilt set my neck free from
the Fire
وَمُنَازَلَتِي إيَّاكَ فِي فَكَاكِ رَقَبَتِي مِنْ
نَارِكَ،
361
362
and grant me sanctuary from Thy chastisement, within
which its inhabitants dwell!
وَإجَارَتِي مِمَّا فِيهِ أَهْلُهَا مِنْ عَذَابِكَ.
362
363
Leave me not blindly wandering in my insolence
وَلاَ تَذَرْنِي فِي طُغْيَانِي عَامِهاً،
363
364
or inattentive in my perplexity for a time,
وَلاَ فِي غَمْرَتِي سَاهِياً حَتَّى حِين،
364
365
make me not an admonition to him who takes
admonishment, a punishment exemplary for him who
takes heed,
وَلاَ تَجْعَلْنِي عِظَةً لِمَنِ اتَّعَظَ، وَلاَ
نَكَالاً لِمَنِ اعْتَبَرَ،
365
366
a trial for him who observes, devise not against me
along with those against whom Thou devisest,
وَلاَ فِتْنَةً لِمَن نَظَرَ، وَلاَ تَمْكُرْ بِيَ
فِيمَنْ تَمْكُرُ بِهِ،
366
367
replace me not with another, change not my name,
وَلاَ تَسْتَبْدِلْ بِيَ غَيْرِي، وَلاَ تُغَيِّرْ
لِيْ إسْماً،
367
368
transform not my body, appoint me not a mockery for
Thy creatures,
وَلاَ تُبدِّلْ لِي جِسْماً، وَلاَ تَتَّخِذْنِي
هُزُوَاً لِخَلْقِكَ،
368
369
a laughing-stock for Thyself, a follower of anything
but Thy good pleasure,
وَلاَ سُخْرِيّاً لَكَ، وَلاَ تَبَعاً إلاَّ
لِمَرْضَاتِكَ،
369
370
a menial servant for anything but avenging Thee! Let
me find the coolness of Thy pardon
وَلاَ مُمْتَهَناً إلاَّ بِالانْتِقَامِ لَكَ،
وَأَوْجِدْنِي بَرْدَ عَفْوِكَ،
370
371
and the sweetness of Thy mercy, Thy repose, Thy
ease, and the garden of Thy bliss!
و حَلاَوَةَ رَحْمَتِكَ وَرَوْحِكَ وَرَيْحَانِكَ
وَجَنَّةِ نَعِيْمِكَ،
371
372
Let me taste, through some of Thy boundless plenty,
the flavour of being free for what Thou lovest
وَأَذِقْنِي طَعْمَ الْفَرَاغِ لِمَا تُحِبُّ بِسَعَة
مِنْ سَعَتِكَ،
372
373
and striving in what brings about proximity with
Thee and to Thee,
وَالاجْتِهَادِ فِيمَا يُزْلِفُ لَدَيْكَ وَعِنْدَك،
373
374
and give me a gift from among Thy gifts!
وَأَتْحِفْنِي بِتُحْفَة مِنْ تُحَفَاتِكَ،
374
375
Make my commerce profitable and my return without
loss,
وَاجْعَلْ تِجَارَتِي رَابِحَةً، وَكَرَّتِي غَيْرَ
خَاسِرَة،
375
376
fill me with fear of Thy station, make me yearn for
the meeting with Thee,
وَأَخِفْنِي مَقَامَكَ، وَشَوِّقْنِي لِقاءَكَ،
376
377
and allow me to repent with an unswerving repentance
along with which Thou lettest no sins remain, small
or large,
وَتُبْ عَلَيَّ تَوْبَةً نَصُوحاً لاَ تُبْقِ مَعَهَا
ذُنُوباً صِغِيرَةً وَلا كَبِيرَةً،
377
378
and leavest no wrongs, open or secret!
وَلاَ تَذَرْ مَعَهَا عَلاَنِيَةً وَلاَ سَرِيرَةً،
378
379
Root out rancour toward the faithful from my breast,
وَانْزَعِ الْغِلَّ مِنْ صَدْرِي لِلْمُؤْمِنِينَ،
379
380
bend my heart toward the humble,
وَاعْطِفْ بِقَلْبِي عَلَى الْخَاشِعِيْنَ،
380
381
be toward me as Thou art toward the righteous,
وَكُنْ لِي كَمَا تَكُونُ لِلصَّالِحِينَ،
381
382
adorn me with the adornment of the godfearing,
وَحَلِّنِي حِلْيَةَ الْمُتَّقِينَ،
382
383
appoint for me a goodly report among those yet to
come
وَاجْعَلْ لِيَ لِسَانَ صِدْق فِي الْغَابِرِيْنَ،
383
384
and a growing remembrance among the later folk, and
take me to the plain of those who came first!
وَذِكْراً نامِياً فِي الاخِرِينَ، وَوَافِ بِيَ
عَرْصَةَ الاَوَّلِينَ،
384
385
Complete the lavishness of Thy favour upon me,
clothe me in its repeated generosities,
وَتَمِّمْ سُبُوغَ نِعْمَتِكَ عَلَيَّ، وَظَاهِرْ
كَرَامَاتِهَا لَدَيَّ،
385
386
fill my hand with Thy benefits, drive Thy generous
gifts to me,
و امْلاْ مِنْ فَوَائِدِكَ يَدَيَّ، وَسُقْ كَرَائِمَ
مَوَاهِبِكَ إلَيَّ،
386
387
make me the neighbour of the best of Thy friends
وَجَاوِرْ بِيَ الاَطْيَبِينَ مِنْ أَوْلِيَآئِكَ
387
388
in the Gardens which Thou hast adorned for Thy
chosen
فِي الْجِنَاْنِ الَّتِي زَيَّنْتَهَا لاَِصْفِيآئِكَ،
388
389
and wrap me in Thy noble presents in the stations
prepared for Thy beloveds!
وَجَلِّلْنِي شَرَآئِفَ نِحَلِكَ فِي الْمَقَامَاتِ
الْمُعَدَّةِ لاَِحِبَّائِكَ،
389
390
Appoint for me a resting place with Thee where I may
seek haven in serenity,
وَاجْعَلْ لِيَ عِنْدَكَ مَقِيْلاً آوِي إلَيْهِ
مُطْمَئِنّاً،
390
391
and a resort to which I may revert and rest my eyes,
وَمَثابَةً أَتَبَوَّأُهَا وَأَقَرُّ عَيْناً.
391
392
weigh not against me my dreadful misdeeds,
وَلاَ تُقَايِسْنِي بِعَظِيمَاتِ الْجَرَائِرِ،
392
393
destroy me not on “the day the secrets are tried”
(86:9),
وَلاَ تُهْلِكْنِي يَوْمَ تُبْلَى السَّرَائِرُ،
393
394
eliminate from me every doubt and uncertainty,
وَأَزِلْ عَنِّي كُلَّ شَكٍّ وَشُبْهَة،
394
395
appoint for me a way in the truth from every mercy,
وَاجْعَلْ لِي فِي الْحَقِّ طَرِيقاً مِنْ كُلِّ
رَحْمَة،
395
396
make plentiful for me the portions of gifts from Thy
granting of awards,
وأَجْزِلْ لِي قِسَمَ الْمَواهِبِ مِنْ نَوَالِكَ،
396
397
and fill out for me the shares of beneficence from
Thy bestowal of bounty!
وَوَفِّرْ عَلَيَّ حُظُوظَ الاِحْسَانِ مِنْ
إفْضَالِكَ،
397
398
Make my heart trust in what is with Thee
وَاجْعَلْ قَلْبِي وَاثِقاً بِمَا عِنْدَكَ،
398
399
and my concern free for what is Thine,
وَهَمِّيَ مُسْتَفْرَغاً لِمَا هُوَ لَكَ،
399
400
employ me in that in which Thou employest Thy pure
friends,
وَاسْتَعْمِلْنِي بِما تَسْتَعْمِلُ بِهِ خَالِصَتَكَ،
400
401
drench my heart with Thy obedience when intellects
are distracted,
وَأَشْرِبْ قَلْبِي عِنْدَ ذُهُولِ العُقُولِ
طَاعَتَكَ،
401
402
and combine within me independence, continence,
ease, release,
وَاجْمَعْ لِي الْغِنى، وَالْعَفَافَ، وَالدَّعَةَ،
وَالْمُعَافَاةَ،
402
403
health, plenty, tranquillity, and well being!
وَالصِّحَّةَ، وَالسَّعَةَ، وَالطُّمَأْنِيْنَةَ،
وَالْعَافِيَةَ،
403
404
Make not fail my good deeds through my disobedience
that stains them
وَلاَ تُحْبِطْ حَسَنَاتِي بِمَا يَشُوبُهَا مِنْ
مَعْصِيَتِكَ،
404
405
or my private times of worship through the
instigations of Thy trial!
وَلاَ خَلَواتِي بِمَا يَعْرِضُ لِيَ مِنْ نَزَغَاتِ
فِتْنَتِكَ،
405
406
Safeguard my face from asking from anyone in the
world,
وَصُنْ وَجْهِي عَنِ الطَّلَبِ إلَى أَحَد مِنَ
الْعَالَمِينَ،
406
407
and drive me far from begging for that which is with
the ungodly!
وَذُبَّنِي عَنِ التِماسِ مَا عِنْدَ الفَاسِقِينَ،
407
408
Make me not an aid to the wrongdoers,
وَلاَ تَجْعَلْنِي لِلظَّالِمِينَ ظَهِيراً،
408
409
nor their hand and helper in erasing Thy Book!
وَلاَ لَهُمْ عَلى مَحْوِ كِتَابِكَ يَداً وَنَصِيراً،
409
410
Defend me whence I know not with a defense through
which Thou protectest me!
وَحُطْنِي مِنْ حَيْثُ لاَ أَعْلَمُ حِيَاطَةً
تَقِيْنِي بِهَا،
410
411
Open toward me the gates of Thy repentance, Thy
mercy, Thy clemency, and Thy boundless provision!
وَافْتَحْ لِيَ أَبْوَابَ تَوْبَتِكَ وَرَحْمَتِكَ
وَرَأْفَتِكَ وَرِزْقِكَ الواسِعِ،
411
412
Surely I am one of those who beseech Thee!
إنِّي إلَيْكَ مِنَ الرَّاغِبِينَ،
412
413
And complete Thy favour toward me! Surely Thou art
the best of those who show favour!
وَأَتْمِمْ لِي إنْعَامَكَ، إنَّكَ خَيْرُ
الْمُنْعِمِيْنَ،
413
414
Place the rest of my life in the hajj and the ‘umra
وَاجْعَلْ باقِيَ عُمْرِيْ فِي الْحَجِّ وَالْعُمْرَةِ
414
415
seeking Thy face, O Lord of the worlds!
ابْتِغَآءَ وَجْهِكَ يَاربَّ الْعَالَمِينَ،
415
416
And may God bless Muhammad and his Household, the
good, the pure,
وَصَلَّى اللهُ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ الطَّيِّبِينَ
الطَّاهِرِينَ،
416
417
and peace be upon him and them always and forever!
وَالسَّلاَمُ عَلَيْهِ وَعَلَيْهِمْ أَبَدَ
الابِدِينَ.
417

পরম করুণাময় এবং অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি

আরাফার দিবসে তাঁর একটি মুনাজাত।
আল্লাহ্র প্রশংসা করছি, যিনি বিশ্বের মালিক। আপনার প্রশংসা করছি, হে আকাশ এবং জমিনের স্রষ্টা, সম্মান ও গৌরবের অধিকারী, যে সকল প্রভুদের পূজা করা হয় তাদের প্রভু। সবকিছুর যিনি আল্লাহ্, সকল সৃষ্টির স্রষ্টা এবং সবকিছুর মালিক।
আপনার মত আর কেউ নেই।
যার কাছ থেকে কোনো কিছুর জ্ঞানই অন্তরালে নয়।
তিনি সবকিছুকে পরিবেষ্টন করে আছেন এবং সব কিছুর উপর নজর রাখেন।
আপনার সত্তাই আল্লাহ্, আপনি ব্যতীত কোনো মা’বুদ নেই। আপনি ্ডকে ও একক, আপনার কোনো শরিক নেই।
আপনার সত্তাই আল্লাহ্, আপনি ব্যতীত কোনো মা’বুদ নেই। যিনি বদান্যশীল, সদাশয়, মহান, সম্মানিত, উন্নত এবং মর্যাদার।
আপনার সত্তাই আল্লাহ্, আপনি ব্যতীত কোন মা’বুদ নেই। আপনি করুণাময়, দয়াময়, সব জান্তা, জ্ঞানী।
আপনার সত্তাই আল্লাহ্। আপনি ব্যতীত আর কোনো মা’বুদ নেই, যিনি শুনেন দেখেন যিনি চিরঞ্জীব এবং সজাগ।
আপনার সত্তাই আল্লাহ্। আপনি ব্যতীত কোনো মা’বুদ নেই। আপনি সম্মানিত, মর্যাদারসম্পন্ন, অনন্ত চিরঞ্জীব।
আপনার সত্তাই আল্লাহ্। আপনি ব্যতীত কোনো মা’বুদ নেই, যখন কেউ ছিল না তখন আপনিই ছিলেন এবং যখন কেউ থাকবে না তখন আপনিই থাকবেন।
আপনিই আল্লাহ্। আপনি ব্যতীত কোনো মা’বুদ নেই, যিনি উৎস ব্যতীরেকেই জিনিস সৃষ্টি করেছেন। আপনি যার ছুরত দিয়েছেন কোনো নমুনা ব্যতীতই ছুরত দিয়েছেন আর আপনি যা উদ্ভাবন করেছেন কোনো উদাহরণ ব্যতীতই উদ্ভাবন করেছেন।
আপনিই তিনি যিনি সঠিক মাত্রায় সব কিছুর ওজন দিয়েছেন। যেমন প্রত্যাশা করা হয় তেমনি সবকিছুকে সহজ করেছেন এবং সব কিছুর ব্যবস্থা করেছেন, আপনি নিজেই। যার ব্যবস্থা করা প্রয়োজন ছিল।
আপনিই তিনি যাকে কোনো কিছু সৃষ্টিতে কেউ সাহায্য করেনি অথবা কোনো সহকারী সহযোগিতা করেনি, আপনার সৃষ্টি কাজে কোনো সাক্ষ্য ছিলেন না (আপনি ব্যতীত), আপনার কোনো সঙ্গী নেই।
আপনিই সৃষ্টির ইচ্ছে করেছেন। আপনি যা চেয়েছেন যা দৃঢ় ছিল।
আপনি অঙ্গীকারাবদ্ধ হয়েছেন। আপনি যা অঙ্গীকার করেছেন যা যথাযথ ছিল।
আপনি আদেশ করেছেন। আপনি যা আদেশ করেছেন তা তেমন রয়েছে।
আপনিই তিনি যার স্থান কেউ কেড়ে নিতে পারবে না।
আপনার সার্বভৌমত্ব নস্যাৎ করতে কখনও কোনো সার্বভৌমত্বের উত্থান ঘটেনি, আপনাকে পরাজিত করতে কোনো যুক্তি অথবা ব্যাখ্যার উত্থান ঘটেনি।
আপনিই যথাযথভাবে সবকিছুর হিসাব রেখেছেন, সব কিছুর জন্য সময়ের এক চক্র রেখেছেন এবং সব কিছুকে যথাযথ মাত্রায় পরিমাপ করেছেন।
আপনি এমন সত্তা, কোনো অধ্যাত্মিক চিন্তা যার গুণ বিচার করতে যাওয়ায় ব্যর্থ এবং কোনো চোখও আপনার আশ পাশ দেখতে অসমর্থ।
আপনি এমন সত্তা যাকে বর্ণনা করে শেষ করা যায় না। আপনি যেমন তেমনভাবে কেউই তুলনা করেনি। আপনি কাউকে জন্ম দেননি অথবা কারও কাছ থেকে জন্ম নেননি।
আপনার কোনো বিরোধী নেই যে আপনার সাথে পাল্লা দিতে পারে। আপনার সমকক্ষ কেউ নেই যে আপনার উপর বিরাজ করবে এবং কোনো যুগল নেই যাকে আপনার সাথে দেখা যাবে।
আপনিই তিনি যিনি উদ গত করেছেন, আবিস্কার করেছেন, সৃষ্টি করেছেন, রুহু দিয়েছেন এবং যা তৈরী করেছেন তা যথাযথভাবেই তৈরী করেছেন।
আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি। আপনার মর্যাদা কত মহান। আপনার স্থান কত উচ্চে। আপনার বোধশক্তিতে সত্যের কিরূপ বিস্তৃতি। আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি, হে দয়াময়। আপনার সত্তা কত সদাশয়। হে দয়ালু, আপনার সত্তা কত দয়ালু। হে জ্ঞানী, আপনার সত্তা কিভাবে জানা সম্ভব। আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি, হে মহারাজ। আপনি কত ক্ষমতাবান। হে সদায়শয়, আপনার সত্তা কতই না স্বাধীন। হে গর্বিত, আপনি ত মর্যাদাশীল- সকল সদাশয়তা, মহান, মহত্ত্ব এবং প্রশংসার অধিকারী।
আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি। দান করতে আপনি আপনার হাতকে বিস্তৃত করেছেন। আপনার কাছ থেকে পথ-নির্দেশ অর্জন করেছি। সেজন্য যে কোনো গোপন অথবা প্রকাশ্য বিষয়ে যে আপনার তালাশ করে, সে আপনাকে পায়।
আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি। যে আপনার জেহালে বেঁচে আছে, আপনার সামনে মাথা নোয়ায়। আপনার সিংহাসনের নিচে যা কিছু আছে তা আপনার গৌরবের সামনে নম্র। সকল সৃষ্টিই আপনার আনুগত্যের আবদ্ধ। আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি। আপনাকে উপলদ্ধি করা যায় না, তালাশ করা যায় না, স্পর্শ করা যায় না, কাছে টানা যায় না, শত্রুতা করা যায় না, লড়াই করা যায় না, তাকে ঠকানো যায় না, অথবা ধোকা দেয়া যায় না।
আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি। আপনার রাস্তা সহজ। আপনার হুকুম হক্ব। আপনার সত্তা জীবন্ত এবং কোনো চাহিদা নেই।
আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি। আপনার দুনিয়া আধ্যাত্মিক।
আপনার অঙ্গীকার অলংঘনীয় এবং আপন আইন চূড়ান্ত।
আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি। আপনার ইচ্ছা প্রত্যাখ্যান করে এমন কেউ নেই, আপনার কথা পরিবর্তন করে এমন কেউ নেই।
আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছি। হে নিদর্শন বিস্তৃত করার মালিক, বেহেশত এবং জীবনের স্রষ্টা।
আপনার প্রশংসা করছি, এমন এক প্রশংসা যা আপনার অস্তিত্বের মত চিরস্থায়ী। আপনার প্রশংসা করছি, আপনার অনুগ্রহের সমকক্ষ। আপনার প্রশংসা করছি, আপনার কাজের সম পরিমাণ প্রশংসা। আপনার প্রশংসা করছি। এমন এক প্রশংসা যা আপনার প্রশংসাকে বৃদ্ধি করবে। আপনার প্রশংসা করছি, এমন এক প্রশংসা যা সকল প্রশংসাকারীদের সমান, একটি কৃতজ্ঞতা যা সকল কৃতজ্ঞদের কৃতজ্ঞতাকে ছাড়িয়ে যাবে। একটি প্রশংসা আপনি ব্যতীত আর কারো জন্যে নয়। যা আপনার দিকেই অগ্রসর হবে। অতীত অনুগ্রহের সমতুল্য প্রশংসা যা দ্বারা ভবিষ্যত প্রতিদানের জন্য অনুরোধ করা যায়। একটি প্রশংসা যা সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে এবং বৃদ্ধিপ্রাপ্ত সফলতার সাথে যোগ হবে। এমন এক প্রশংসা যা হিসাব রক্ষণকারীগণ হিসেব রাখতে পারবে না এবং যা কেরামান কাতিবিনের খাতা উপচে পড়বে। আপনার আরশের সমপরিমাণ প্রশংসা এবং আপনার সম্মানিত পাদকায় পরিণত হবে। এমন এক প্রশংসা করছি যা আপনা থেকে প্রতিবাদ নিতে যথাযথ হবে এবং এই প্রতিদান আমার অন্যান্য প্রতিদানকে ডুবিয়ে দিবে। এমন এক প্রশংসা করছি যা এর অন্তর্নিহিতে সাথে সামঞ্জস্য হবে এবং এর অন্তর্নিহিত মূল একাগ্রতার সাথে প্রকাশ পাবে। এমন এক প্রশংসা করছি যা কোনো সৃষ্টিই কোনো কালে করেনি এবং যার অনন্যতা আপনি ব্যতীত আর কারো পাশে নেই।
এমন প্রশংসা করছি, যে এ গণনা করার দায়িত্ব হবে সে অন্যের সাহায্য নিবে এবং সে তা গণনা করতে খুব চেষ্টা করেও না পেরে সহযোগিতা নেবে। এমন প্রশংসা যা আপনি প্রশংসার জন্য যা সৃষ্টি করেছেন, তাতে সমন্বয় সাধন করবে এবং পরবর্তীতে যা সৃষ্টি করবেন তার সাথে সমন্বয় সাধন করবে। এমন এক প্রশংসা করছি যা আপনার কথার নিকটবর্তী। যে এ কথা দ্বারা আপনার প্রশংসা করে সে ব্যতীত আর কোনো প্রশঙসাকারী তার চেয়ে বড় নয়। এমন এক প্রশংসা যা আপনার সম্মানের বরাবর হবে (সংখ্যায়) এবং আপনার মহত্ত্বের সমকক্ষ।
হে প্রভু, হযরত মুহাম্মদকে অনুগ্রহ করুন এবং তাঁর বংশধরদেরকে। যিনি নির্বাচিত, পছন্দনীয়, সম্মানিত, যিনি নিকটবর্তী, আপনার অনুগ্রহের শ্রেষ্ঠ অনন্যতায়। তার উপর আনার সহায়তা যথাযথভাবে বরাদ্দ করুন।
আপনার দয়াশীলতার সর্বোচ্চ ভান্ডার থেকে তাকে সাহায্য করুন।
হে প্রভু, এক পবিত্র অনুগ্রহে হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন, অন্য কোনো অনুগ্রহ যার থেকে বেশি পবিত্র হবে না।
তাঁর এবং তাঁর বংশধরদের উপর এক বাড়ন্ত সহায়তা বরাদ্দ করুন, অন্য কোনো সহায়তা এর চেয়ে বেশি উর্বর হবে না।
তাঁর উপর এবং তাঁর বংশধরদের উপর এক মনোরম অনুগ্রহ করুন, যাতে অন্য কোনো অনুগ্রহ এর চেয়ে শ্রেষ্ঠ না হয়।
হে প্রভু, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন, একটি সহায়তার সাথে যা তাঁকে তৃপ্ত করবে এবং তাঁর সন্তুষ্টি বৃদ্ধি করে দেবে। তাঁর জন্য সহায়তা বরাদ্দ করুন যা আপনাকে সন্তুষ্ট করবে এবং তাঁর উপর আপনার কবুলিয়তকে বৃদ্ধি করে দেবে।
তাঁর জন্য একটি সহায়তা বরাদ্দ করুন যা আপনি তাকে ব্যতীত আর কাউর জন্য বরাদ্দ করেননি। আপনার দৃষ্টিতে তিনি ব্যতীত আর কেউ যার উপযুক্ত নয়।
হে প্রভু, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ বরাদ্দ করুন যা আপনার কবুলিয়তকে উপচিয়ে যাবে, যার হিসেব নির্ভর করে আপনার অশেষ স্থায়িত্বের উপর এবং যা কখনও মরে যাবে না যেমন নাকি আপনার কথা কখনও মরে যায় না।
হে প্রভু, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর এমন অনুগ্রহ বরাদ্দ করুন যা আপনার ফেরেস্তাদের, আপনার নবীদের, এবং আপনার রাসূলদের অনুগ্রহ সমন্বয় করবে, আর সমন্বয় করবে তাদের অনুগ্রহ যারা আপনাকে মান্য করে। যা জ্বিন এবং মানুষ বান্দাদের এবং তাদের অনুগ্রহ সমন্বিত করবে যারা আপনার হুকুম তামিল করে। যা আপনার সৃজিত এবং রুহ দেয়া সকল ক্ষেত্রের সৃষ্টির অনুগ্রহকে অন্তর্ভূক্ত করবে।
হে প্রভু, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন যা অতীত এবং ভবিষ্যতের সমস্ত অনুগ্রহকে ছাপিয়ে যাবে।
তাঁর উপর এবং তাঁর বংশধরদের উপর এমন অনুগ্রহ করুন যা আপনার কাছে এবং আপনার পাশের অন্যান্যদের কাছে শোভন।
উপরন্তু, তা দিয়ে সাহায্য করুন যা একই সাথে এবং দিনের চক্রকালে অনুগ্রহগুলোকে বহুগুণে বৃদ্ধি করবে। মর্যাদা বৃদ্ধির দ্বারা তাদেরকে বদ্ধি করুন যা আপনি ব্যতীত আর কেউ গণনা করতে সক্ষম হবে না।
হে প্রভু, তাঁর বংশধরদের পবিত্র সদস্যদের উপর সাহায্য বরাদ্দ করুন যাদেরকে আপনি আপনার মিশনের জন্য পছন্দ করেছেন, যাদেরকে আপনি আপনার এলমের ভান্ডার বানিয়েছেন, আপনার মাখলুকের কাছে আপনার যুক্তি হিসেবে পেশ করেছেন। আপনি নিজ ইচ্ছায় তাদের অপবিত্রতা এবং দোষকে পরিষ্কার করেছেন এবং বেহেশতে প্রবেশের পথ নির্দেশক করেছেন।
হে প্রভু, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন যা দ্বারা আপনি আপনার সদাশয়তা এবং দয়া তাদের উপর বিস্তার করতে পারেন। আপনার পুরস্কার এবং অতিরিক্ত সহায়তার সবকিছু তাদেরকে দিন।
আপনার প্রতিদান এবং লাভের অংশ তাদের জন্য বৃদ্ধি করে দিন।
হে প্রভু, দার উপর একং তাদের উপর এমন সহায়তা প্রদর্শন করুন যার শুরুর কোনো সীমা নেই, এর সময়ের কোনো বাধ্যবাধকতা নেই এবং এর অবিরত চলার কোনো ক্ষান্তি নেই।
হে প্রভু, তাদের উপর এমন অনুগ্রহ করুন যা আপনার আরশের ওজন বরাবর এবং এর নিচে অবস্থিত আকাশ পূর্ণতার সমান আপনার ভূমির সংখ্যা পরিমাণ এবং নিচে যা কিছু আছে তার সমান এমন এক অনুগ্রহ যা তাদেরকে আপনার কাছে আনবে এবং আপনাকেও তাদেরকে সন্তুষ্ট করবে। আর সবসময় একই অনুগ্রহের সমন্বয় সাধন করবে।
হে প্রভু, বিশেষত প্রত্যেক যুগে আপনি দ্বীনকে সহায়তা করেছেন একজন ইমামের দ্বারা, যার কাছে আপনি বান্দারে কাছে নিদর্শন দাঁড় করিয়েছেন এবং আপনার শহরগুলোর একটি আলোর খাম, সে আপনার সাথে অঙ্গীকারাবন্ধ হওয়ার পর।
আপনি তাকে কবুল করেছেন, তার আনুগত্যকে সন্তুষ্ট চিত্তে গ্রহণ করেছেন। আপনি লোকদেরকে হুমকি দিয়ে আপনার আনুগত্য না করা থেকে বিরত রেখেছেন।
আপনি আদেশ করেছেন তার হুকুমের আনুগত্য করতে এবং তার নিষেধে বিরত থাকতে। আর কোনো প্রতিদ্বন্ধীই তার উপর নেতৃত্ব করতে পারে না এবং কোনো প্রতিদ্বন্দ্বীই তার উপর নেতৃত্ব করতে পারে না এবং কোনো পশ্চাদ্বাবনকারীই তার পিছু নিতে পারবে না।
সেজন্য সে হল তাদের আশ্রম যারা আশ্রয় তালাশ করে, ঈমানদারদের রক্ষক, বিশ্বের বাসিন্দাদের সহযোগী এবং আলো।
হে প্রভু, সেজন্য সাহায্যের কৃতজ্ঞতার সাথে আপনার প্রতিনিধিকে উৎসাহিত করুন, যা আপনি তার মাধ্যমে আমাদের উপর বরাদ্দ করেছেন। তার জন্য আমাদের একই কৃতজ্ঞতায় উৎসাহিত করুন। আপনি তাকে সমর্থিত কর্তৃত্ব দিন।
তাকে সহজ জয় দিয়ে দিন।
আপনার সবচেয়ে সম্মানিত সমর্থনের দ্বারা তাকে সহায়তা করুন।
তার পিঠকে শক্তিশালী করুন।
তার বাহুকে মক্তি বৃদ্ধি করে দিন।
আপনার কুদরতি চোখে তার নজর রাখুন।
আপনার নিরাপত্তার দ্বারা তাঁকে রক্ষা করুন।
আপনার ফেরেস্তাদের দ্বারা আপনি তাঁকে সাহায্য করুন।
আপনি তাঁকে বিজয়ী অতিথির সাহায্যে বিপদ থেকে উদ্ধার করুন।
তাঁর মাধ্যমে আপনার কিতাব প্রতিষ্ঠা করেন, আপনার হুকুম-আহকাম এবং নবীর সুন্নত প্রতিষ্ঠা করেন। নবীর উপর এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন।
তাঁর উছিলায় আপনার দ্বীনের নিদর্শনগুলো জীবন্ত করে তুলুন, যা স্বৈরশাসকগণ বিলোপ করে ফেলেছে। তাঁর মাধ্যমে আপনার রাস্তা থেকে স্বৈরাচারীর কাঁটা দূর করে ফেলুন। তাঁর মাধ্যমে এ রাস্তার কাঠিন্য দূর করুন। তাঁর মাধ্যমে তাদেরকে ধ্বংস করুন যারা ভুল করে আপনার সরল রাস্তার বিপরীতে চলে।
আপনার বন্ধুদের জন্য তার দিলকে নরম করে দিন। তার হাতকে আপনার শত্রুর বিরুদ্ধে চালনা করুন এবং আমাদের জন্য তাঁর দয়া মঞ্জুর করুন। নসীব করুন তার ক্ষমাশীলতা, তার সজীবতা এবং তার করুণা।
আমাদেরকে তার কথা শুনার এবং মানার তৌফিক দিন।
তাঁর অনুমোদন লাভের তৌফিক দিন।
তাকে সহায়তা এবং রক্ষা করতে রাজি হয়ে যান যা দ্বারা আপনার দিকে এবং আপনার নবীর দিকে অগ্রসর করুন- তাঁর উপর এবং তাঁর বংশধরদের উপর আপনার অনুগ্রহ প্রদর্শন করুন, হে প্রভু।
হে প্রভু, তাদের বন্ধুদেরকে অনুগ্রহ করুন যারা তাদের মর্যাদার স্বীকৃতি দেয়,
তাদের পদাঙ্ক অনুসরণ করে,
তাদের হাতলকে আঁকড়ে ধরে,
তাদের নেতৃত্বকে অনুসরণ করে,
তাদের আদেশ মান্য করে,
তাদের সেবায় নিয়োজিত থেকে,
তাদের ক্ষমতার দিনের আশা করে,
আর নিজেদের চোখগুলোকে তাদের উপর নিবদ্ধ রেখে,
মঙ্গলজনক, নিখাঁদ এবং প্রতিটি সকাল ও সন্ধ্যায় বৃদ্ধিপ্রাপ্ত অনুগ্রহের দ্বারা।
তাদের উপর এবং তাদের আত্মার উপর শান্তি বর্ষণ করুন।
তাদের নেক উদ্দেশ্যকে এক করে দিন।
তাদের ফায়দার জন্য তাদের অবস্থার পরিবর্তন করুন। তাদের তওবা কবুল করুন।
বিশেষতহ আপনার মহান সত্তা তওবা কবুলকারী, দয়াশীল, শ্রেষ্ঠ ক্ষমাশীল। আপনার সদাশয়তায় আমাদেরকেও তাদের শান্তির আবাসস্থলে আশ্রয় দিন, হে অতি দয়ালু।
হে প্রভু, আজ আরাফার দিন, এটি এমন এক দিন আপনি যাকে সম্মানিত করেছেন, সম্মানিত এবং মর্যাদাপূর্ণ করেছেন। এই দিনে আপনি আপনার ক্ষমাকে বিস্তৃত করেছেন, আপনি আপনার ক্ষমকার ্দবারা সহায়তা করেন, আপনি মনোরম পুরস্কার তৈরী করেছেন যা দ্বারা আপনার বান্দাদের প্রতি দয়া প্রদর্শন করেছেন।
হে প্রভু, আমি আপনার বান্দা যাকে আপনি সৃষ্টির পূর্ব এবং আত্মা দেওয়ার পূর্বেই সহায়তা করেছেন। এভাবে আপনি তাকে তাদের মধ্যে করে পয়দা করেছেন যারা আপনার দ্বীনের প্রতি পথ-প্রদর্শিত। আপনার নিয়ম অমান্য করা হতে তাদেরকে অনুগ্রহ করেছেন, আপনার নিরাপত্তার দ্বারা তাদেরকে হেফাজত করেছেন, যাদেরকে আপনার অতিতি হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন, আপনার বন্ধুদেরকে ভালবাসাকে আপনি তাদেরকে পথ-নির্দেশ করেছেন এবং আপনার শত্রুদেরকে ভালবাসাকে আপনি তাদেরকে পথ-নির্দেশ করেছেন এবং আপনার শত্রুদের ঘৃণা করতে।
অতপর আপনি তাকে হুকুম করেছেন, আর সে পালন করতে ব্যর্থ হয়েছে। আপনি তাকে বাধা দিয়েছেন, আর সে বাধা মনেনি। আপনাকে অমান্য করা থেকে তাকে বাধা দিয়েছেন, আর সে আপনার হুকুম অমান্য করেছে এবং আপনি যা করতে নিষেধ করেছেন সে তাই করেছে- সে আপনার প্রতি শত্রুভাবাপন্ন হয়ে অথবা আপনার বিপক্ষে একগুয়েমিতে এরূপ করেনি, কিন্তু তার প্রত্যাশা আপনি যা থেকে বিরত থাকতে বলেছেন এবং যে বিষয়ে আপনি হুমকি দিয়েছেন তাতে নিমন্ত্রিত হয়।
আর আপনার এবং তার শত্রু শয়তান তা করতে তাকে প্রলুদ্ধ করেছে, যদিও সে আপনার দেয়া হুমকি সন্বন্ধে অবগত, সে আপনার ক্ষমা এবং মাফির আশা কর। তার উপর আপনার অনুগ্রহের বিবেচনায় সে আপনার এমন বান্দা যার এমনটি করা মানায় না। দেখুন, আমি এখানে আপনার সত্তার সামনে অবনত, সদাশয়হীন, মিনতিপূর্ণ, কাঁদো কাঁদো, ভীত, জঘন্যতহম পাপসমূহ স্বীকার করছি যা আমি নিজের উপর বোঝা চাপিয়েছি, আর মস্ত বড় অপরাধগুলো যা আমি সংঘটন করেছি।
আপনার ক্ষমার আশ্রয় চেয়ে, আপনার ক্ষমায় আশ্রয় পাওয়ার জন্য নিজেকে নিয়ে, বিশ্বাস করে যে কোনো রক্ষাকারীই আমাকে আপনার কাছ থেকে রক্ষা করতে পারবে না এবং কোনো প্রতিরোধকারীই আপনার কাছ থেকে প্রতিরোধ করতে পারবে না।
সেজন্য, আমাকে ঐ রকম রক্ষা করুন যা আপনি তার বেলায় করেন যে ভুল করে।
আমাকে ঐ ক্ষমা দিয়ে সাহায্য করুন যা আপনি তার বেলায় করেছেন যে আপনার দিকে হাত বাড়ায়।
আমার উপর ঐ ক্ষমা প্রদর্শন করুন যা আপনি তার জন্য অসম্ভব করেন নি যে আপনার কাছে তা প্রত্যাশা করে।
এদিনে আমাকেও একটি অংশ দান করুন যা দ্বারা আমি যেন আপনার কবুলিয়ত লাভ করতে পারি। আমাকে ঐ জিনিস ব্যতীত দূরে সরিয়ে দিয়েন না যা আপনার এবাদতকারী বান্দারা বয়ে নিয়ে যায়।
বিশেষত, যদিও তাদের মত পূর্বে আমি নেক আমল পাঠাতে পারিনি, যাইহোক, আমি আপনার একত্ববাদের দিকে অগ্রসর হয়েছি এবং আপনার বিরোধীদের অস্বীকার করেছি। আমি আপনার দিকেই অগ্রসর হয়েছি, আমি আপনার কাছে ঐ ফটক দিয়ে এসেছি যার মধ্য দিয়ে আপনি আসতে বলেছেন।
আমি আপনার কাছে ঐ জিনিস নিয়ে অগ্রসর হয়েছি, যা ছাড়া কেউ আপনার দিকে অগ্রসর হতে পারে না।
উপরন্তু আমি একে প্রবল করেছি আপনার কাচে তওবা করার দ্বারা, আপনার সত্তার সামনে নিজকে হীন এবং নম্র করে, আপনার প্রতি ভাল মতামতের দ্বারা এবং আপনার কাছে যা আছে তাতে নির্ভর করে।
আমি াাপনার কাছে প্রত্যাশা নিয়ে এটা সংযোজন করেছি, যে কেউ তা করেছে সে কখনও নিরাশ হয়নি।
আমি অবজ্ঞেয় হয়ে আপনার কাছে প্রার্থনা করছি,
সদাশয়তা পূর্ণতার সাথে,
দারিদ্রে,
অভাবী অবস্থায়,
ভীত হয়ে
এবং আশ্রয় চেয়ে।
উপরন্তু, আমি দোয়া করছি ভীত হয়ে, নম্রতার সাথে, নিরাপত্তা এবং আশ্রয় প্রার্থনা করে, গর্বে স্ফীত হয়ে নয় অথবা আপনার কথার আনুগত্যের গর্বে স্ফীত হয়েও নয়, অথবা মধ্যস্থতাকারীদের সমন্বয়ের কারণে অহংকারীও হয়ে নয়। সর্বোপরি, আমি নগণ্যদের মাঝে নগণ্যতম, জঘন্যদের মধ্যেও অতুল্য এবং একটি পরমাণুর মত অথবা এমনকি এর চেয়েও নগণ্য। সেজন্য বলছি, হে প্রভু আপনি ত তিনি যিনি পাপীদেরকে শাস্তি দিতে তড়িঘড়ি করেন না, অথবা যাদেরকে অনুগ্রহের দ্বারা ভুল সংঘটনকারীদেরকে ক্ষমা করেন, দোষীদেরকে সময় দিয়ে আনুকূল্য করে থাকেন । আমি স্বীকার করছি যে, আমি ভুল করেছি। আমি দোষ করেছি। আমি ত সে যে ক্রমান্বয়ে আপনার হুকুমের বিরুদ্ধে চলতে চেষ্টা করেছিলাম। আমি সে যে মুক্তভাবে আপনার অবাধ্য হয়েছি। আমি এমন এক মানুষ যে আপনার সৃষ্টির সাথে দোষ করেছি, আপনার নজরে। আমি তসে যে আপনার সৃষ্টিকে ভয় করেছিলাম এবং আপনার ব্যাপার নিশ্চিন্ত ছিলাম। আমি ত সে যে আপনার ক্ষমতায় ভয় পাইনি এবং আপনার গোসসায় ভীত হইনি। আমি আামর নিজ আত্মার উপর অপরাধকারী। আমি আমার লক্ষ্যে নিজে জামানত আছি। আমি খুবই কম বিনয়ী দুর্দমা সহ্য করছি।
তা উছিলায় যাকে আপনি আপনার দৃষ্টি থেকে পছন্দ করেছেন, যাকে আপনার নিজের জন্য নির্বাচিত করেছেন, তার উছিলায় যাকে আপনি সৃষ্টির মধ্য হতে বাছাই করেছেন এবং আপনার উদ্দেশ্য সাধনে পছন্দ করেছেন। তার উছিলায় যার আনুগত্য আপনার সাথে সম্পৃক্ত হয়েছে, তার উছিলায় যাকে অমান্যা করা মানে আপনি আপনাকে অমান্য করা হিসেবে গণ্য করেছেন, তা উছিলায় যার ভালবাসা আপনি নিজের সাথে সম্পৃক্ত করেছেন, তার উছিলায় যার শত্রুতাকে আপনি নিজের সাথে বেঁধেছেন, আমার জীবনের এই দিনে আমাকে রক্ষা করুন। যেহেতু আপনি তাকে রক্ষা করেন যে নিজের পাপে অনুশোচনা করে আপনার কাছে কান্নাকাটি করে এবং যে অনুতপ্ত হয়ে ক্ষমার দ্বারা আপনার আশ্রয় চায়। আমার সাতে ঐ রকম মোয়ামেলা করুন যেমন মোয়ামেলা আপনি তাদের প্রতি করেন যারা আপনাকে মান্য করে, যারা আপনার নিকটবর্তী এবং যারা আপনার দৃষ্টিতে উচ্চ স্তরের। আমাকে তা দ্বারা আচ্ছাদিত করুন যা দ্বারা আপনি তাকে আচ্ছাদিত করেন যে আপনার হুকুম মান্য করে, যারা শুধু আপনার জন্য সচেষ্ট হয়, এবং ব্যক্তিগতভাবে আপনার মকবুলিয়াত অর্জন করতে চেষ্টা করে।
আপনার এবাদত করার আপনার সীমা লংঘন এবং আপনার হুকুম অমান্য করার ক্ষেত্রে আমার অপরাধকে বিবেচনা করিয়েন না। তার মত হয়ে আমার কাছ থেকে আপনার আনুকুল্য তুলে নিয়ে বন্দী করবেন না যে আমাকে ঐ নেয়ামত দিতে অস্বীকার করে যে যার অধিকারী। যখন অনুগ্রহ নিজের উপর আনয়নের জন্য সে আপনার সাতে সমন্বয় করেনি। আমাকে অমান্যতার ঘুম থেকে, অপচয়ের তন্দ্রা থেকে এবং দুঃখের মধ্যে ডুবে যাওয়া থেকে জাগিয়ে তুলুন।
আমাকে ঐ রকমভাবে রক্ষা করুন যেমন আপনি নামাজিদেরকে রক্ষা করে থাকেন, যার উছিলায় আপনি এবাদতকারীদের দ্বারা এবাদত করান, যা দ্বারা আপনি অলসদেরকে নিরাপদ করেন।
আমাকে তা হতে নিরাপদ রাখুন যা আমাকে আপনার কাছ হতে সরিয়ে নেবে। আপনি এবং আপনার কাছ তেকে প্রাপ্ত আমার অংশের মধ্যে যোগসূত্র করে দিন। আপনার কাছ থেকে আমি যা পাবার প্রত্যাশা করি তা থেকে আমাকে নিস্কৃতি দিন। আপনার দিকে নেকভাবে অগ্রসর হওয়া আমার জন্য সহজ করে দিন। অনন্যতার জন্য প্রতিযোগিতা করে। তাদের সাথে সাথে আমাকেও ধ্বংস করবেন না যারা আপনার হুমকিকে হালকাভাবে নেয় এবং যাদেরকে আপনি ধ্বংস করে দিয়েছেন। আমাকে তাদের সাথে নিশ্চিহ্ন করবেন না যারা নিজেদেরকে আপনার গোসসায় নিপতিত করেছে এবং আপনি যাদেরকে ধ্বংস করার অঙ্গীকার করেছেন। তাদের সাথে সাথে আমাকেও ফযপঠভৎ লাপযন না যারা আপনার নির্দেশিত পথ থেকে দূরে সরে যায় এবং আপনি যাদেরকে বিলোপ করার অঙ্গীকার করেছেন। আমাকে পরীক্ষা করা থেকে রক্ষা করুন। আমাকে দুর্যোগের গ্রাস থেকে স্বাধীন করুন। আনুক’ল্য উঠিয়ে নেয়ার দ্বারা আমাকে আটক করবেন না। আমার মধ্যে এবং শত্রুর মধ্যে পার্থক্য গড়ে দেন যে আমাকে বিপথগামী করতে পারে, এমন আবেগ থেকেও যা আমাকে ধ্বংস করবে এবং ঐ দোষ থেকে যা আমার ভিতর প্রাধান্য পাবে। আমার কাছ থেকে দূরে সরে যেয়েন না যেমন আপনি তার এবং তাদের কাছ তেকে সরে যান, যাদের প্রতি গোসসা প্রদর্শন করে আর মিলিত হন না। আমাকে আপনার কাছ থেকে হতাশ করবেন না যাতে আপনার দয়া অর্জনের হতাশা আমাকে অতিরিক্ত উন্মাদনা যোগাবে। আমাকে তা দিয়ে সহায়তা করবেন না যা বয়ে বেড়াবার মত শক্তি আমার নেই, যেন আমি আপনার অতিরিক্ত ভালবাসায় আমি মুচঁড়ে না যাই। আমাকে আপনার হাত ছাড়া করবেন না, তাকে পরিত্যাগ করার মত যার ভাল কিছুই নেই, আপনার কাছে যার প্রয়োজন নেই এবং যার জন্য কোনো অনুশোচনা নেই। তাকে প্রত্যাখান করার মত আমাকে প্রত্যাখান করবেন না, যে আপনার বিবেচনা থেকে পড়ে গেছে এবং যে আপনার করুনা বঞ্চিত। উরন্তু আমাকে এমনভাবে ধরুন যারা ধ্বংসে পতিত হয়েছে তা থেকে যেন রক্ষা পেতে পারি।রাক্ষা পেতে পারি যেন তাদের অবাধ্যতা থেকে যারা গোল্লায় গেছে, গর্বের ভুল থেকে এবং যারা গর্ব করে তাদের বিধি থেকে যেন রক্ষা পেতে পারি। আমাকে তা থেকে নিরাপত্তা দিন যা দ্বারা আপনি আপনার বান্দাদেরকে পরীক্ষা করেন, যুরুষ-মহিলা এবং বিভিন্ন শ্রেণীর বান্দা। আমাকে তার লক্ষ্যের াদকে পৌঁছিয়ে দিন যাকে আপনি আনুক’ল্য দিয়েছেন, যার উপর আপনি অনুগ্রহ করেছেন এবং তাকে এমনই কবুল করেছেন যে তাকে আপনি এক প্রশংসিত জীবন দান করেছেন এবং তার এক ভাগ্যবান মওত কবুল করেছেন। আমার গলে মিতাচারের বাঁধন পরিয়ে দিন যা থেকে ঐ সকল নেক আমল এবং অনুগ্রহ বেড়োবে আমার দিলে এমন শিক্ষা দিন যাতে পাপীদের খারাবী এড়িয়ে চলা যায় এবং পাপের কলঙ্ক এড়িয়ে চলা যায়।
আপনি ছাড়া আমি যা অর্জন করতে পারব না তাতে আমাকে নিয়োজিত করবেন না। আমাকে সাময়িক অবহেলা করুন যাতে কেউ আমার ব্যাপারে সন্তুষ্ট না থাকে।আমার দিল থেকে এই হীন দুনিয়ার ভালবাসা উপড়ে ফেলুন, যা আপনার কাছে যা আছে তা থেকে নিবৃত্ত রাখে, যা আপনার কাছে অগ্রসরের অর্জন থেকে আমাকে দূরে রাখে এবং আপনার দিকে অগ্রসরের কথা ভুলিয়ে দেয়।
নিভৃতে আপনার সাথে যোগাযোগ করার জন্য আমার দিলকে শোভন করুন, দিনে এবং রাতে, আমাকে সংযম দান করুন। যা আমাকে আপনার ভয়ের কাছে আনবে।
বড় পাপের মোহর থেকে আমাকে নিস্কৃতি দিন।
অবাধ্যতার তাবু হতে বাঁচিয়ে আমাকে পবিত্রতা দান করুন।
আমার কাছ থেকে পাপের ময়লা দূর করে দিন।
আপনার নিরাপত্তার কোট দ্বারা আমাকে ঢেকে দিন।
আমাকে আপনার সবচেয়ে যথোপযুক্ত আনুক’ল্যের পোষাক পরান।
আপনার মহত্ত্ব এবং সদাশয়তায় আমাকে শক্তিশালী করুন।
আপনার বদান্যতা এবং পথ নির্দেশিকার দ্বারা আমাকে সাহায্য করুন। ভাল নিয়ত করতে আমাকে সাহায্য করুন, মনোরম কথা বলতে এবং প্রশংসনীয় কাজ করতে আমাকে সাহায্য করুন। আপনার ক্ষমতা এবং শক্তির বদলে, আমাকে আমার ক্ষমতা এবং শক্তির উপর বিশ্বাস করবেন না। আমাকে ঐ দিন করুনা বঞ্চিত করবে না যেদিন জেগে আপনার সাথে সাক্ষাৎ করব। আপনার বন্ধুদের সামনে আমাকে লজ্জা দিয়েন না।
আমি যেন আপনাকে স্বরণ করতে ভুলে না যাই। কৃতজ্ঞতাবোধ থেকে আমাকে পিছলিয়ে দিয়েন না, বরং এ থেকে আমাকে বিস্মরণ করুন। যখন অজ্ঞরা আপনার সাহায্যের বিষয় ভুলে যায়।
আমার জন্য যা বরাদ্দ করেছেন তার জন্য আপনার প্রশংসা করতে আমাকে উদ্দীপনা দিন এবং আপনি যে অনুগ্রহ করেছেন তা বিবেচনা করতে।
আপনার জন্য আমার ভালবাসাকে অন্যান্যদের ভালবাসার উপরে উঠান এবং আপনার জন্য আমার প্রশংসাকে অন্যান্য প্রশংসাকারীদের উপরে স্থান দিন।
আমাকে হতাশ করবেন না যখন আপনার কাছে আমার চাহিদা আছে। আপনার কাছে আমি যা পাঠিয়েছি (অবাধ্যতা) তার জন্য আমাকে ধ্বংস করবেন না।
আমার প্রতি আপনি ভ্রু কুঁচকিয়েন না যেমন আপনি তাদের প্রতি ভ্রু কুঁচকান যারা শত্রুতা করে, যেহেতু আমি সত্যিকারভাবে আপনার প্রতি অনুগত।
আমি জানি যে যুক্তি আপনার আনুক’লে। আপনার সত্ত্বাই দয়া করার এবং সদ্যশয়তা প্রর্দশনের সবচেয়ে বেশি অধিকারী।
আপনি চান যে বান্দা আপনাকে ভয় করুক এবং আপনি ক্ষমা করার মালিক। আপনি শাস্তি দেয়ার চেয়ে বরং বেশি ক্ষমা প্রর্দশণ করেন।
আপনার সত্তা (বান্দার) দোষ প্রকাশ করার চেয়ে ঢেকে দেয়া বেশি পছন্দ করেন।
সেজন্য, আমার দ্বারা এক পবিত্র জীবন পরিচালনা করান যাতে আমি যা প্রত্যাশা করি তা অন্তর্ভূক্ত হবে এবং আমি যা ভালবাসি তা অর্জিত হবে, এরকমভাবে যে আপনি যা ঘৃণা করেন আমি যেন তা না করি এবং আপনি যা নিষেধ করেছেন তা যেন না ঘটাই।
আমার এমন মওত কবুল করেন যে আমার ডানপাশে নূর চলবে। আপনার সত্তায় আমাকে নম্র করুন। আপনার দৃষ্টিসমূহের দ্বারা আমাকে সম্মানিক করুন।আমি যখন নিভৃতে আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করি আমার অস্তিত্ব বিলীন করে দিন। আপনার বান্দাদের মাঝে আমাকে সম্মানিকত করুন।
যে আমার কাছ থেকে মুক্ত তার কাছ থেকে আমাকে মুক্ত করুন। আমার চাহিদা এবং অভাব যেন আপনার কাছে বর্ধিত হয়।
আমাকে শত্রুর মুখেমুখি হতে, দুর্যোগ, সুনামহানি এবং দুঃখ থেকে আমাকে রক্ষা করুন।আমার অঙ্গীকরের কথা বিবেচনা করে যা আপনার জ্ঞানে রয়েছে, আমাকে একটি পর্দা দ্বারা ঢেকে দিন যার (পর্দার) এমন ক্ষমতা আছে যে বন্দী করাতে পারে, যদি কারোও ক্ষমাশীলতা না থাকে এবং যে একটি অপরাধের জন্য ধৃত হতে পারে। যদিও তার ধৈর্য না থাকে।
যখন আপনি কাউকে পরীক্ষায় অথবা দুর্দশায় ফেলেন, তখন আমাকে এ থেকে রক্ষা করুনÑআমি আপনার হেফাজত কামনা করছি।
যেহেতু আপনি এই দুনিয়ায় আমাকে করুনা বঞ্চিত আবস্থায় রাখেননি, তখন এর পর আমাকে এই অবস্থায় রেখেন না। পরবর্তীতে আপনার উত্তরকালীন আনুক’ল্যকে দ্বিগুণ বর্ধিত করে দিন, আপনার উত্তরকালীন অনুগ্রহসমূহকে নির্মল করে দিন।
আমাকে এমন চিন্তায় নিয়োজিত করবেন না যা আমার দিলকে শক্ত করে দিবে। আমাকে দুর্যোগে নিপতিত করবেন না যা আমার সম্মান ছিনিয়ে নেবে। আমার সাথে করুনা বঞ্চিত আবস্থার দ্বারা মোয়ামেলা কাবেন না যা আমার মর্যাদা নস্যাৎ করে দেবে, অথচ এমন কোনো দোষের দ্বারা নয় যা দ্বারা আমার অবস্থা বিস্মৃত হবে। আমাকে আতঙ্কের দ্বারা মালামাল করবেন নাযা দ্বারা আমি আশাহীন হই, অথবা ভয় দিয়েও নয় যা আমাকে অতিরিক্ত আতঙ্কগ্রস্ত করবে।
আপনার হুমকিতে আমার ভয় পয়দা করেন, আমার ভয় পয়দা করেন আমার জন্য আপনার কোনো রাস্তা না রাখতে এবং আপনার ভয় প্রদর্শনে, আমার দুঃখ পয়দা করনে আপনার কালাম পড়ায়। আপনার এবাদতের জন্য জাগ্রত হওয়া যেন আমার রাত্রকে অধিকার বরে নেয়, আপনার প্রিয় তাহজ্জুদ নামাজ পড়া যেন আমার একাকীত্বকে অধিকার করে নেয়, আপনার সাথে শান্তিপূর্ণ যোগাযোগ যেন আমার নিঃসঙ্গতাকে অধিকার করে নেয়, আপনার কাছে আমার চাহিদা পেশ করে, আমার ওষ্ঠ হতে আপনার আগুন নিবারণ করার জন্য এবং আপনার শাস্তি হতে আমাকে রক্ষা করার জন্য কাকুতি করে, যাতে জাহান্নামের অধিবাসীরা পর্যদস্ত হবে। আমার বিপথগামীতায় আমাকে অন্ধ করবেন না অতবা আমাকে আমার বিস্বরণে লটকিয়ে রাখবেন না। আমার মওত হওয়া পর্যন্ত। যারা ভর্ৎসনা তালাশ করে তাদের মত আমাকে ভর্ৎসনা করিয়েন না, অথবা তাদের উপর বর্তানো শাস্তির এক উদাহরণও নয় যারা সতর্কতা অবলম্বন করে, অথবা তাদের প্রলূব্ধতায় যারা দালালি করে। তাদের মত আমাকে অবজ্ঞাপূর্ণ করবেন না যাদেরকে আপনি অবজ্ঞাপূর্ণ করে করে সৃষ্টি করেছেন। আমার পরিবর্তে অন্য কাউকে স্থান দিয়েন না। াামার নামকে পরিবর্তন করবে না। আমার আদল পরিবর্তন করবেন না। আমাকে আপনার সৃষ্টিসমূহের হাসির খোরাক করবে না, অথবা উপহাসের পাত্র (আপনার কাছে) বানাবেন না, অথবা আপনার এরকম ইচ্ছা রক্ষা করার কোনো কিছু আপনার আনুগত্যে নিয়োজিত না করে অন্য কোথাও নিয়োজিত করবেন না। স্বাজ্ঞাতভাবে আমাকে আপনার ক্ষমার শীতলতা অনুভব করান, অনুভব করান আপনার ক্ষমার, আপনার স্বাস্তির, আপনার সান্ত্বনায় এবং আপনার অনুগ্রহের বাগানের মিষ্টতা। আপনার সীমাহীন সম্পদের দ্বারা, আমাকে তা তেকে স্বাধীনতা আস্বাদন করান যাতে আমি নিজেকে নিয়োজিত করেছি, যাতে আপনি ভালবাসেন, ওতে সম্পৃক্ত করুন যা আমাকে আপনার কাছে এবং নিকটবর্তী কাবে।
আমাকে আপনার তরয় থেকে পুরষ্কার দিন। আমার ব্যবসায়কে লাভজনক করুন এবং আমার ফিরে আসাকে লোকসানহীন করুন।
আমাকে আপনার অবস্থানের উপর ভীত করুন এবং আপনার দিদার লাভের জন্য আগ্রহী করুন। আমার তওবাকে একাগ্র এবং গ্রহণীয় করুন, যা দ্বারা কোনো পাপকেই আপনি ক্ষমাহীন রাখবেন না, সগীরা গুনাহ্ও নয় এবং কবীরা গুনাহ্ও নয়, যা দ্বারা আপনি সকল অপরাধ অপসারিত করবেন, প্রকাশ্য অথবা গোপনীয়। ঈমানদারগণের বিপক্ষে আমার গর্ব এবং অহংকারকে দূর করে দিন।
আমার দিলকে নম্র করে দিন।
আপনি নেককারের সাথে যেমন মোয়ামেলা করেন আমার সাথেও তেমন করুন।
আমাকে ধার্মিকদের ভ’ষণে আচ্ছাদিত করুন।
বিগত প্রজন্ম এবং অনাগত ভ্িষ্যতে তাদের শেষ পর্যায় পর্যন্ত আমার জবানকে সত্যবাদিতায় আবদ্ধ করুন।
আমাকে মনোমুগ্ধকর সমবয়সীদের মাঠে নিয়ে যান। আমার উপর আপনার অনুগ্রহের যথোপযুক্ততা নির্ধারণ করুন। আমাকে বার বার এর ফল ভোগ করার তৌফিক দিন।
আমার উভয় হাতকে আপনার নেয়ামত দ্বারা ভরে দিন।
আপনার চমৎকার পুরস্কারগুলোকে আমার দিকে ধাবিত করুন।
বেহেশত আপনার সবচেয়ে পবিত্র বন্ধুর প্রতিবেশি করুন, যা আপনার পছন্দনীয় বান্দাদের জন্য নির্ধারণ করেছেন।
আপনার বন্ধুদের জন্য যোগান দেয়া আবাসস্থলে আমাকে আপনার চমৎকার পুরষ্কার দ্বারা মূল্যায়ন করুন।
আমাকে আপনার নিকটবর্তী একটি বিশ্রামের স্থান দিন যাতে আমি সন্তুষ্ট হতে পারি এবং একটি অবসর যাপনের স্থান দিন যাতে আমি নিশ্বাস নিতে পারি এবং আমার চোখগুলোকে শীতল করতে পারি।
আমার বড় বড় গুণাহসমূহের দ্বারা আমাকে মূল্যায়ন করবেন না।
আমাকে ঐ দিন ধ্বংস করবেন না যেদিন বিচারের জন্য গোপন কর্ম সমূহ প্রদর্শন করা হবে।
আমার কাছ থেকে আমার জন্য একটি সত্যের পথ নির্ধারণ করুন। আপনার দয়া হতে আমার জন্য পুরষ্কারের অংশ বৃদ্ধি করে দিন। আপনার বদান্যতা হতে আমার জন্য কল্যাণকর অংশ সু-সজ্জিত করুন।
আপনার কাছে যা আছে তাতে আমার দিলকে নির্ভর করে দিন। আপনাকে যা সন্তুষ্ট করবে তা করতে আমার দিলকে মুক্ত করে দিন। আমাকে আপনি তাতে নিয়োজিত করুন, আপনার পছন্দনীয় বান্দাদের যাতে নিয়োজিত করেছেন। আমার দিলকে আনুগত্যের দ্বারা বঞ্চিত করুন, যখন মনগুলো কলুষিত। আমাকে সম্পদ, সংযম, আরাম, নিরাপদ, স্বাস্থ্য, সমৃদ্ধি, শান্তি এবং নিরাপত্তা দান করুন।
আমার সৎকর্মগুলোকে ক্রুটিপূর্ণতা এবং আপনার অবাধ্যতার মধ্যে গণ্য করিয়েন না।
আপনার কাছ থেকে পরীক্ষা হিসেবে আমার একাকিত্বকে মন্দ চিন্তার দ্বারা নস্যাৎ করবেন না।
দুনিয়ার কারো কাছে ভিক্ষা করা হতে নিবৃত্ত করে আমার সামনে সম্মান বজায় রাখুন।
পাপীদের অধিকারে যা আছে তা পাবার জন্য অনুরোধ করা থেকে আমাকে নিবৃত্ত রাখুন।
আমাকে শত্রুদের সমর্থনকারী করবে না, অথবা তাদের সাহায্যকারী করবেন না এবং আপনার কিতাবকে বাতিল করতে সহযোগীও করবেন না।
আমি যা জানিনা আমাকে এমনভাবে চালনা করুন, একটি পরিবেষ্টনের সাথে যা দ্বারা আমাকে হেফাজত করবেন।
আমার জন্য আপনার প্রতি তওবার, আপনার ক্ষমা, সদাশয়তা এবং আপনার সম্পদের দ্বারসমূহ খুলে দিন। বিশেষত আমি তাদের মধ্য হতে একজন যে আপনার কাছে ভিক্ষা চায়।
আমার জন্য প্রতিদান নির্ধারণ করুন, বিশেষত, আপনার সত্তাই শ্রেষ্ঠ প্রতিদান দাতা।
আপনার কবুলিয়ত অর্জনে আমার বাকী জীবনপুকু হজ্জ্ব এবং উমরাহ্ পালনে ব্যয় করার তৌফিক দিন, হে সারা দুনিয়ার মালিক।
আল্লাহ যেন খাঁটি এবং পবিত্র নবী হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের অনুগ্রহ করেন। তাঁর উপর এবং তাঁদের উপর চিরকাল এবং সর্বদা শান্তি বর্ষিত হোক।
Ref: হযরত ইমাম জয়নাল আবেদীন আল ছহীফাহ্ আল সাজ্জাদীয়াহ্
অনুবাদ মুহাম্মদ মাঈনউদ্দিন
অন্যধারা, ৩৮/২-ক বাংলাবাজার (৫ম তলা) ঢাকা-১১০০
প্রকাশকাল : সেপ্টেম্বর ২০০৮
বাংলা অনুবাদ: প্রকাশক ২০০৮