دُعَاؤُهُ فِي عِيدِ الْفِطْرِ وَ الْجُمُعَةِ
On
the Day of Fast-Breaking and on Friday
1
O He who has mercy upon him toward whom the servants
show no mercy!
يَا مَنْ يَرْحَمُ مَنْ لا يَرْحَمُهُ الْعِبَادُ.
1
2
O He who accepts him whom the cities will not
accept!
وَيَا مَنْ يَقْبَلُ مَنْ لا تَقْبَلُهُ الْبِلاَدُ.
2
3
O He who looks not down upon those who have need of
Him!
وَيَا مَن لاَ يَحْتَقِرُ أَهْلَ الْحَاجَةِ إلَيْهِ.
3
4
O He who disappoints not those who implore Him!
وَيَا مَنْ لا يُخَيِّبُ المَلِحِّيْنَ عَلَيْـهِ،
4
5
O He who slaps not the brow of the people of
boldness toward Him with rejection!
وَيَا مَنْ لاَ يَجْبَهُ بِالرَّدِّ أَهْلَ
الدَّالَّةِ عَليهِ،
5
6
O He who collects the little that is given to Him
وَيَا مَنْ يَجْتَبِي صَغِيرَ مَايُتْحَفُ بِهِ،
6
7
and shows gratitude for the paltry that is done for
Him!
وَيَشْكُرُ يَسِيرَ مَا يُعْمَلُ لَهُ.
7
8
O He who shows gratitude for the small and rewards
with the great!
وَيَامَنْ يَشْكُرُ عَلَى الْقَلِيْلِ، وَيُجَازيْ
بِالْجَلِيلِ،
8
9
O He who comes close to him who comes close to Him!
وَيَا مَنْ يَدْنُو إلَى مَنْ دَنا مِنْهُ
9
10
O He who invites to Himself him who turns his back
on Him!
وَيَا مَنْ يَدعُو إلَى نَفْسِهِ مَنْ أَدْبَرَ
عَنْهُ،
10
11
O He who changes not favour and rushes not to
vengeance!
وَيَا مَنْ لا يُغَيِّرُ النِّعْمَةَ، وَلا يُبَادِرُ
بِالنَّقِمَةِ،
11
12
O He who causes the good deed to bear fruit so that
He may make it grow,
وَيَا مَنْ يُثْمِرُ الْحَسَنَةَ حَتَّى يُنْمِيَهَا،
12
13
and overlooks the evil deed so that He may efface
it!
وَيَتَجَاوَزُ عَنِ السَّيِّئَةِ حَتَّى يُعَفِّيَهَا.
13
14
Hopes turn back with needs fulfilled short of the
extent of Thy generosity,
انْصَرَفَتِ الآمَالُ دُونَ مَدى كَرَمِكَ
بِالحَاجَاتِ
14
15
the cups of requests fill up with the overflow of
Thy munificence,
وَامْتَلاَتْ بِفَيْضِ جُودِكَ أَوْعِيَةُ الطَّلِبات،
15
16
and attributes fall apart without reaching Thy
description.
وَتَفَسَّخَتْ دُونَ بُلُوغِ نَعْتِـكَ الصِّفَاتُ،
16
17
For to Thee belongs the highest highness above
everything high,
فَلَكَ الْعُلُوُّ الأعْلَى فَوْقَ كُلِّ عَال،
17
18
and the most glorious majesty beyond every majesty!
وَالْجَلاَلُ الأمْجَدُ فَوْقَ كُلِّ جَلاَل،
18
19
Everything majestic before Thee is small,
كُلُّ جَلِيْل عِنْدَكَ صَغِيرٌ،
19
20
everything eminent beside Thy eminence vile!
وَكُلُّ شَرِيف فِي جَنْبِ شَرَفِكَ حَقِيرٌ،
20
21
Those who reach other than Thee are disappointed,
خَابَ الْوَافِدُونَ عَلَى غَيْرِكَ،
21
22
those who present themselves to other than Thee have
lost, those who stay with other than Thee have
perished,
وَخَسِرَ الْمُتَعَرِّضُونَ إلاَّ لَكَ، وَضَاعَ
الْمُلِمُّونَ إلاّ بِكَ،
22
23
and those who retreat – except those who retreat to
Thy bounty – are desolate!
وَأَجْدَبَ الْمُنْتَجِعُـونَ إلاَّ مَنِ انْتَجَعَ
فَضْلَكَ،
23
24
Thy door is open to the beseechers, Thy munificence
free to the askers,
بَابُكَ مَفْتُوحٌ لِلرَّاغِبِينَ، وَجُودُكَ مُبَاحٌ
لِلسَّائِلِينَ،
24
25
Thy help near to the help-seekers!
وَإغاثَتُكَ قَرِيبَةٌ مِنَ الْمُسْتَغِيْثِينَ،
25
26
The expectant are not disappointed by Thee, those
who present themselves despair not of Thy bestowal,
لاَ يَخِيبُ مِنْـكَ الآمِلُونَ، وَلاَ يَيْأَسُ مِنْ
عَطَائِكَ الْمُتَعَرِّضُونَ،
26
27
the forgiveness-seekers become not wretched through
Thy vengeance!
وَلا يَشْقَى بِنَقْمَتِكَ الْمُسْتَغْفِرُونَ.
27
28
Thy provision is spread among those who disobey
Thee,
رِزْقُكَ مَبْسُوطٌ لِمَنْ عَصَاكَ،
28
29
Thy clemency presents itself to those hostile toward
Thee,
وَحِلْمُكَ مُعْتَـرِضٌ لِمَنْ نَاوَاكَ،
29
30
Thy habit is beneficence toward the evildoers,
عَادَتُكَ الإحْسَـانُ إلَى الْمُسِيئينَ،
30
31
and Thy wont is to spare the transgressors,
وَسُنَّتُـكَ الإبْقَاءُ عَلَى الْمُعْتَدِينَ
31
32
so much so that Thy lack of haste deludes them from
returning,
حَتَّى لَقَدْ غَرَّتْهُمْ أَنَاتُكَ عَنِ الرُّجُوعِ،
32
33
and Thy disregard bars them from desisting!
وَصَدَّهُمْ إمْهَالُكَ عَن النُّزُوعِ.
33
34
Thou actest without haste toward them so that they
will come back to Thy command
وَإنَّمَا تَأَنَّيْتَ بهمْ لِيَفِيئُوا إلَى
أَمْرِكَ،
34
35
and Thou disregardest them confident in the
permanence of Thy kingdom,
وَأَمْهَلْتَهُمْ ثِقَةً بِدَوَامِ مُلْكِكَ،
35
36
so Thou sealest him who is worthy of it with
felicity,
فَمَنْ كَانَ مِنْ أَهْلِ السَّعَادَةِ خَتَمْتَ لَهُ
بِهَا،
36
37
and Thou abandonest him who is worthy of it to
wretchedness!
وَمَنْ كَانَ مِنْ أَهْلِ الشَّقَاوَةِ خَذَلْتَهُ
لَهَا،
37
38
All of them come home to Thy decree, their affairs
revert to Thy command;
كُلُّهُمْ صَائِرُونَ إلَى حُكْمِكَ وَأُمُورُهُمْ
آئِلَةٌ إلَى أَمْـرِكَ،
38
39
Thy authority grows not feeble through their drawn
out term,
لَمْ يَهِنْ عَلَى طُـولِ مُـدَّتِهِمْ سُلْطَانُـكَ
39
40
Thy proof is not refuted by the failure to hurry
after them.
وَلَمْ يَـدْحَضْ لِتَـرْكِ مُعَاجَلَتِهِمْ
بُرْهَانُكَ.
40
41
Thy argument is established, never refuted,
حُجَّتُكَ قَائِمَةٌ لاَ تُدْحَضُ،
41
42
Thy authority fixed, never removed.
وَسُلْطَانُكَ ثَابِتٌ لا يَزُولُ،
42
43
Permanent woe belongs to him who inclines away from
Thee,
فَالْوَيْلُ الدَّائِمُ لِمَنْ جَنَحَ عَنْكَ،
43
44
forsaking disappointment to him who is disappointed
by Thee,
وَالْخَيْبَةُ الْخَاذِلَةُ لِمَنْ خَابَ مِنْكَ،
44
45
and the most wretched wretchedness to him who is
deluded about Thee!
وَالشَّقاءُ الاشْقَى لِمَنِ اغْتَرَّ بِكَ.
45
46
How much he will move about in Thy chastisement!
مَا أكْثَرَ تَصَرُّفَهُ فِي عَذَابِكَ،
46
47
How long he will frequent Thy punishment!
وَمَا أَطْوَلَ تَرَدُّدَهُ فِيْ عِقَابِكَ،
47
48
How far his utmost end from relief!
وَمَا أَبْعَدَ غَايَتَهُ مِنَ الْفَرَجِ،
48
49
How he will despair of an easy exit!
وَمَا أَقْنَطَهُ مِنْ سُهُولَةِ الْمَخْرَجِ
49
50
[All of this] as justice from Thy decree (Thou art
not unjust in it!),
عَدْلاً مِنْ قَضَائِكَ لاَ تَجُورُ فِيهِ،
50
51
and equity from Thy judgement (Thou dost not act
wrongfully against him!).
وَإنْصَافاً مِنْ حُكْمِكَ لاَ تَحِيفُ عَلَيْهِ،
51
52
Thou supported the arguments, tested the excuses,
فَقَدْ ظَاهَرْتَ الْحُجَجَ، وَأَبْلَيْتَ الاعْذَارَ،
52
53
began with threats, showed gentleness with
encouragement,
وَقَـدْ تَقَدَّمْتَ بِـالْوَعِيْـدِ وَتَلَطَّفْتَ
فِي التَّرْغِيْبِ،
53
54
struck similitudes, made long the respite,
وَضَرَبْتَ الامْثَالَ، وَأَطَلْتَ الاِمْهَالَ،
54
55
delayed, while Thou art able to hurry,
وَأَخَّرْتَ وَأَنْتَ مُسْتَطِيعٌ لِلْمُعَاجَلَةِ،
55
56
and acted without haste, while Thou art full of
quick accomplishment!
وَتَأَنَّيْتَ وَأَنْتَ مَليءٌ بِالْمُبَادَرَةِ،
56
57
Not because of incapacity is Thy slowness,
feebleness Thy giving respite,
لَمْ تَكُنْ أَنَاتُكَ عَجْزاً، وَلا إمْهَالُكَ
وَهْناً،
57
58
heedlessness Thy showing restraint, dissemblance Thy
waiting!
وَلاَ إمْسَاكُكَ غَفْلَةً، وَلاَ انْتِظَارُكَ
مُدَارَاةً،
58
59
But that Thy argument be more conclusive, Thy
generosity more perfect,
بَلْ لِتَكُونَ حُجَّتُكَ أَبْلَغَ، وَكَرَمُكَ أكمَلَ،
59
60
Thy beneficence more exhaustive, Thy favour more
complete!
وَإحْسَانُكَ أَوْفَى وَنِعْمَتُكَ أَتَمَّ،
60
61
All of this has been and always was, is and ever
will be.
كُلُّ ذلِكَ كَانَ وَلَمْ تَزَلْ، وَهُوَ كائِنٌ وَلاَ
تَزَالُ ،
61
62
Thy argument is greater than that its totality be
described,
حُجَّتُكَ أَجَلُّ مِنْ أَنْ توصَفَ بِكُلِّهَا،
62
63
Thy glory more elevated than that it be limited in
its core,
وَمَجْدُكَ أَرْفَـعُ مِنْ أَنْ يُحَدَّ بِكُنْهِهِ،
63
64
Thy favour more abundant than that its entirety be
counted,
وَنِعْمَتُكَ أكْثَرُ مِنْ أَنْ تُحْصَى بِأَسْرِهَا،
64
65
Thy beneficence more abundant than that thanks be
given for its least amount!
وَإحْسَانُكَ أكْثَرُ مِنْ أَنْ تُشْكَرَ عَلَى
أَقَلِّهِ،
65
66
Speechlessness has made me fall short of praising
Thee,
وَقَدْ قَصَّرَ بِيَ السُّكُوتُ عَنْ تَحْمِيدِكَ،
66
67
restraint has made me powerless to glorify Thee,
وَفَهَّهَنِي الإمْسَاكُ عَنْ تَمْجيدِكَ،
67
68
and the most I can do is admit to inability,
وَقُصَارَايَ الإقْرَارُ بِالْحُسُورِ
68
69
not out of desire, my God, but out of incapacity.
لاَ رَغْبَةً ـ يا إلهِي ـ بَلْ عَجْزاً،
69
70
So here I am: I repair to Thee by coming forward,
and I ask from Thee good support
فَهَا أَنَا ذَا أَؤُمُّكَ بِالْوِفَادَةِ،
وَأَسأَلُكَ حُسْنَ الرِّفَادَةِ،
70
71
So bless Muhammad and his Household, hear my
whispered words,
فَصلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِـهِ وَاسْمَعْ نَجْوَايَ،
71
72
grant my supplication, seal not my day with
disappointment,
وَاسْتَجِبْ دُعَائِي وَلاَ تَخْتِمْ يَوْمِيَ
بِخَيْبَتِي،
72
73
slap not my brow by rejecting my request,
وَلاَ تَجْبَهْنِي بِالرَّدِّ فِي مَسْأَلَتِي،
73
74
and make noble my coming from Thee and my going back
to Thee!
وَأكْرِمْ مِنْ عِنْدِكَ مُنْصَرَفِي وَإلَيْكَ
مُنْقَلَبِي،
74
75
Surely Thou art not constrained by what Thou
desirest, nor incapable of what Thou art asked!
إنَّكَ غَيْرُ ضَائِق بِمَا تُرِيْدُ وَلاَ عَاجِزٍ
عَمَّا تُسْأَلُ،
75
76
Thou art powerful over everything,
وَأَنْتَ عَلَى كُلِّ شَيْء قَدِيْرٌ،
76
77
and there is no force and no strength save in God,
the All-high, the All-mighty!
وَلا حَوْلَ وَلا قُوَّةَ إلاَّ بِاللهِ الْعَلِيِّ
الْعَظِيمِ.
77

পরম করুণাময় এবং অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি

ঈদুল ফিতরের দিন জুমা এবং ওয়াক্ত নামাজ শেষ করে দাঁড়িয়ে ক্বিবলামুখি হয়ে তাঁর একটি মুনাজাত।
হে প্রভু, আপনি তার প্রতি করুণা করেন, যার প্রতি সৃষ্টিগণ করুণা করে না। হে প্রভু আপনি তাকে গ্রহণ করেন, যাকে শহরের লোকেরা গ্রহণ করে না। আপনার কাছে মুখাপেক্ষীদেরকে আপনি প্রত্যাখ্যান করেন না। হে প্রভু, আপনি তাদেরকে পরিত্যাগ করেন না যারা আপনার উপর নির্ভর করে।
হে প্রভু, আপনি এমনকি ছোট এবাদতও কবুল করেন, আপনার জন্য সম্পাদন করা সবচেয়ে ছোট কাজেও আপনি প্রতিদান দিয়ে থাকেন।
হে প্রভু, আপনিত তিনি যার সত্তা নিম্নতম অনুগতশীলের প্রতিও কৃতজ্ঞ এবং প্রতিদানে বিরাট পুরুস্কার দিয়ে দেন।
হে প্রভু, আপনি তাকে নিকটবর্তী করেন যে আপনার দিকে অগ্রসর হয়।
হে প্রভু, আপনি নিজেই ঐ ব্যক্তিকে পিছন দিকে ডাকেন যে আপনার কাছ থেকে দূরে সরে যায়।
হে প্রভু, আপনি আপনার অনুগ্রহ পরিবর্তন করেন না এবং শাস্তি দিতে তড়িৎ করেন না। হে প্রভু আপনি নেকের তৌফিক দিয়ে থাকেন, ফল লাভ করার জন্য যেমন আপনি তা জন্মিয়ে থাকেন এবং গুণাহ্তে নজর রাখেন যাতে ক্ষমা করতে পারেন।
আপনার দয়ার ভান্ডার থেকে আশা পরিপূর্ণ হয়ে ফিরে আসে।
আপনার মুক্ত হস্তে অনুরোধের পাত্র পূর্ণ হয়ে যায়।
আর দয়াপ্রার্থী আপনার প্রশংসা ব্যক্ত করায় অপারগ।
সেজন্য, আপনার অধিকারে রয়েছে সর্বোচ্চ মর্যাদা, যা অন্যান্যের চূড়া হতে অনেক উপরে। আপনার মহান গৌরব অন্যান্য গৌরব থেকে অনেক উপরে। প্রতিটি বড়ই আপনার পাশে ক্ষুদ্র। আপনার মর্যাদার পাশে অন্যান্য মর্যাদার অধিকারীগণ অতুল্য। তারা ছিল নিরাশ যারা আপনি ব্যতীত অন্যের জন্য অপেক্ষা করেছিল। যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয় তারা নিজেদেরকে কারো না কারো কাছে হাজির করে, যারা নিজেদেরকে আপনার সামনে হাজির করে তাদেরকে রক্ষা করুন। সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, শুধু আপনি ব্যতীত। অর্জন করার পর তারা ব্যতীত অন্যান্যরা মহামারীতে আক্রান্ত হয় যারা আপনার বদান্যতা হতে লাভ গ্রহণ করেছে। প্রত্যাশাকারীদের জন্য আপনার দ্বার সব সময় খোলা। আপনার দয়া তাদের কাছ থেকে উঠে যায় না যারা আপনার কাছে চায়। আপনি তাদের প্রতিনিধির করেন যারা আপনার কাছে প্রতিনিধান চায়। প্রত্যাশাকারীগণ আপনার দ্বারা নিরাশ হয় না। যারা নিজেদেরকে আপনার কাছে হাজির করে আপনার দয়া তাদেরকে অতিক্রম করে না। যারা ক্ষমা চায় তারা আপনার প্রতিশোধ গ্রহণ দ্বারা দুর্ভাগ্যশীল হয় না। এমনকি আপনার পুরস্কার তার জন্যও বর্ধিত হয় যে আপনাকে অমান্য করে। তার জন্য আপনার ক্ষমা প্রস্তুত থাকে যে আপনার শত্রুভাবাপন্ন ছিল। আপনার কাজ হল অনিষ্টকারীদের ভালাই সাধন করা।
আপনি পাপীদেরকে ঐ পর্যন্ত সহ্য করেন যতক্ষণ না আপনার ক্ষমায় তারা তওবা থেকে দূরে থাকে এবং আপনার ধৈর্য্য তাদেরকে পাপ পরিত্যাগ করা থেকে ফিরায়। বিশেষত, আপনি তাদের সাথে এরকম করেন যাতে তারা আপনার এবাদতে ফিরে আসে এবং আপনার চিরঞ্জীব আনুগত্য নির্ভর করতে তাদেরকে সময় দিয়ে থাকেন।
সেজন্য যারা ভাগ্যশীল ছিল তারা আপনার দ্বারা এর উপর মজবুত ছিল। যারা দুর্ভাগ্যশীল তারা আপনার অনুগ্রহ বঞ্চিত হওয়ার কারণে হয়েছিল। সবাই আপনার বিচারের দিকেই চলেছে। তাদের কাজ হল আপনার অঙ্গীকার রক্ষা করা। তাদের সময়ের আপনার কর্তৃত্ব অপারগ নয়। তাদের শাস্তি দিতে বিলম্ব করার জন্য আপনার যুক্তি ভেস্তে যায় নি। আপনার সাক্ষ্য এমনই মজবুত যে তা বাদ দেয়া যাবে না। আপনার কর্তৃত্ব এমনই দৃঢ় যে ধ্বংস হবার নয়। সেজন্য, তার জন্যই চিরস্থায়ী দু:খ যে আপনার হতে দূরে সরে যায়। সে অনুগ্রহ বঞ্চিত যাকে আপনি প্রত্যাখ্যান করেছেন। তার জন্য মন্দ ভাগ্য যে আপনার সামনে গর্বভরে আচরণ করে।
আপনার শাস্তির মোকাবেলায় তার ভোগান্তি কিভাবে বাধাপ্রাপ্ত হতে পারে আপনার প্রতিশোধের বিপরীতে সে কতক্ষণ টিকবে।
তার সাজা থেকে মুক্তি পাওয়া কতই না দুরুহ।
পালানোর সুযোগ আশা কিভাবে করা যায়।
এর সবকিছুই আপনার কথার প্রতিফলন যাতে আপনি অবিচার করেন না। আপনি আপনার যুক্তিকে স্বচ্ছ রেখেছেন এবং তাতে অন্য কোনো সুযোগ নেই। বিশেষত, আপনি পূর্বেই সতর্ক করেছেন, (নেক কাজে) উৎসাহ দিতে সদাশয় হয়েছেন এবং এর বর্ণনা ব্যাখ্যা করেছেন ও সামায়িক বিরতি দিয়েছেন। আপনি শাস্তি দিতে বিলম্ব করেছেন, যখন আপনার ঝটপট শাস্তি দেবার ক্ষমতা ছিল। দ্রুত শাস্তি দেয়ার ক্ষমতা থাকার পরও আপনি দ্রুত শাস্তি কার্যকর করেন না। অক্ষমতার জন্য আপনি শাস্তি দিতে বিলম্ব করেন না অথবা দূর্বলতার জন্য আপনি ধৈর্য্য ধারণ করেন না, অজ্ঞতার দরুন আপনি কউকে ক্ষমা করেন না, অথবা জটিলতার কারণে আপনি ধৈর্য্য ধারণ করেন না।
উপযুক্ত এক দৃষ্টে বলা যায় যে আপনার যুক্তি সন্দেহমুক্ত, আপনার সদাশয়তা অধিক যথোপযুক্ত, আপনার মহত্ত্ব অধিক যথোপযুক্ত, আপনার মহত্ত্ব অধিক বেমি এবং আপনার সাহায্য পুরোপুরি পূর্ণ। এই সমস্ত কোনো কিছুতেই সমকক্ষতা নেই। এটা কখনও যত্রতত্র থাকবে না এবং কখনও সমকক্ষ হবে না।
আপনার যুক্তি এতই গোরবজনক যে বর্ণনা করে শেষ করা যায় না। আপনার মহত্ত্ব এতই উচ্চ যে পুরোপুরিভাবে সংজ্ঞায়িত করা যায় না। আপনার অনুগ্রহ এত অধিক যে যথাযথভাবে মনে রাখা যায় না। আপনার দয়া এতই যে এর সামান্যতম অংশেরও কৃতজ্ঞতা প্রকাম করা যায় না।
বিশেষত নিরবতা আমাকে আপনার প্রশংসা করায় অক্ষম করে ফেলেছে। প্রচেষ্টাহীনতা আমাকে আপনার গৌরব করায় অক্ষম করেছে। যা আমি করতে পারি তা হল আমি আমার অসহায়ত্ব এবং হীনমন্যতার কথা বিবেচনা করতে পারি- ইচ্ছাকৃতভাবে নয়, হে প্রভু, কিন্তু অক্ষমতার দরুণ। সেজন্য দেখুন, এখন আমি আপনার দিকে এগিয়েছি এবং আপনার কাছ পর্যন্ত সহায়তা কামনা করচি।
অতপর, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আমার গোপন অনুরোধ শ্রবণ করুন এবং আমার মিনতি কবুল করুন।
নৈরাশ্যতায় আমার দিনকে শেষ করবেন না। আমাকে প্রত্যাখ্যান করে আমাকে ভাগ্যের দ্বারা আঘাত করবেন না।
আপনার কাছ থেকে ফিরে আসা (মুনাজাত হতে) যেন আমার জন্য সম্মানজনক হয়।
বিশেষত, আপনি যা চান তা করা আপনার জন্য সমস্যা নয়, অথবা আপনার কাছে যা চাই তা দেয়াতেও আপনি অক্ষম নন। আর সকল কিছুর উপর আপনার ক্ষমতা বিদ্যমান।
উচ্চ এবং মহান আল্লাহ্ হতে প্রাপ্ত ক্ষমতা ও শক্তি ব্যতীত আর কোনো ক্ষমতা ও শক্তি নেই।
Ref: হযরত ইমাম জয়নাল আবেদীন আল ছহীফাহ্ আল সাজ্জাদীয়াহ্
অনুবাদ মুহাম্মদ মাঈনউদ্দিন
অন্যধারা, ৩৮/২-ক বাংলাবাজার (৫ম তলা) ঢাকা-১১০০
প্রকাশকাল : সেপ্টেম্বর ২০০৮
বাংলা অনুবাদ: প্রকাশক ২০০৮