‘দোয়া-এ-মারিফাতে ইমাম’ - হযরত ইমাম মাহদী (আঃ) এর পরিচিতি অর্জনের জন্য এই দোয়াটি পাঠ করা উচিত। ইমাম জাফর সাদিক (আঃ)-এর একজন সাথী জিজ্ঞেস করলেন, “ইমাম মাহদী (আঃ) এর অদৃশ্যকালীন (আ. ফা) সময়ে কোন্ কাজটি সর্বোত্তম?” তিনি বললেন, “নীচের দোয়াটি সবসময় পাঠ করবে। (সূত্রঃ উসুলে কাফি, কিতাবুল হুজ্জাত)

بِسْمِ اللهِ الرَّحْمٰنِ الرَّحِیْمِ

اَللّٰهُمَّ عَرِّفْنِىْ نَفْسَك َ - فَاِنَّكَ اِنْ لَّمْ تُعَرِّ فْنِىْ نَفْسَكَ لَمْ اَعْرِفْ رَسُوْلَكَ اَللّٰهُمَّ عَرِّفْنِىْ رَسُوْلَكَ - فَاِنَّكَ اِنْ لَمْ تُعَرِّ فْنِىْ رَسُوْلَكَ لَمْ اَعْرِفْ حُجَّتَكَ اَللّٰهُمَّ عَرِّفْنِىْ حُجَّتَكَ - فَاِنَّكَ اِنْ لَّمْ تُعَرِّ فْنِىْ حُجَّتَكَ ضَلَلْتُ عَنْ دِيْنِىْ

‘দোয়া-এ-মারিফাতে ইমাম’ - হযরত ইমাম মাহদী (আঃ) এর পরিচিতি অর্জনের জন্য এই দোয়াটি পাঠ করা উচিত। ইমাম জাফর সাদিক (আঃ)-এর একজন সাথী জিজ্ঞেস করলেন, “ইমাম মাহদী (আঃ) এর অদৃশ্যকালীন (আ. ফা) সময়ে কোন্ কাজটি সর্বোত্তম?” তিনি বললেন, “নীচের দোয়াটি সবসময় পাঠ করবে। (সূত্রঃ উসুলে কাফি, কিতাবুল হুজ্জাত)

বিসমিল্লাহির রাহমানীর রাহিম

আল্লাহুম্মা আর-রেফনি নাফসাকা ফাইন্নাকা ইল্লাম তু-আর-রেফনি নাফসাকা লাম আর-রেফ রাসুলাকা আল্লাহুম্মা আর-রেফনি রাসুলাকা ফাইন্নাকা ইন লাম তু আর-রেফনি রাসুলাকা লাম আর-রেফ হুজ্জাতাকা আল্লাহুম্মা আর-রেফনি হুজ্জাতাকা ফাইন্নাকা ইন লাম তু আর-রেফনি হুজ্জাতাকা দালালতু আন-দীনি।

‘দোয়া-এ-মারিফাতে ইমাম’ - হযরত ইমাম মাহদী (আঃ) এর পরিচিতি অর্জনের জন্য এই দোয়াটি পাঠ করা উচিত। ইমাম জাফর সাদিক (আঃ)-এর একজন সাথী জিজ্ঞেস করলেন, “ইমাম মাহদী (আঃ) এর অদৃশ্যকালীন (আ. ফা) সময়ে কোন্ কাজটি সর্বোত্তম?” তিনি বললেন, “নীচের দোয়াটি সবসময় পাঠ করবে। (সূত্রঃ উসুলে কাফি, কিতাবুল হুজ্জাত)

পরম করুনাময় অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে

হে আল্লাহ, আপনি আপনার নিজেকে আমার কাছে পরিচয় করান, যদি আপনার নিজেকে আমার কাছে পরিচয় না করান, তাহলে আমি আপনার নবীকে চিনবো না; হে আল্লাহ, আপনার রাসূলকে আমার কাছে পরিচয় করান, যদি আপনি আপনার রাসূলকে আমার কাছে পরিচয় না করান, তাহলে আমি আপনার হুজ্জাত (বা প্রমাণ) কে চিনবো না; হে আল্লাহ, আপনার হুজ্জাতকে আমার কাছে পরিচয় করান, যদি আপনার হুজ্জাতকে আমার কাছে পরিচয় না করান তাহলে আমি দীন থেকে পথভ্রষ্ট হয়ে যাবো।