بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ

اللَّهُمَّ هَذَا يَوْمٌ مُبَارَكٌ مَيْمُونٌ وَ الْمُسْلِمُونَ فِيهِ مُجْتَمِعُونَ فِي أَقْطَارِ أَرْضِكَ، يَشْهَدُ السَّائِلُ مِنْهُمْ وَ الطَّالِبُ وَ الرَّاغِبُ وَ الرَّاهِبُ وَ أَنْتَ النَّاظِرُ فِي حَوَائِجِهِمْ فَأَسْأَلُكَ بِجُودِكَ وَ كَرَمِكَ وَ هَوَانِ مَا سَأَلْتُكَ عَلَيْكَ أَنْ تُصَلِّيَ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ وَ أَسْأَلُكَ اللَّهُمَّ رَبَّنَا بِأَنَّ لَكَ الْمُلْكَ وَ لَكَ الْحَمْدَ، لَا إِلَهَ إِلَّا أَنْتَ، الْحَلِيمُ الْكَرِيمُ الْحَنَّانُ الْمَنَّانُ ذُو الْجَلَالِ وَ الْإِكْرَامِ، بَدِيعُ السَّمَاوَاتِ وَ الْأَرْضِ، ، مَهْمَا قَسَمْتَ بَيْنَ عِبَادِكَ الْمُؤْمِنِينَ مِنْ خَيْرٍ أَوْ عَافِيَةٍ أَوْ بَرَكَةٍ أَوْ هُدًى أَوْ عَمَلٍ بِطَاعَتِكَ ،أَوْ خَيْرٍ تَمُنُّ بِهِ عَلَيْهِمْ تَهْدِيهِمْ بِهِ إِلَيْكَ أَوْ تَرْفَعُ لَهُمْ عِنْدَكَ دَرَجَةً ، أَوْ تُعْطِيهِمْ بِهِ خَيْراً مِنْ خَيْرِ الدُّنْيَا وَ الْآخِرَةِ .أَنْ تُوَفِّرَ حَظِّي وَ نَصِيبِي مِنْهُ وَ أَسْأَلُكَ اللَّهُمَّ بِأَنَّ ,لَكَ الْمُلْكَ وَ الْحَمْدَ لَا إِلَهَ إِلَّا أَنْتَ أَنْ تُصَلِّيَ عَلَى مُحَمَّدٍ عَبْدِكَ وَ رَسُولِكَ وَ حَبِيبِكَ وَ صِفْوَتِكَ ,وَ خِيَرَتِكَ مِنْ خَلْقِكَ وَ عَلَى آلِ مُحَمَّدٍ الْأَبْرَارِ الطَّاهِرِينَ الْأَخْيَارِ ,صَلَاةً لَا يَقْوَى عَلَى إِحْصَائِهَا إِلَّا أَنْتَ وَ أَنْ تُشْرِكَنَا فِي صَالِحِ مَنْ دَعَاكَ فِي هَذَا الْيَوْمِ مِنْ عِبَادِكَ الْمُؤْمِنِينَ ،يَا رَبَّ الْعَالَمِينَ ,وَ أَنْ تَغْفِرَ لَنَا وَ لَهُمْ .إِنَّكَ عَلَى كُلِّ شَيْ‏ءٍ قَدِيرٌ اللَّهُمَّ إِلَيْكَ تَعَمَّدْتُ بِحَاجَتِي وَ بِكَ أَنْزَلْتُ الْيَوْمَ فَقْرِي ،وَ فَاقَتِي وَ مَسْكَنَتِي وَ إِنِّي بِمَغْفِرَتِكَ وَ رَحْمَتِكَ أَوْثَقُ مِنِّي بِعَمَلِي وَ لَمَغْفِرَتُكَ وَ رَحْمَتُكَ أَوْسَعُ مِنْ ذُنُوبِي فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِ مُحَمَّدٍ ، وَ تَوَلَّ قَضَاءَ كُلِّ حَاجَةٍ هِيَ لِي بِقُدْرَتِكَ عَلَيْهَا ، وَ تَيْسِيرِ ذَلِكَ عَلَيْكَ وَ بِفَقْرِي إِلَيْكَ وَ غِنَاكَ عَنِّي ، فَإِنِّي لَمْ أُصِبْ خَيْراً قَطُّ إِلَّا مِنْكَ ، وَ لَمْ يَصْرِفْ عَنِّي سُوءاً قَطُّ أَحَدٌ غَيْرُكَ وَ لَا أَرْجُو لِأَمْرِ آخِرَتِي وَ دُنْيَايَ سِوَاكَ اللَّهُمَّ مَنْ تَهَيَّأَ وَ تَعَبَّأَ وَ أَعَدَّ وَ اسْتَعَدَّ لِوِفَادَةٍ إِلَى مَخْلُوقٍ رَجَاءَ رِفْدِهِ وَ نَوَافِلِهِ وَ طَلَبَ نَيْلِهِ وَ جَائِزَتِهِ فَإِلَيْكَ يَا مَوْلَايَ كَانَتِ الْيَوْمَ تَهْيِئَتِي وَ تَعْبِئَتِي وَ إِعْدَادِي وَ اسْتِعْدَادِي رَجَاءَ عَفْوِكَ وَ رِفْدِكَ وَ طَلَبَ نَيْلِكَ وَ جَائِزَتِكَ اللَّهُمَّ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِ مُحَمَّدٍ وَ لَا تُخَيِّبِ الْيَوْمَ ذَلِكَ مِنْ رَجَائِي، يَا مَنْ لَا يُحْفِيهِ سَائِلٌ وَ لَا يَنْقُصُهُ نَائِلٌ فَإِنِّي لَمْ آتِكَ ثِقَةً مِنِّي بِعَمَلٍ صَالِحٍ قَدَّمْتُهُ وَ لَا شَفَاعَةِ مَخْلُوقٍ رَجَوْتُهُ إِلَّا شَفَاعَةَ مُحَمَّدٍ وَ أَهْلِ بَيْتِهِ عَلَيْهِ وَ عَلَيْهِمْ سَلَامُكَ أَتَيْتُكَ مُقِرّاً بِالْجُرْمِ وَ الْإِسَاءَةِ إِلَى نَفْسِي أَتَيْتُكَ أَرْجُو عَظِيمَ عَفْوِكَ الَّذِي عَفَوْتَ بِهِ عَنِ الْخَاطِئِينَ ثُمَّ لَمْ يَمْنَعْكَ طُولُ عُكُوفِهِمْ عَلَى عَظِيمِ الْجُرْمِ أَنْ عُدْتَ عَلَيْهِمْ بِالرَّحْمَةِ وَ الْمَغْفِرَةِ فَيَا مَنْ رَحْمَتُهُ وَاسِعَةٌ وَ عَفْوُهُ عَظِيمٌ ، يَا عَظِيمُ يَا عَظِيمُ يَا كَرِيمُ يَا كَرِيمُ صَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِ مُحَمَّدٍ وَ عُدْ عَلَيَّ بِرَحْمَتِكَ وَ تَعَطَّفْ عَلَيَّ بِفَضْلِكَ وَ تَوَسَّعْ عَلَيَّ بِمَغْفِرَتِكَ . اللَّهُمَّ إِنَّ هَذَا الْمَقَامَ لِخُلَفَائِكَ وَ أَصْفِيَائِكَ وَ مَوَاضِعَ أُمَنَائِكَ فِي الدَّرَجَةِ الرَّفِيعَةِ الَّتِي اخْتَصَصْتَهُمْ بِهَا قَدِ ابْتَزُّوهَا وَ أَنْتَ الْمُقَدِّرُ لِذَلِكَ لَا يُغَالَبُ أَمْرُكَ وَ لَا يُجَاوَزُ الْمَحْتُومُ مِنْ تَدْبِيرِكَ كَيْفَ شِئْتَ وَ أَنَّى شِئْتَ وَ لِمَا أَنْتَ أَعْلَمُ بِهِ غَيْرُ مُتَّهَمٍ عَلَى خَلْقِكَ وَ لَا لِإِرَادَتِكَ حَتَّى عَادَ صِفْوَتُكَ وَ خُلَفَاؤُكَ مَغْلُوبِينَ مَقْهُورِينَ مُبْتَزِّينَ يَرَوْنَ حُكْمَكَ مُبَدَّلًا وَ كِتَابَكَ مَنْبُوذاً ، وَ فَرَائِضَكَ مُحَرَّفَةً عَنْ جِهَاتِ أَشْرَاعِكَ وَ سُنَنَ نَبِيِّكَ مَتْرُوكَةً اللَّهُمَّ الْعَنْ أَعْدَاءَهُمْ مِنَ الْأَوَّلِينَ وَ الْآخِرِينَ وَ مَنْ رَضِيَ بِفِعَالِهِمْ وَ أَشْيَاعَهُمْ وَ أَتْبَاعَهُمْ اللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِ مُحَمَّدٍ إِنَّكَ حَمِيدٌ مَجِيدٌ كَصَلَوَاتِكَ وَ بَرَكَاتِكَ وَ تَحِيَّاتِكَ عَلَى أَصْفِيَائِكَ إِبْرَاهِيمَ وَ آلِ إِبْرَاهِيمَ وَ عَجِّلِ الْفَرَجَ وَ الرَّوْحَ وَ النُّصْرَةَ وَ التَّمْكِينَ وَ التَّأْيِيدَ لَهُمْ اللَّهُمَّ وَ اجْعَلْنِي مِنْ أَهْلِ التَّوْحِيدِ وَ الْإِيمَانِ بِكَ وَ التَّصْدِيقِ بِرَسُولِكَ وَ الْأَئِمَّةِ الَّذِينَ حَتَمْتَ طَاعَتَهُمْ مِمَّنْ يَجْرِي ذَلِكَ بِهِ وَ عَلَى يَدَيْهِ آمِينَ رَبَّ الْعَالَمِينَ اللَّهُمَّ لَيْسَ يَرُدُّ غَضَبَكَ إِلَّا حِلْمُكَ ، وَ لَا يَرُدُّ سَخَطَكَ إِلَّا عَفْوُكَ وَ لا يُجِيرُ مِنْ عِقَابِكَ إِلَّا رَحْمَتُكَ وَ لَا يُنْجِينِي مِنْكَ إِلَّا التَّضَرُّعُ إِلَيْكَ وَ بَيْنَ يَدَيْكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِ مُحَمَّدٍ وَ هَبْ لَنَا يَا إِلَهِي مِنْ لَدُنْكَ فَرَجاً بِالْقُدْرَةِالَّتِي بِهَا تُحْيِي أَمْوَاتَ الْعِبَادِ وَ بِهَا تَنْشُرُ مَيْتَ الْبِلَادِ . وَ لَا تُهْلِكْنِي يَا إِلَهِي غَمّاً حَتَّى تَسْتَجِيبَ لِي وَ تُعَرِّفَنِي الْإِجَابَةَ فِي دُعَائِي وَ أَذِقْنِي طَعْمَ الْعَافِيَةِ إِلَى مُنْتَهَى أَجَلِي وَ لَا تُشْمِتْ بِي عَدُوِّي وَ لَا تُمَكِّنْهُ مِنْ عُنُقِي وَ لَا تُسَلِّطْهُ عَلَيَّ إِلَهِي إِنْ رَفَعْتَنِي فَمَنْ ذَا الَّذِي يَضَعُنِي وَ إِنْ وَضَعْتَنِي فَمَنْ ذَا الَّذِي يَرْفَعُنِي وَ إِنْ أَكْرَمْتَنِي فَمَنْ ذَا الَّذِي يُهِينُنِي وَ إِنْ أَهَنْتَنِي فَمَنْ ذَا الَّذِي يُكْرِمُنِي وَ إِنْ عَذَّبْتَنِي فَمَنْ ذَا الَّذِي يَرْحَمُنِي وَ إِنْ أَهْلَكْتَنِي فَمَنْ ذَا الَّذِي يَعْرِضُ لَكَ فِي عَبْدِكَ أَوْ يَسْأَلُكَ عَنْ أَمْرِهِ وَ قَدْ عَلِمْتُ أَنَّهُ لَيْسَ فِي حُكْمِكَ ظُلْمٌ وَ لَا فِي نَقِمَتِكَ عَجَلَةٌ وَ إِنَّمَا يَعْجَلُ مَنْ يَخَافُ الْفَوْتَ وَ إِنَّمَا يَحْتَاجُ إِلَى الظُّلْمِ الضَّعِيفُ وَ قَدْ تَعَالَيْتَ يَا إِلَهِي عَنْ ذَلِكَ عُلُوّاً كَبِيراً اللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِ مُحَمَّدٍ وَ لَا تَجْعَلْنِي لِلْبَلَاءِ غَرَضاً ، وَ لَا لِنَقِمَتِكَ نَصَباً وَ مَهِّلْنِي، وَ نَفِّسْنِي وَ أَقِلْنِي عَثْرَتِي وَ لَا تَبْتَلِيَنِّي بِبَلَاءٍ عَلَى أَثَرِ بَلَاءٍ فَقَدْ تَرَى ضَعْفِي وَ قِلَّةَ حِيلَتِي وَ تَضَرُّعِي إِلَيْكَ أَعُوذُ بِكَ اللَّهُمَّ الْيَوْمَ مِنْ غَضَبِكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ وَ أَعِذْنِي. ، وَ أَسْتَجِيرُ بِكَ الْيَوْمَ مِنْ سَخَطِكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ وَ أَجِرْنِي وَ أَسْأَلُكَ أَمْناً مِنْ عَذَابِكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ، وَ آمِنِّي وَ أَسْتَهْدِيكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ وَ اهْدِنِي وَ أَسْتَنْصِرُكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ، وَ انْصُرْنِي وَ أَسْتَرْحِمُكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ، وَ ارْحَمْنِي وَ أَسْتَكْفِيكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ، وَ اكْفِنِي وَ أَسْتَرْزِقُكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ، وَ ارْزُقْنِي وَ أَسْتَعِينُكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ وَ أَعِنِّي وَ أَسْتَغْفِرُكَ لِمَا سَلَفَ مِنْ ذُنُوبِي فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ، وَ اغْفِرْ لِي وَ أَسْتَعْصِمُكَ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ، وَ اعْصِمْنِي فَإِنِّي لَنْ أَعُودَ لِشَيْ‏ءٍ كَرِهْتَهُ مِنِّي إِنْ شِئْتَ ذَلِكَ يَا رَبِّ يَا رَبِّ، يَا حَنَّانُ يَا مَنَّانُ يَا ذَا الْجَلَالِ وَ الْإِكْرَامِ صَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ وَ اسْتَجِبْ لِي جَمِيعَ مَا سَأَلْتُكَ وَ طَلَبْتُ إِلَيْكَ وَ رَغِبْتُ فِيهِ إِلَيْكَ وَ أَرِدْهُ وَ قَدِّرْهُ وَ اقْضِهِ وَ أَمْضِهِ وَ خِرْ لِي فِيمَا تَقْضِي مِنْه وَ بَارِكْ لِي فِي ذَلِكَ وَ تَفَضَّلْ عَلَيَّ بِهِ وَ أَسْعِدْنِي بِمَا تُعْطِينِي مِنْهُ وَ زِدْنِي مِنْ فَضْلِكَ وَ سَعَةِ مَا عِنْدَكَ فَإِنَّكَ وَاسِعٌ كَرِيمٌ وَ صِلْ ذَلِكَ بِخَيْرِ الْآخِرَةِ وَ نَعِيمِهَا يَا أَرْحَمَ الرَّاحِمِينَ تَدْعُو بِمَا بَدَا لَكَ، وَ تُصَلِّي عَلَى مُحَمَّدٍ وَ آلِهِ أَلْفَ مَرَّةٍ هَكَذَا كَانَ يَفْعَلُ عَلَيْهِ السَّلَامُ

Sample Descri

ption

পরম করুনাময় অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি

হে প্রভু, আজ একটি অনুগ্রহপূর্ণ দিন এবং আপনার জমিনে মুসলমানরা একত্রিত হয়েছে, তাদের মত যারা ভিক্ষা চায়, তাদের মত যারা কোনো কিছু চাচ্ছে, তাদের মত যারা কোনো ভালবাসে এবং তাদের মত যাদের সব ভীতি আভির্ভূত । আর তাদের চাহিদার সম্মুখে আপনার সত্তা দাঁড়িয়ে রয়েছে। সেজন্য আপনার দয়াশীলতা এবং সদাশয়তার কারণে আমি আপনার কাছে ভিক্ষা চাচ্ছি আর আপনার জন্য এটা সহজ যে আমার অনুরোধ কবুল করবেন। আপনি হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের অনুগ্রহ করুন। আমি আপনার কাছে প্রার্থনা করছি, হে প্রভু, আমাদের রিজিকদাতা। কারণ সকল সার্বভৌমত্বের এবং প্রশংসার আপনিই অধিকারীÑআপনি ছাড়া আর কেনো মা’বুদ নেই, ক্ষমাশীল, বদান্যশীল, করুণাশীল, মহত্ত্ব ও গৌরবের মালিক, আকাশসমূহ এবং জমিনে স্রষ্টা। আমি প্রার্থনা করছি আমার অংশ দেয়ার জন্য, ভালাই অথবা নিরাপত্তার অথবা অনুগ্রহের অসৎ পথ নির্দেশের অথবা সদ্যশয়তার যা কিছু আপনি ঈমানদারগণের জন্য বন্টন করেছেন, আপনার এবাদত করতে। অথবা অন্য যে কোনো নেয়ামত যা আপনি নিজের কাছ থেকে তাদের উপর বরাদ্দ করেছেন। অথবা যা দ্বারা এ দুনিয়া এবং পরের দুনিয়ার যে কোনো অনুগ্রহ করেছেন। আর আমি আপনার কাছে প্রার্থনা করছি, হে প্রভু, আপনিই সকল সার্বভৌমত্ব এবং প্রশংসাকারীÑআপনি ছাড়া কোনো মা’বুদ নেই। হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। যে আপনার বান্দা, আপনার নাসূল, আপনার বন্ধু, এবং আপনার সৃষ্টির মধ্য হতে পছন্দনীয় ব্যক্তি। এবং হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন, যারা নেককার, পবিত্র, গুণী। এমন এক অনুগ্রহের দ্বারা তাঁদের অনুগ্রহ করুন যা আপনি ব্যতীত আর কেউ তার হিসাব রাখতে পারবে না, এমনকি আমাদের মধ্যে আপনার নেককার বান্দাগণও নয় যারা আপনার কাছে প্রার্থনা করে। আজ এই দিনে, হে বিশ্বের মালিক আমাদেরকে এবং তাদেরকে ক্ষমা করুন। বিশেষত সব কিছুর উপর আপনার ক্ষমতা বিদ্যমান। হে প্রভু, আজকের এই দিনে আমি আমার অনুরোধ আপনার কাছে করার পছন্দ করেছি এবং আপনার সামনে আমার প্রয়োজন, আমার চাহিদা এবং আমার অভাব তুলে ধরেছি। বিশেষত, আমার নিজ কর্মের চেয়ে আপনার ক্ষমা এবং দয়ার প্রতি আমার অধিক আত্মবিশ্বাস রয়েছে। বিশেষত আমার পাপের চেয়ে আপনার ক্ষমা এবং দয়ার পরিমাণ অনেক বেশি। সেজন্য মিনতি করছি যে, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আমার ট্রতিটি চাহিদা পূরণ করার ভার গ্রহণ করুন, কারণ এর উপন আপনার ক্ষমতা বিদ্যমান। এটা পুরা করা আপনার জন্য সহজ কারণ আপনার কাছে আমার চাহিদা আছে, আর আমার কাছে আপনার চাহিদা নেই। মূলত আমি কখনোই আপনাকে ছাড়া কোনো ভাল জিনিস গ্রহণ করতে পারিনি। এই দুনিয়া এবং পরবর্তী দুনিয়ার জন্য আমার জন্য ভালো এমন কোনো কিছুই আপনি ছাড়া আর কারো কাছেই প্রত্যাশা করিনি। হে প্রভু, কেউ হয়ত তার পুরষ্কার, দয়া এবং তার সাহায্য তালাশের আশায় কোনো সৃষ্টির কাছে যাওয়ার ইচ্ছা, পরিকল্পনা, প্রস্তুতি নিয়েছেÑকিন্তু হে আমার প্রভু, আপনার ক্ষমা, সাহায্য, আপনার দয়া এবং প্রতিদানের কল্যাণে আমি আপনার দিকে যাবার উচ্ছা এবং প্রস্তুতি নিয়েছি। হে প্রভু, অতপা, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। এই দিনে, আমার প্রত্যাশাকে নিরাশ করবেন না। হে প্রভু, আপনি ত তিনি যার কাছ হতে কোনো অনুরোধেই ফিরে আসে না এবং যার কাছে কোনো উদারতাই বিফল মনোরথ হয় নি। বিশেষত আমি অতীতে করা কোনো ভাল আমল নিয়ে আপনার সামনে আসিনি অথবা মধ্যস্থতার জন্য কোনো সৃষ্টির প্রতিও প্রত্যাশা করিনি। হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর আহ্লে বাইয়্যিত-এর শাফায়াত রক্ষা করুনÑতাঁদের উপর শান্তি বর্ষণ করুন। আমি এসেছি আমার কৃত পাপ এবং আমার আত্মার প্রতি কৃত অবিচারের কথা স্বীকার করতে। আমি আপনার কাছে এসেছি আপনার কাছে মহা ক্ষমার প্রত্যাশা নিয়ে। যা দ্বারা আপনি অপরাধ মার্জনা করবেন। উপরন্তু, দীর্ঘ সময় পর্যন্ত মহাপাপও আপনার দয়া ও ক্ষমতার জন্য অশোভন নয়। সেজন্য হে প্রভ, আপনার দয়া অবাধ এবং আপনার ক্ষমা খুব মহান। হে মহান। হে মহান। হে বদান্যশীল। হে বদান্যশীল। হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আমাকে আবার ক্ষমা দ্বারা সাহায্য করুন। আমার প্রতি ফপানার ক্ষমাকে অবাধ করে দিন। হে প্রভু, এই অবস্থাটির অদিকারী হলা আপনার প্রতিনিধি এবং আপনার পছন্দনীয় ব্যক্তির। আর এই স্থানটি উচ্চ স্তরের ঈমানদার ব্যক্তির, যার দ্বারা আপনি তাদেরকে স্বতন্ত্র করেছেন। লোকেরা তাকে এর মধ্যে ছিনিয়ে নিয়েছে এবং আপনি এই লিখে রেখেছেন। আপনার বিধান বদলাতে পারে না এবং আপনার নির্দিষ্ট বাসস্থান পরিবর্তন হতে পারে না, আপরি যে রীতিতে এবং যেখানে তা করেছেন। আপনার সৃষ্টিদেরকে ছাড়াই আপনি এটা ভালো করেই জানেন এবং যা আপনার ইচ্ছার জন্যই সম্ভব, আপনার পছন্দনীয় ব্যক্তিগণ এবং প্রতিনিধগণ পরাভূত, পরাজিত এবং তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত। তারা দেখে যে আপনার হুকুম পরিবর্তনীয়, আপনার কিতাব এবং আপনার দ্বারা দেয়া দায়িত্ব পরিত্যাজ্য, আপনার এবং আপনার নবীদের খাঁটি ব্যবস্থাদি হতে পিছলিয়ে যেয়ে। হে প্রভ, আহ্লে বাইয়্যিতের শত্রুদের থেকে ক্ষমা সরিয়ে নিন। এবং তাদের (শত্রুদের) অনগামী এবং অনুসরণকারীদের থেকে। হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ বরাদ্দ করুন। বিশেষত আপনিই প্রশংসা এবং গৌরবের মালিকÑহযরত ইব্রাহীম আঃ এবং তার বংশধরদের মত আপনার পছন্দনীয় ব্যক্তিদের প্রতি আপনার অনুগ্রহ, অনুক’ল্য, এবং নেয়ামতের মত। তাদেরকে স্বস্তি, আরাম, সহায়তা ক্ষমতা এবং সমর্থন দিয়েছেন। হে প্রভু, আমাকে একত্ববাদে বিশ্বাসীদের, আপনার প্রতি এবং যারা আপনার নবী ও ইমাম তাদের প্রতি বিশ্বাসীদের অন্তর্ভূক্ত করুন। আপনার নবী ও ইমামদের আনুগত্য করা আপনি উপভোগ করেন। তাদের অন্তর্ভূক্ত করুন যাদের দ্বারা ঈমান অব্যাহত থকে। আপনি এই মুনাজাতকে কবুল করুন, হে দুনিয়ার মালিক। হে প্রভু, শুধু আপনার ক্ষমা ব্যতীত আর কিছুই আপনার গোসসাকে দূর করতে পারে না। আপনার ক্ষমা ব্যতীত আর কিছুই আপনার অসন্তুষ্টিকে দূর করতে পারে না। আপনার দয়া ব্যতীত আর কিছুই আমাকে আপনার শাস্তি হতে রক্ষা করতে পারবে না। কোনো কিছুই আমাকে আপনার সামনে কাকুতি-মিনতি করা থেকে ফিরাতে পারবে না। হে প্রভু, সেজন্য অনুরোধ করছি, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আপনি আপনার ক্ষমতার দ্বারা আমাদেরকে স্বাস্তি দিন, হে প্রভু, যার দ্বারা আপনি মৃতে প্রাণ সঞ্জার করেন এবং যার দ্বারা আপনি মৃত শহরগুলোকে জাগিয়ে দেন। হে প্রভু, দুঃখ দিয়ে আমাকে বধ করবেন না। যে পর্যন্ত না আপনি আমার অনুরোধ অনুমোদন করেন এবং আমি জানতে পাারব যে আপনি আমার মুনাজাত কবুল করেছেন। আমার জীবনের সায়হ্নে আমাকে নিরাপদের স্বাদ আস্বাদন করান। আমার সামনে আমার শত্রুকে হাসতে দিয়েন না। আমার ওষ্ঠের উপর তাকে ক্ষমতা দিয়েন না। আমার উপর তার প্রাধান্য দিয়েন না। আমার প্রভু, যদি আপনি আমাকে সম্মানিত করেন, তবে কে আমাকে অপদস্ত করতে পারে? যদি আপনি আমাকে অপদস্ত করেন, তরেব কে আমাকে সম্মানিত করতে পারে? যদি আপনি আমাকে মর্যাদা দেন, তবে কে আমাকে করুনা বঞ্চিত করতে পারে? যদি আপনি আমাকে করুনা বঞ্চিত করেন, তবে কে আমাকে মর্যাদা দিতে পারে? যদি আপনি আমাকে শাস্তি দেন, তবে কে আমাকে করুণা দেখাতে পারে? যদি আপনি আমাকে ধ্বংস করেন, তবে কে আপনার বন্দার ব্যাপারে যুক্তি দেখাতে পারে, অথবা তার ব্যাপারে প্রশ্ন উথ্থাপন করতে পারে। আমি নিশ্চিত করেই জানি যে আপনার কথার কোনো হেরফের হয় না এবং আপনার শাস্তি যে ব্যর্থতার ভয় করে। মূলত, অবিচারের াাশ্রয় নেয়া দ্র্লূতার পরিচালক, যখন এ থেকে আপনি অনেক উর্ধ্বে। হে প্রভু, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আমাকে দুর্যোগের একটি চিহ্ন অথবা প্রতিশোধের (আপনার পক্ষ হতে) লক্ষ্যবস্তু করবেন না। আমাকে বিরাম দিন। আমার দুঃখ দূর করুন। পূর্ববর্তী দুর্যোগ আমার উপর দিয়ে আমাকে প্রভাবাম্বিত করবেন না। আপনি আমার দূর্বলতা দেখেছেন। আমার চাহিদার উৎস এবং অপদস্ততা আপনার সম্মুখেই রয়েছে। হে প্রভু, আপনার গোসসা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আজ আমি আপনার শরণাপন্ন হয়েছি। সেজন্য দোয়া করছি যে, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আজ আমি আপনার অসন্তুষ্টি থেকে আপনার কাছে আশ্রয় চাচ্ছি। সেজন্য বলছি, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন এবং আমাকে আশ্রয় দিন। আমি আপনার শাস্তি হতে আপনার কাছে নিরাপত্তা চাচ্ছি। সেজন্য প্রার্থনা করছি, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন এবং আমাকে নিরাপত্তা দিন। সেজন্য আমি আপনার পথ-নির্দেশ কামনা করছি, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আমি আপনার সাহায্য চাচ্ছি. হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন এবং আমাকে সাহায্য করুন। আমি আপনার ক্ষমা কামনা করছি হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন এবং আমার উপর করুণা করুন। আমি আপনার কাছে জীবিকা চাচ্ছি, সেজন্য, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন এবং আমাকে জীবিকা দিন।আমি সাহায্যের জন্য আপনার কাছে প্রার্থনা করছি, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন এবং আমাকে সহায়তা করুন। আমি আমার অতীতে গুণাহ্রে জন্য আপনার কাছে ক্ষমা চাচিাছ, সেজন্য হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন এবং আমাকে ক্ষমা করুন। আমি আপনার কাছে সংযম টাচ্ছি। হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন এবং আমাকে নক্ষা করুন। র্মলত যদি আপনি চান তাহলে আমি আর কখনোও ওতে ফিরে যাব না, যা আপনি অপছন্দ করেন। হে আমার প্রভু, হে আমার প্রভু, হে বদান্যশীল, হে বদান্যশীল, হে মহত্ত্ব এবং গৌরবের অধিকারী, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আমি যা চেয়েছি আমার জন্য সব অনুমোদন করুন, যার জন্য আমি আপনার কাছে প্রার্থনা করেছি এবং যা প্রত্যাশা করেছি। এটা কবুল করতে এরাদা করুন। এটা বরাদ্দ করুন। এটার ব্যবস্থার জন্য আদেশ করুন। এটা অনুমোদন করুন। আমাকে সাহায্য করতে যা আপনি নির্ধরণ করেছেন তা দিন যা দ্বারা আমি ভগ্যবান হতে পারি, আপনি কর্তৃক আমাকে তা দেয়ার দ্বারা। আপনার করুনা এবং বদান্যতায় আমাকে আর বেশি দিন, আপনি যার অধিকারী। মূলত আপনি প্রাচুর্য এবং বদান্যতায় অধিকারী। তাকে এবং তার অনুগ্রহকে পরবর্তী দুনিয়ার ভালাই-এর জন্য নিয়োজিত করুন, হে পরম দয়াময়।