জামালের যুদ্ধের পর যখন আমিরুল মোমেনিন। তালহা ইবনে ওবায়দুল্লাহ ও আবদার রহমান ইবনে আত্তাব ইবনে আসিদের লাশের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন তখন তিনি বললেনঃ আবু মুহাম্মদ (তালহা) তার নিজের দেশ থেকে অনেক দূরে এখানে শুয়ে আছে। আল্লাহর কসম, আমি কখনো চাই নি যে, কুরাইশগণ এভাবে আকাশের নিচে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকুক। আবদ মনাফের বংশধরগণের কাছ থেকে আমি নিজেই প্রতিশোধ গ্রহণ করেছি, কিন্তু বনি জুমাহর-১ প্রধানগণ আমার হাত থেকে ফসকে গেল। যে বিষয়ে তারা উপযুক্ত নয়। সে বিষয়ে তারা নাক গলাতে গিয়েছিল। সুতরাং লক্ষ্যে পৌছার আগেই তাদের ঘাড় মটুকে গেল।
১। বনি জুমাহর প্রধানগণের কজন হলো— আবদুল্লাহ। আত-তাওয়াইল ইবনে সাফওয়ান, ইয়াহিয়া ইবনে হাকিম, আমির ইবনে মাসুদ ও আইউব ইবনে হাবিব। এরা পালিয়ে জীবন রক্ষা করেছিল। জামালের যুদ্ধে বনি জুমাহর মাত্র দুজন নিহত হয়েছিল।