খোৎবা- ৫

আবু বকর কর্তৃক খেলাফত দখলের পর আব্বাস ও আবু সুফিয়ান খেলাফতের জন্য আমিরুল মোমেনিনকে সাহায্য করার প্রস্তাব করায় এ খোৎবা প্রদান করেন। হে জনমন্ডলী*! ফেতনার তরঙ্গ মাঝে শক্ত হাতে হাল […]

খোৎবা- ৬

তালহা ইবনে উবায়দুল্লাহ ও জুবায়র ইবনে আওয়ামের পশ্চাদ্ধাবন না। করার জন্য কেউ কেউ উপদেশ দিলে আমিরুল মোমেনিন এ খোৎবা প্রদান করেন। আল্লাহর কসম, আমি “দাবু’র (ভোঁদড় জাতীয় নিশাচর প্রাণী) মতো […]

খোৎবা- ৭

মোনাফেক সম্পর্কে তারা শয়তানকে তাদের কর্মকান্ডের বিধায়ক হিসেবে গ্রহণ করেছে এবং শয়তানও তাদেরকে তার অঅংশীদার হিসেবে গ্রহণ করেছে। তাদের বক্ষেই শয়তান ডিম পাড়ে ও বাচ্চা ফুটায়। তাদের কোলেই শয়তান হামাগুড়ি […]

খোৎবা- ৮

জুবায়র সম্পর্কে সে বলে বেড়ায় যে, সে আমার হাতে হাত রেখেই বায়াত গ্রহণ করেছে কিন্তু অন্তর” দিয়ে তা করে নি। সুতরাং সে এমন বায়াত স্বীকার করে না। সে বায়াত গ্রহণ […]

খোৎবা- ৯

জামাল-যুদ্ধে শত্রুদের কাপুরুষতা সম্পর্কে তারা” মেঘের মতো গর্জন করেছিল; বিজলীর মতো চমক দিয়েছিল। লম্বফ-ঝম্বফ ছাড়া তাদের সবটুকুই কাপুরুষতা। তীব্রবেগে শত্রুকে আক্রমণ না করা পর্যন্ত আমরা গর্জন করি না এবং কথার […]

খোৎবা- ১০

তালহা ও জুবায়র সম্পর্কে সাবধান! শয়তান” তার দল জড়ো করেছে এবং তার অশ্বারোহী ও পদাতিক সৈন্যদল সমবেত করেছে। নিশ্চয়ই, আমার সূক্ষ্ম দৃষ্টি সম্পন্ন জ্ঞান আছে। আমি কখনো নিজের সাথে প্রতারণা […]

খোৎবা- ১১

জামালের যুদ্ধে আমিরুল মোমেনিন তার পুত্র মুহাম্মাদ ইবনে হানাফিয়ার হাতে পতাকা অর্পণকালে এ খোৎবা প্রদান করেন। পর্বতমালা তার স্থান থেকে সরে পড়তে পারে। কিন্তু তুমি তোমার অবস্থান থেকে নড়তে পারবে […]

খোৎবা- ১২

জামালের যুদ্ধে যখন আল্লাহ আমিরুল মোমেনিনকে শত্রুপক্ষের ওপর বিজয়ী করলেন তখন তার একজন অনুচর বললেন, “হায়! আমার ভাই অমুক যদি যুদ্ধে উপস্থিত থাকতো তাহলে সেও দেখতে পেতো আল্লাহ। আপনাকে কেমন […]