“—- তাই যখন তুমি ( কাজ ) শেষ করেছ , নিয়োগ দাও — “

নিয়োগ দিন —

“—- তাই যখন তুমি ( কাজ ) শেষ করেছ , নিয়োগ দাও — ” ।
সুরা – ইনশিরাহ , আয়াত – ৭ ।

” — So when you are done , appoint —” .
Surat No – 94 – Al – Sharh / 7 .

এই আয়াতের প্রসংগে ষষ্ঠ ইমাম হযরত ইমাম জাফর সাদিক (আঃ) বলেন যে ,

এই আয়াতের ব্যাখ্যা হইল যে , মহান আল্লাহ তাঁর রাসুল ( সাঃ) কে উদ্দেশ্য বলছেন যে , হে আমার রাসুল , যখন তুমি হজ্বের যাবতীয় কার্যাদি পালন করিয়া অবসর হইবে তখন আলীকে তোমার পরবর্তী স্থলাভিষিক্ত খলীফা ও ইমামের জন্য মনোনীত করিবে ।
সূত্র – শাওয়াহেদুত তানযিল , ২য় খন্ড , পৃ – ৩৪৯ ।

সম্মাানীয় পাঠক ,
রাসুল (সাঃ) ওনার জীবনের প্রথম ও শেষ বিদায় হজ্ব থেকে ফেরার পথে গাদীর এ খুম নামক স্থানে মহান আল্লাহর সরাসরি কড়া নির্দেশের পরিপ্রক্ষিতে হযরত আলী (আঃ) কে ওনার ইন্তেকাল পরবর্তী খলীফা বা ইমাম হিসেবে প্রায় সোয়ালক্ষ্য হজ্ব ফেরৎ হাজী সাহাবাগনের সম্মুখে ঘোষনা দেন ।

এই ঘোষনাকেই গাদীর ঘোষনা বলা হয় ।
এ প্রসংগে পবিত্র কোরআনের এই আয়তটির শানে নুযুল পড়ুন —
“ – হে রাসুল , পৌঁছে দাও যা তোমার কাছে অবতীর্ন হয়েছে তোমার প্রভুর কাছ থেকে এবং যদি তুমি তা না কর , তুমি তাঁর রেসালতই পৌঁছে দাও নি এবং আল্লাহ তোমাকে জনতার হাত থেকে রক্ষা করবেন । নিশ্চয়ই আল্লাহ কাফের দলকে পথ দেখান না —- “ ।
সুরা – মাইদা / ৬৭ ।

সোয়া লক্ষাধিক হজ্ব ফেরৎ হাজী সাহাবাগনের সম্মু খে রাসুল (সাঃ) এর গাদীর এ খুম ঘোষনা বিষয় বিস্তারিত জানতে হলে নিম্নলিখিত তথ্য সমূহ দেখুন —
তথ্যসূত্র – তাবাকাতুল কুবরা ইবনে সাদ , খন্ড – ২ , পৃ- ৩৩৬ / কিতাবুল সাকাত , খন্ড – ২ , পৃ- ১২৪ / তাযকিরাতুল খাওয়াস , পৃ- ৩০ / তারিখুল খামিস , খন্ড – ২ , পৃ- ১৪৯ / সিরাহ হালবিয়াহ , খন্ড – ৩ , পৃ- ২৫৭/ তাফসীরে দুররে মানসুর , খন্ড – ৩, পৃ- ১১৭/ তাফসীরে কাবীর , খন্ড – ১২ , পৃ- ৫০ / তাফসীরে মানারিজ, খন্ড – ২ , পৃ- ৮৬ / তাফসীরে আলুসি , খন্ড – ২, পৃ- ৩৮৪ / আসবাবুন নুযুল , পৃ- ১৩৫ / শাওয়াহেদুত তানযিল , খন্ড – ১ , পৃ- ১৯২ / তারিখে দামেস্ক , খন্ড – ২ , পৃ- ৮৬ / ফাতহুল কাদির , খন্ড – ২, পৃ- ৬০ / মাতালেবাস সাউল, খন্ড – ১, পৃ- ৪৪ / ফুসুলুল মোহিম্মাা, পৃ- ৫৫ / ইয়ানাবিউল মুয়াদ্দাত, পৃ- ১২০ / আল মেনাল ওয়াল নেহাল, খন্ড – ১ , পৃ- ১৬৩ / উমদাতুল কারী ফি শারহে বুখারী, খন্ড – ৮, পৃ- ৫৮৪ / ফারায়েদুস সামতিনে, খন্ড – ১ , পৃ- ১৮৫ / ফাতহুল বায়ান ফি মাক্বাসিদুল কোরআন , খন্ড – ৩ , পৃ- ৬৩ / আরজাহুল মাতালেব, পৃ- ১১৯ (উর্দ্দু) / আল বিদায়া ওয়ান নিয়াহা , খন্ড – ৭, পৃ- ৬১২ – ৬১৬ / ইসলামী বিশ্বকোষ, খন্ড – ১০, পৃ- ৩০৭ (ইসলামিক ফাউন্ডেশন) / সহীস বুখারী, খন্ড – ৫, পৃ- ২৮০ (হামিদীয়া লাইব্রেরী) / সীরাতুন নবী, খন্ড – ২, পৃ- ৬০৫ (তাজ কোং) / দৈনিক যুগান্তর , ৪ঠা মার্চ , ২০০২ ইং / দৈনিক যুগান্তর , ২৩শে জানুয়ারী, ২০০৬ / দৈনিক যুগান্তর, ২৮শে জানুয়ারী , ২০০৫ / মেশকাত, খন্ড- ১১, হাদিস – ৫৮৪৪ / মাসিক মদীনা , পৃ- ১৫ , জুন ২০০৫ / তারিখে ইবনে কাসির , খন্ড – ৫ , পৃ- ২০৯ / ঐতিহাসিক আল গাদীর , পৃ- ১২৮ / আল মুরাজায়াত, পৃ- ২২২ / তাফসীরে মাযহারি , খন্ড – ৩ , পৃ- ৭৩৩- ৭৫৩ (ইসলামিক ফাউন্ডেশন) ।

পৃষ্ঠা সংক্ষেপের জন্য আরও রেফারেন্স দেওয়া থেকে বিরত থাকার জন্য দুঃখিত ।
গাদীর এ খুমের ঐতিহাসিক ঘটনাটি কমপক্ষে ১১০ জন সাহাবী, ৮৪ জন তাবেঈন, ৩৫৫ জন ওলামা , ২৫ জন ঐতিহাসিকবিদ , ২৭ জন সংগ্রহকারী, ১১ জন ফিকাহবিদ , ১৮ জন ধর্মতাত্বিক , ৫জন ভাষাতাত্বিক বর্ননা করেছেন । সকলেই উক্ত ঘটনাটিকে সহীহ ও মোতাওয়াতের বলেছেন ।

পাঠক ,
রাসুল (সাঃ) স্বয়ং নিজে ওঁনার ইন্তেকালের পূর্বেই ওঁনার স্থলাভিষিক্ত নেতা , ইমাম বা খলীফা কে হবেন সেটা অত্যন্ত পরিস্কার ভাবে লক্ষাধিক হজ্ব ফেরৎ হাজী সাহাবাগনের সম্মুখে প্রকাশ্য দিবালোকে মহান আল্লাহর আদেশে ঘোষনা করে গেছেন ।
আশা করি আপনি সকল বিভ্রান্তি থেকে মুক্ত হয়েছেন ।

বড়ই দুঃখের বিষয় যে , মানব জাতি বিশেষ করে বেশীর ভাগ মুসলমান সম্প্রদায় জ্বলজ্যান্ত এই সত্য ইতিহাস বেমাুলুম ভুলে গেছে ।
আরও দুঃখের কথা এই যে , যারা আল্লাহ ও রাসুল (সাঃ) এর এই আদেশ মেনে হযরত আলী (আঃ) কে রাসুল (সাঃ) এর ইন্তেকালের পরে নিজেদের খলীফা বা ইমাম মানে তাদেরকে ” মহা কাফের ” , ” ভ্রষ্ট্র মুসলমান ” , ” রাফেজী ” , ” শীয়া ” ইত্যাদি তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করে গালি গালাজ করা হয় ।

সরলীকরনটা এমন যে , আল্লাহ ও রাসুল (সাঃ) এর আদেশ যারা মনে প্রানে মেনে নিল তারা হয়ে গেল ওনাদের ভাষায় –
” মহা কাফের ” !

আর যারা আল্লাহ ও রাসুল (সাঃ) এর অনুমোদনহীন নিজস্ব মনোনয়ন মেনে নিল তারা হয়ে গেল ওনাদের ভাষায় –
” পাক্কা মুসলমান ” !

আপনি যথেষ্ট বুদ্বিমান , বিবেক আপনার , সিদ্বান্ত আপনার ।

— পবিত্র কুরআনে আহলে বাইত (আঃ) ,
লেখক – মোঃ হাদী আমীনী ,
পৃ – ২৪০ ছায়া অবলম্বনে ।

SKL