খোৎবা- ৮

7 months ago najafi 0
জুবায়র সম্পর্কে সে বলে বেড়ায় যে, সে আমার হাতে হাত রেখেই বায়াত গ্রহণ করেছে কিন্তু অন্তর” দিয়ে তা করে নি। সুতরাং সে এমন বায়াত স্বীকার করে না। সে বায়াত গ্রহণ করেছে; এখন যদি দাবি করে যে তার অন্তরে বিপরীত ভাবে লুক্কায়িত ছিল তা হলে সে স্পষ্ট দলিল নিয়ে আসুক। অন্যথায়, যেখান থেকে সে বেরিয়ে এসেছে Read More

খোৎবা- ৯

7 months ago najafi 0
জামাল-যুদ্ধে শত্রুদের কাপুরুষতা সম্পর্কে তারা” মেঘের মতো গর্জন করেছিল; বিজলীর মতো চমক দিয়েছিল। লম্বফ-ঝম্বফ ছাড়া তাদের সবটুকুই কাপুরুষতা। তীব্রবেগে শত্রুকে আক্রমণ না করা পর্যন্ত আমরা গর্জন করি না এবং কথার ঢল প্রবাহিত করি না যতক্ষণ পর্যন্ত বৃষ্টি বর্ষণ না করি। ১। জামালের যুদ্ধে যারা আমিরুল মামোমেনিনের মোকাবেলা করার জন্য এসেছিল তাদের সম্পর্কে তিনি বলেন যে, Read More

খোৎবা- ১০

7 months ago najafi 0
তালহা ও জুবায়র সম্পর্কে সাবধান! শয়তান” তার দল জড়ো করেছে এবং তার অশ্বারোহী ও পদাতিক সৈন্যদল সমবেত করেছে। নিশ্চয়ই, আমার সূক্ষ্ম দৃষ্টি সম্পন্ন জ্ঞান আছে। আমি কখনো নিজের সাথে প্রতারণা করি নি বা প্রতারিতও হই নি। আল্লাহর কসম, আমি তাদের জন্য একটা জলাধার কানায় কানায় ভরে রাখবো যেখান থেকে শুধু আমিই পানি তুলবো। যারা সেই Read More

খোৎবা- ১১

7 months ago najafi 0
জামালের যুদ্ধে আমিরুল মোমেনিন তার পুত্র মুহাম্মাদ ইবনে হানাফিয়ার হাতে পতাকা অর্পণকালে এ খোৎবা প্রদান করেন। পর্বতমালা তার স্থান থেকে সরে পড়তে পারে। কিন্তু তুমি তোমার অবস্থান থেকে নড়তে পারবে না। দাঁতে দাঁত কামড়ে ধরো। তোমার মাথা আল্লাহকে ধার দাও (আল্লাহর পথে যুদ্ধ করতে নিজকে উৎসর্গ করো)। তোমার পদদ্বয় শক্তভাবে জমিনে স্থাপন করো। বহুদূরবতী শত্রুর Read More

খোৎবা- ১২

7 months ago najafi 0
জামালের যুদ্ধে যখন আল্লাহ আমিরুল মোমেনিনকে শত্রুপক্ষের ওপর বিজয়ী করলেন তখন তার একজন অনুচর বললেন, “হায়! আমার ভাই অমুক যদি যুদ্ধে উপস্থিত থাকতো তাহলে সেও দেখতে পেতো আল্লাহ। আপনাকে কেমন সাফল্য ও বিজয় দান করেছেন।” একথা শুনে আমিরুল মোমেনিন। জিজ্ঞেস করলেন, “তোমার ভাই কি আমাকে বন্ধু বলে জানে?” সে বললো, “জি হাঁ।” আমিরুল মোমেনিন তখন Read More

খোৎবা- ১৩

7 months ago najafi Comments Off on খোৎবা- ১৩
বসরার জনগণকে তিরস্কার’ তোমরা ছিলে একজন রমণীর সৈন্য এবং একটা চতুষ্পদ জন্তুর নিয়ন্ত্রণাধীন। যখন জন্ত%8 Read More

খোৎবা- ১৪

7 months ago najafi 0
বসরাবাসীদের প্রতি ভৎসনা তোমাদের মাটি সমুদ্রের নিকটবতী এবং আকাশ থেকে অনেক দূরে ৷ তোমাদের বোধশক্তি খুবই ক্ষীণ, ধৈর্য মূর্খতাপূর্ণ এবং তোমাদের মন পাপে পূর্ণ। তোমরা তীরন্দাজের লক্ষ্যবস্তু, খাদকের গ্রাস এবং শিকারির সহজলভ্য শিকার। Read More

খোৎবা- ১৫

7 months ago najafi 0
উসমান ইবনে আফফান কর্তৃক অনুদানকৃত ভূমি পুনঃগ্রহণ করার পর বলেন আল্লাহর কসম, যদিও আমি দেখেছিলাম। এ অর্থ দ্বারা নারী বিয়ে করা যায় অথবা ক্রীতদাসী ক্রয় করা যায়। তবুও আমি তা ফেরত প্রদান করতাম। আমি এ কারণে তা গ্রহণ করেছিলাম যে, এতে ন্যায় বিচার বিধান করার যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। যদি কেউ ন্যায় কাজ করাকে কঠিন মনে Read More

খোৎবা- ১৬

7 months ago najafi 0
মদিনায় তার হাতে বায়াত গ্রহণের পর এ ভাষণ দেন। আমি যা বলি তার দায় দায়িত্বের নিশ্চয়তা আমার এবং সে জন্য আমিই জবাবদিহি করবো। যার কাছে অতীতের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির (আল্লাহ্ কর্তৃক প্রদত্ত) অভিজ্ঞতা পরিস্কারভাবে প্রকাশ করা হয়ে থাকে, সন্দেহে পতিত হওয়া থেকে তাকওয়া তাকে বিরত রাখে। জেনে রাখো, রাসুলের (সঃ) আগমন কালে যেসব বিপদাপদ বিরাজমান ছিল Read More

খোৎবা- ১৭

7 months ago najafi 0
অযোগ্য ব্যক্তি কর্তৃক মানুষের মধ্যে ন্যায়ের বিধান প্রয়োগ সম্পর্কে মানুষের মধ্যে দুব্যক্তিকে’ আল্লাহ অতিশয় ঘূণা করেন। এদের একজন হলো সে যে আত্মস্বার্থ চরিতার্থ করতে ব্যস্ত থাকে। সে ব্যক্তি সত্যপথ থেকে সরে চলে এবং মিথ্যা কোন কিছু উদ্ভাবন করে তা বলে বেড়াতে আনন্দ পায়। সে ব্যক্তি মানুষকে ভুল পথের দিকে আমন্ত্রণ জানায়। যারা তার প্রতি অনুরক্ত Read More
ইসলাম ইন বেঙ্গলী