মাথা বিছিন্নকরনের রীতি —

বর্বর অসভ্য আরব দেশে সে যুগে একটা রীতি চালু ছিল ।
এক গোত্র আরেক গোত্রের কাউকে হত্যার পর , লাশের মাথা শরীর থেকে কেটে নিত ।
এর পর ওই মাথা সারা শহরে প্রদক্ষিন করা হত ।

এই অসভ্য বর্বর প্রথাটা সম্পূর্ন ইসলামি রীতি বিরোধী ।

প্রশ্ন –
ঐ যুগের এই ভয়ংকর রীতি পুনরায় কে চালু করে জানেন ?
জবাব –
জনাব মুয়াবীয়া ইবনে আবু সুফিয়ান ।

সিফফিনের যুদ্ধে মুয়াবীয়া বাহিনীর হাতে শহীদ হন সাহাবি আম্মাার বিন ইয়াসির (রাঃ)।
তাঁর মস্তক কেটে নিয়ে , ঐ মস্তক মুবারক হাজির করা হয় মুয়াবীয়ার কাছে ।

সুন্নি তথ্য সুত্র –
১) – মুসনাদে হাম্বাল , হাদিস নং – ৬৫৩৮ এবং ৬৯২৯ [মিশর মুদ্রন]
২) – সাদের তাবাকাত , ভো – ৩ , পেইজ – ২৫৩ ।

একই পন্থা অনুসরন করেছিল মূয়াবীয়ার জারজ কুলাঙ্গার সন্তান ঈয়াযীদ ইবনে মূয়াবীয়া ।
কারবালা প্রান্তর থেকে ৭২ জন শহীদগনের কর্তিত পবিত্র মস্তক বর্শার মাথায় করে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল এই নরপিশাচ ঈয়াযীদের দরবারে ।