জ্ঞান নগরী ও দরজা সমাচার —

জ্ঞান নগরী ও দরজা সমাচার ——–

পাঠক ,
মনটা ভাল নেই ।
একেই মনে হয় কলি যুগ বলে । অর্থাৎ শেষ জামানা । কত কিছু যে নতুন তথ্যের জন্ম হবে ।

বলছিলাম যে , প্রায় ১৫০০ বছর ধরে সেই রাসুল (সাঃ) এর যুগ থেকে মহানবী (সাঃ) স্বয়ং নিজে এ কথাটা বলে গেছেন ।
আজ প্রায় ১৫০০ বছর শীয়া সুন্নি সহ সকল মুসলিম সম্প্রদায়ের ঐক্যমত আছে –
মহানবী (সাঃ) এর এই হাদিসটির বিষয় ।

বহুল প্রচারিত সহীহ এই হাদিসটির বিরুদ্বে মৃদু ভাবে শুরুটা হয়েছিল প্রায় বছর বিশেক আগে থেকে । ইদানীং বেশ জোরেশোরে মুসলমানদের সুন্নি ভাইদের অন্তর্ভুক্ত ওহাবী সম্প্রদায়ের বিজ্ঞ আলেমগন ও অনুসারীগন বলছেন যে , এই হাদিসটি মোটেই ঠিক নয় ।

প্রিয় পাঠক ,
হাদিসটি হচ্ছে –

মহানবী (সাঃ) বলেছেন যে , ” — অামি জ্ঞানের নগরী এবং আলী সেই নগরীর প্রবেশ দ্বার , যে কেউ আমার জ্ঞানের সন্ধান করে সে যেন আলীর দ্বার প্রবেশ করে — ” ।

এই প্রসংগে মহানবী (সাঃ) আরও বলেছেন যে , ” আলী আমার ভাই এবং সে আমা থেকে এবং আমিও আলী থেকেই আর সে আমার জ্ঞানের দরজা এবং আমার স্থলাভিষিক্ত ও উত্তরসূরী — “।

পাঠক ,
এবারে নিজেই দেখে নিন হাদিসদুটির তথ্যসূত্র সমূহ –
সংগত কারনে বার ইমামীয়া শীয়াদের কোন রেফারেন্স দেয়া হল না ।

সকল তথ্য সূত্র আহলে সুন্নাত থেকে —
আব্দুল হোসাইন আহমদ আল আমিনী আন নাজাফি তার আল গাদীর গ্রন্থে উপরে উল্লেখিত হাদিস দুটির বর্ননাকারীদের একটি তালিকা দিয়েছেন যাদের সংখ্যা ১৪৩ জন ।
এছাড়া হাকেম তাঁর মুস্তাদরাক গ্রন্থে পরিস্কার ভাবে বলেছেন যে , হাদিস দুটি বিশুদ্ব ।

নীচে কিছু তথ্যসূ্ত্র দেয়া হল –
সহীহ মুসলিম , খন্ড – ১ , পৃ- ২৩ (মোহাম্মাাদীয়া লাইব্রেরী) / কাতেবানে ওহী , পৃ- ২০৭ (ইসলামিক ফাউন্ডেশন , বাংলাদেশ) / আশারা মোব্বাশারা , পৃ- ১৯২ (এমদাদীয়া লাইব্রেরী) / হযরত আলী , পৃ- ১৫ (এমদাদীয়া লাইব্রেরী) / মুস্তাদরাক হাকেম , খন্ড – ৩ , পৃ- ১২৬ / উসুদুল গাবা , খন্ড – ৪ , পৃ- ২২ (মিশর) / আল বেদায়া ওয়ান নেহায়া , খন্ড – ৭ , পৃ- ৩৫৭ , খন্ড – ৮ , পৃ- ৩৫০ (মিশর) / ইয়ানাবিউল মুয়াদ্দাত , পৃ- ১৮৩ / আস সাওয়ায়েকে মোহরেকা , পৃ- ৩৭ (মিশর) / তারিখে কামিল , খন্ড – ৪ , পৃ- ২২ / তাফসীরে তাবারী , খন্ড – ৩ , পৃ- ১৭১ (মিশর) / মাকতালুল হোসাইন , খন্ড – ১ , পৃ- ৪৩ / খাতিব খাওয়ারেজামি মানাকেব ,পৃ- ৪৯ / আলীফ বাস , খন্ড – ১ , পৃ- ২২২ (মোঃ আনদুলোসি) / হিলিয়াতুল আউলিয়া , খন্ড – ১ , পৃ- ৫৫ / শাওয়াহেদুত তানযিল , খন্ড – ২ , পৃ – ৩৫৬ / আরজাহুল মাতালেব , পৃ – ১৮৪ / তাসকিরাতুল খাওয়াজ , পৃ – ৫৩ / কেফায়াতুত তালেব , পৃ – ৯৮ / তাফসীরে দুররে মানসুর , খন্ড – ৬ , পৃ – ৩৭৯ (মিশর) / যাখায়েরুল উকবা , পৃ – ৭৭ (মিশর) / জামেউস সাগীর , খন্ড – ১ , পৃ – ৩৭৪ (মিশর) / উমদার্তুল কারী ফি শারাহ সহীহ বুখারী , খন্ড – ৭ , পৃ – ৬৩১ (মিশর) / কানজুল উম্মাাল , খন্ড – ১৫ , পৃ – ১৩০ / মিরকাত , খন্ড – ১১ , পৃ – ৩৪৬ / ইস্তিয়াব , খন্ড – ২ , পৃ – ৪৬১ , খন্ড – ৩ , পৃ – ১১০২ (মিশর) / রেয়াজুন নাজরা , খন্ড – ১ , পৃ – ১২৯ / ফাইজুল কাদির , খন্ড – ৩ , পৃ – ৪৭ / তাদখিরাতুল হুফফাজ , খন্ড – ৪ , পৃ – ৪৭ / মাজমাউজ জাওয়াইদ , খন্ড – ৯ , পৃ – ১১৪ (মিশর) / হায়তুল হায়বান , খন্ড – ১ , পৃ – ৫৫ / তাহজিবুত তাহজিব , খন্ড – ৭ , পৃ – ৩৩৭ , খন্ড – ৬ , পৃ – ৩২০ / কানজুল উম্মাাল , খন্ড – ৬ , পৃ – ১৫৬ / মাতালেবাস সাউল , পৃ – ২২ / ফুসুলুল মহিম্মাা , পৃ – ১৮ / ইসাফুর রাগেবীন , পৃ – ১৫৬ / মুয়াদ্দাতুল কুরবা , পৃ – ৩০ / তারিখে বাগদাদ , খন্ড – ২ , পৃ – ৩৩৭ , খন্ড – ৭ , পৃ – ১৭৩ , খন্ড – ১১ , পৃ – ৪৮ (মিশর) / লিসান আল মিযান , খন্ড – ২ , পৃ – ১২২ / তারিখ আল খুলফা , পৃ – ১৭০ (মিশর) / সিরাজুল মুনির জামেউস সাগীর , খন্ড – ৩ , পৃ – ৫৩ / ইযাযাতুল খিফা (শাহ ওয়ালিউল্লাহ) , খন্ড – ২ , পৃ – ৫০৯ / আল গাদীর , খন্ড – ৬ , পৃ – ৬১ – ৭৭ ।

পাঠক ,
ভাবতে সত্যিই অবাক লাগে যে , এত প্রসিদ্ব বিশুদ্ব এই হাদিসকে ইমাম আলী (আঃ) এর বিদ্বেষীরা আরবের প্রচলিত সাধারন একটি প্রবাদ বাক্য অথবা হাদিসটি খুবই দূর্বল ইত্যাদি বলে প্রচার প্রপাগান্ডা করে থাকেন ।

SKL