মৃত্যুর পর কেন তিনদিনের , সাতদিনের ও চল্লিশ দিনের অনুষ্ঠান করে ?

—- মৃত্যুর পর কেন তিনদিনের , সাতদিনের ও চল্লিশ দিনের অনুষ্ঠান করে ?

প্রতিটি মানুষ তিনস্তরের সত্তার অধিকারী —

১: ঐশী সত্তা ( نفس قدسی)
২: প্রবৃদ্ধি সত্তা (نفس نباتی)
৩: পাশবিক সত্তা (نفس حیوانی)

ঐশী সত্তা : প্রতিটি ব্যক্তির ঐশী সত্তা হল : وَ نَفَخْتُ فِيهِ مِن رُّوحِي.. সুরা হিজর ২৯ নম্বর আয়াত। এসত্তা যখন তার দেহ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় তারপর থেকে তার উপর শরীয়তের কোন বিধিবিধান আর আরোপিত হয় না এবং তাকে মৃত বলে ঘোষনা দেয়া হয় ।

প্রবৃদ্ধি সত্তা : মানুষের মৃত্যুর পর সাতদিন পর্যন্ত তার প্রবৃদ্ধিসত্তা কার্যকর থাকে তাই আমরা দেখতে পাই মৃত্ মানুষের নোখ, চুল .. বৃদ্ধি অব্যাহত থাকে । কিন্তু সাতদিন পর আর এই সত্তা কাজ করে না তাই সপ্তম দিনে তার প্রবৃদ্ধি সত্তার পতন ঘটে ।

পাশবিক সত্তা : মানুষের মৃত্যুর পর প্রায় ৪০দিন পর তার দেহের মাংসপেশী ও সমস্ত অস্থির বাধঁন গুলো বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। অর্থাৎ পাশবিক জীবনের মুল ভিত্তির বিনাশ ঘটে ৪০ দিনে । আর এর ফলে একজন মানুষের পূর্ণ মৃত্যু ঘটে (৪০ দিনে) ।

তাই এমনটি ধারণা করা যেতে পারে যে , মানুষ তার প্রতিটি স্তরের বিনাশ প্রক্রিয়ায় ঐশী কল্যাণ কামনার্থে প্রার্থনা ও সৎকার্যের আয়োজন করে থাকে ।

SKL