চোখ লেগেছে — এই কথাটি কুসংস্কার নাকি বাস্তব —

” চোখ লেগেছে ” কথাটি কি কুসংস্কার না বাস্তবতা ?

চোখ লেগেছে বা চোখ পড়েছে কথাটি কি কুসংস্কার না বাস্তবতা ?
চিন্তা ও দর্শন বিভাগ —
অনেকে বলে থাকেন , আজ আমার এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে এবং এর কারণ হচ্ছে সকালে আমি যখন ঘর থেকে বের হই তখন অমুক লোক আমার দিকে তাকিয়ে ছিল ।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট —
হুজ্জাতুল ইসলাম মুহাম্মাদ জাওয়াদ রুদগারদ বলেন , হ্যা এমন হতে পারে এবং বিষয়টি পবিত্র কোরআন ও হাদিস থেকে প্রমাণিত ।
তিনি বলেন যে , অনেকে অনেকের দিকে হিংসার চোখে তাকায় এবং তার এই হিংসা এবং খারাপ চাহুনি অন্যের উপর কুপ্রভাব ফেলতে পারে ।
এ সম্পর্কে পবিত্র কোরআনের সূরা কালামের ৫১ নং আয়াতে বর্ণিত হয়েছে –
:«وَإِن يَكَادُ الَّذِينَ كَفَرُوا لَيُزْلِقُونَكَ بِأَبْصَارِهِمْ لَمَّا سَمِعُوا الذِّكْرَ وَيَقُولُونَ إِنَّهُ لَمَجْنُونٌ؛
“– নিশ্চয় অবিশ্বাসীরা যখন স্মারকবাণী (কুরআন) শ্রবণ করে তখন তারা তাদের দৃষ্টি দ্বারা তোমাকে টলানোর উপক্রম করে এবং বলে, ‘নিশ্চয় সে এক পাগল —। ’

এই আয়াতে বলা হচ্ছে এমনকি খারাপ লোকরা রাসূল (সাঃ) কে পর্যন্ত চোখ লাগাতে চেয়েছিল কিন্ত মহান আল্লাহ তাঁকে রক্ষা করেছিলেন ।

তবে একটি বিষয় মনে রাখতে হবে যে , সর্বদা এমনটি নয় এবং জনসাধারণের মাঝে যেভাবে পরিচিত হয়েছে বিষয়টি ঠিক তেমন নয় । অর্থাৎ কোন খারাপ কিছু ঘটলেই যে তা অমুক লোকের কারণে হয়েছে তা নয় । বরং কিছু খারাপ লোক আছে যারা হিংসা বা শত্রুতার কারণে এমন কাজ করতে পারে ।
নতুবা বিপদাপদ প্রতিটি মানুষের জন্যই আসতে পারে এবং তার নানাবিধ কারণ ও হেতু রয়েছে । তবে সর্বদা সতর্ক থাকাটাই হচ্ছে বুদ্ধিমানের কাজ ।
কিন্ত অহেতুক কাউকে অপবাদ দেয়া যাবে না বা কারও উপর সন্দেহ করা যাবে না ।

উল্লেখ্য , নিয়মিত সদকা প্রদান এবং এই আয়াতটি পাঠ করার মাধ্যমে চোখলাগা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় ।