ইমাম আলী (আঃ) তাঁর কোন পুত্রের নাম আবু বকর বা উসমান রেখেছিলেন কিনা —

ইমাম আলি (আঃ) তাঁর কোন পুত্রের নাম “আবু বকর” ও
খলিফা উসমান বিন আফফানের নামে , অর্থাৎ উসমান রেখেছিলেন কিনা —-

১) –
প্রথম খলিফার নাম কি ?

উত্তর – প্রথম খলিফার নাম “আতিক” এবং আবু বকর তার নাম নয় , এটা তার উপাধি / কুনিয়া ।

নাম এবং কুনিয়ার মধ্যে অনেক পার্থক্য আছে ।

যে কোন সন্তানের নাম সেই সন্তানের পিতা-মাতা বা লিগাল গার্জিয়ান আকিকার মাধ্যমে রাখতে পারেন ।

কুনিয়া সাধারনত কেউ নিজে গ্রহন করেন , কিংবা তার আচার-ব্যবহার , পেশা অনুযায়ী বা বংশ ধারা অনুযায়ী অন্যরা তাকে কোন কুনিয়া বা উপাধিতে ভুষিত করেন ।

যেমন , ইমাম আলি (আঃ) এর কুনিয়া আবু তোরাব ।

অথবা বিড়াল প্রেমি হাদীস বর্ননাকারী এক সাহাবিকে রাসুল (সাঃ) উপাধি বা কুনিয়া দেন —
আবু হুরায়রা ( বিড়াল ছানার পিতা ) ।

বিষয়টা অনেকটা এই রকম ।

অতএব এই বিষয়টি পরিস্কার যে ,
নামের আগে “আবু” থাকে না , কিন্ত উপাধি বা কুনিয়ার আগে “আবু” থাকে ।

তাই , এটা একটা অসত্য কথা যে ,
ইমাম আলি (আঃ) তাঁর কোন সন্তানের নাম – ” আবু বকর ” রেখেছিলেন ।

এছাড়াও কোন বর্ননায় নেই যে , ইমাম আলি (আঃ) বা আহলে বায়েতের কেউ ইমাম আলি (আঃ) এর কোন সন্তানকে আবু বকর বলে ডেকেছেন !

বরং , কিছু ইতিহাস বর্ননায় লেখক বলছেন , ইমাম আলি (আঃ) এর এক সন্তানের কুনিয়া আবু বকর ছিল , বা আরবের জনসাধারনের কাছে , “আবু বকর” নামে পরিচিত ছিলেন ।

তদুপরি , এরকম বর্ননা খুবই কম ও অবিশ্বস্ত ,
হতে পারে পরবর্তীতে মুয়াবিয়া-ইয়াজিদের বংশধররা ইতিহাসে এই জাতীয় মিথ্যা বানোয়াট বিষয় প্রবেশ করিয়েছে ।

তাই , কোন ভাবেই প্রমান হয় না যে , ইমাম আলি (আঃ) তাঁর কোন সন্তান কে উক্ত কুনিয়া প্রদান করেছিলেন । “নাম” তো বলা যায়ই না ।

২) –
ইমাম আলি (আঃ) কি তাঁর কোন পুত্রের নাম ৩য় খলিফার নামে ” উসমান ” রেখেছিলেন ?

মুয়াবিয়ার বংশবদ অনেক সুন্নি আলেম বলেন , ” ইমাম আলি নিজে ,তাঁর পুত্রের নাম উসমান রেখেছিলেন , তাহলে কেমনে শীয়ারা বলে – ইমাম আলি , উসমান কে পছন্দ করতেন না !!! ”

উত্তর –
জ্বী , ইমাম আলি (আঃ) এর এক পুত্রের নাম ছিল উসমান ।

কিন্ত , শীয়া-সুন্নি সব ইতিহাসে ও হাদিসে প্রসিদ্ধ যে , ইমাম আলি (আঃ) বলেছেন , ” আমি আমার সন্তানের নাম উসমান রেখেছি , উসমান বিন মাজ’উন এর নামে , যে কিনা আইয়ামে জাহেলিয়ার সময়েও নাবিজ (মদ) পান করত না । ”

সুতরাং , সম্মানীয় সুন্নি আলেমদের কাছে অনুরোধ ,
যে কোন ইতিহাস বা হাদিসে ইমাম আলি (আঃ) বলেছেন যে ,
” তিনি তার পুত্রের নাম উসমান রেখেছেন , উসমান বিন আফফান খলিফার নামে “,
এই জাতীয় কোন হাদিস বা দলিল দেখান !

কোন জাল-বেজাল কোথাও এরকম হাদিস পাওয়া যাবে না ।

তাই , এটা প্রমানিত যে , মুতাওয়াতির সত্য হল ,ইমাম আলি (আঃ) তাঁর পুত্রের নাম উসমান রেখেছিলেন , উসমান বিন মাজ’উনের নামে বা ঐ ব্যক্তির সম্মানের খাতিরে , যা কোন ভাবেই ৩য় খলীফা উসমান বিন আফফানের নামে নয় !

আশা করি , সমাজে প্রচলিত একটি ভ্রান্ত ধারনা থেকে মুক্ত হয়েছেন ।

SKL