দোয়া ৩৫ যখন দুনিয়াবি অঙ্গিকার বিবেচনা করা হয়

2 weeks ago najafi 0

In
Satisfaction when he Looked upon the Companions of this
world


دُعَاؤُهُ فِي الرِّضَا إذا نَظَرَ الى اَصحاب الدُنيا
1
Praise belongs to God in satisfaction with God’s
decision!
الْحَمْدُ للهِ رِضىً بِحُكْمِ اللهِ ،
1
2
I bear witness that God has apportioned the
livelihoods of His servants with justice
شَهِدْتُ أَنَّ اللهَ قَسَمَ مَعَايِشَ عِبَادِهِ
بِالْعَدْلِ ،
2
3
and undertaken bounty for all His creatures.
وَأَخَذَ عَلَى جَمِيْعِ خَلْقِهِ بِالْفَضْلِ.
3
4
O God, bless Muhammad and his Household,
أللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ،
4
5
tempt me not with what Thou hast given to Thy
creatures
وَلاَ تَفْتِنِّي بِمَا أَعْطَيْتَهُمْ
5
6
and tempt them not with what Thou hast withheld from
me, lest I envy Thy creatures and despise Thy
decision!
وَلا تَفْتِنْهُمْ بِمَا مَنَعْتَنِي فَأحْسُدَ
خَلْقَكَ، وَأَغْمِطَ حُكْمَكَ.
6
7
O God, bless Muhammad and his Household,
أللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِـهِ،
7
8
delight my soul through Thy decree,
وَطَيِّبْ بِقَضَائِـكَ نَفْسِي
8
9
expand my breast through the instances of Thy
decision,
وَوَسِّعْ بِمَـواقِعِ حُكْمِكَ صَدْرِي
9
10
give to me a trust through which I may admit
وَهَبْ لِي الثِّقَةَ لأُقِرَّ مَعَهَا
10
11
that Thy decree runs only to the best,
بِأََنَّ قَضَاءَكَ لَمْ يَجْرِ إلاَّ بِالْخِيَرَةِ
11
12
and let my gratitude to Thee for what Thou hast
taken away from me
وَاجْعَلْ شُكْرِي لَكَ عَلَى مَا زَوَيْتَ عَنّي
12
13
be more abundant than my gratitude to Thee for what
Thou hast conferred upon me!
أَوْفَرَ مِنْ شُكْرِي إيَّاكَ عَلَى مَا خَوَّلْتَنِي
13
14
Preserve me from imagining any meanness in someone
who is destitute
وَاعْصِمْنِي مِن أنْ أظُنَّ بِذِي عَدْم خَسَاسَةً،
14
15
or imagining any superiority in someone who
possesses wealth,
أَوْ أَظُنَّ بِصَاحِبِ ثَرْوَة فَضْلاً،
15
16
for the noble is he whom obedience to Thee has
ennobled
فَإنَّ الشَّرِيفَ مَنْ شَرَّفَتْهُ طَاعَتُكَ،
16
17
and the exalted is he whom worship of Thee has
exalted!
وَالْعَزِيزَ مَنْ أَعَزَّتْهُ عِبَادَتُكَ.
17
18
So bless Muhammad and his Household,
فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ
18
19
give us to enjoy a wealth which does not run out,
confirm us with an exaltation which will never be
lost,
وَمَتِّعْنَا بِثَرْوَة لاَ تَنْفَدُ، وَأَيِّدْنَا
بِعِزٍّ لاَ يُفْقَدُ
19
20
and let us roam freely in the kingdom of
everlastingness!
وَأَسْرِحْنَا فِيْ مُلْكِ الأَبَدِ
20
21
Surely Thou art the One, ‘the Unique, the Eternal
Refuge;
إنَّكَ الْوَاحِدُ الأَحَدُ الصَّمَدُ
21
22
Thou hast not begotten, nor hast Thou been begotten,
الَّذِي لَمْ تَلِدْ وَلَمْ تُولَدْ
22
23
and equal to Thee is not any one’ (ref.112:1-4)!
وَلَمْ يَكُنْ لَكَ كُفُواً أَحَدٌ.
23

পরম করুণাময় এবং অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি

যখন দুনিয়াবি অঙ্গীকার বিবেচনা করা হয় পারলৌকিক অঙ্গিকার গ্রহণ করে তাঁর একটি মুনাজাত।
তার হুকুম পালন করার পথে সকল প্রর্শসা আল্লাহ্র জন্য। আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে আল্লাহ তাঁর বান্দাদের লালন-পালন করেন। তার সকল সৃষ্টিকে তিনি দয়ার দ্বারা পরিবেষ্টন করেছেন।
হে প্রভু, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন। আপনি তাদেরকে যা দিয়েছেন তা দ্বারা আমাকে প্রলুব্ধ (পরীক্ষা) করবেন না। আমা হতে যা নিয়ে নিয়েছেন তা দ্বারা তাদেরকে পরীক্ষা করবেন না, পাছে আমি আপনার বান্দাদের প্রতি ঈর্ষা পরায়ণ হই এবং আপনার অঙ্গিকারে অসুন্তষ্ট হই।
এবং আপনার অঙ্গিকারে আমাকে আনন্দিত করন। আপনার কালামের জন্য আমার বুককে প্রশস্ত করে দিন। আমাকে আত্মবিশ্বাস দিন যা দ্বারা আমি অবগত হতে পারি যে বদান্যতা ব্যতীত আপনার অঙ্গীকার বাস্তবায়ন হয় না।
আপনি আমার কাছ থেকে যা প্রতিরোধ করেছেন সে জন্য আপনাকে কৃতজ্ঞতা জানাতে দিন এবং আরও বেশি ধন্যবাদ আপনি আমার জন্য যা বরাদ্দ করেছেন সে জন্য।
দরিদ্রদেরকে নীচ মনে করা অথবা সম্পদশালীদেরকে অভিজাত মনে করা থেকে আপনি আমাকে রক্ষা করুন। বিশেষত, অভিজাত হল সে যার এবাদত অভিজাত।
সম্মানিত সে আপনার প্রতি যার এবাদত মর্পাদায় স্তরে উন্নাত।
মিনতি করছি, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর অনুগ্রহ করুন।
আমাদেরকে আর্থিক উন্নতি দিয়ে সাহায্য করুন যা কখনও লয় হবে না। আমাদেরকে এমন সম্মান দিন যা কখনও মলিন হবে না। আমাদেরকে চিরস্থায়ী রাজত্বে প্রেরণ করুন।
বিশেষত, “আপনি একক সত্তা, অনন্য চিরঞ্জীব। যিনি কাউকে জন্ম দেননি এবং কারও থেকে জন্ম নেননি। আর আপনার সমকক্ষ কেউ নেই।”

Ref: হযরত ইমাম জয়নাল আবেদীন আল ছহীফাহ্ আল সাজ্জাদীয়াহ্
অনুবাদ মুহাম্মদ মাঈনউদ্দিন
অন্যধারা, ৩৮/২-ক বাংলাবাজার (৫ম তলা) ঢাকা-১১০০
প্রকাশকাল : সেপ্টেম্বর ২০০৮
বাংলা অনুবাদ: প্রকাশক ২০০৮