দোয়া ১৩ প্রয়োজনের সময় আল্লাহ্ কাছে

2 weeks ago najafi 0

دُعَاؤُهُ فِي طَلَبِ الْحَوَائِجِ الى الله تعالى
His
Supplication in Seeking Needs from God
1
O God, O ultimate object of needs!
أللَّهُمَّ يَا مُنْتَهَى مَطْلَبِ الْحَاجَاتِ
1
2
O He through whom requests are attained!
وَيَا مَنْ عِنْدَه نَيْلُ الطَّلِبَاتِ
2
3
O He whose favours are not bought by prices!
وَيَا مَنْ لا يَبِيْعُ نِعَمَهُ بالأثْمَانِ
3
4
O He who does not muddy His gifts by the imposition
of obligations!
وَيَا مَنْ لا يُكَدِّرُ عَطَايَاهُ بِالامْتِنَانِ
4
5
O He along with whom nothing is needed and without
whom nothing can be done!
وَيَا مَنْ يُسْتَغْنَى بِهِ وَلاَ يُسْتَغْنَى عَنْهُ
5
6
O He toward whom desire is ever directed and never
turned away!
وَيَا مَنْ يُرْغَبُ إلَيْهِ وَلا يُرْغَبُ عَنْهُ.
6
7
O He whose treasuries cannot be exhausted by
demands!
وَيَا مَنْ لا تُفنى خَزَآئِنَهُ الْمَسَائِلُ
7
8
O He whose wisdom cannot be altered by any means!
وَيَا مَنْ لاَ تُبَدِّلُ حِكْمَتَهُ الْوَسَائِلُ.
8
9
O He from whom the needs of the needy are never cut
off!
وَيَا مَنْ لاَ تَنْقَطِعُ عَنْهُ حَوَائِجُ
الْمُحْتَاجِينَ
9
10
O He who is not distressed by the supplications of
the supplicators!
وَيَا مَنْ لاَ يُعَنِّيهِ دُعَاءُ الدَّاعِينَ
10
11
Thou hast lauded Thyself for having no need for Thy
creatures, and it suits Thee to have no need for
them,
تَمَدَّحْتَ بِالْغَنَاءِ عَنْ خَلْقِكَ وَأَنْتَ
أَهْلُ الْغِنَى عَنْهُمْ
11
12
and Thou hast attributed to them poverty, and it
suits them to be poor toward Thee.
وَنَسَبْتَهُمْ إلَى الفَقْرِ وَهُمْ أَهْلُ الْفَقْرِ
إلَيْكَ.
12
13
So he who strives to remedy his lack through what is
with Thee
فَمَنْ حَاوَلَ سَدَّ خَلَّتِهِ مِنْ عِنْدِكَ
13
14
and wishes to turn poverty away from himself through
Thee has sought his need
وَرَامَ صَرْفَ الْفَقْر عَنْ نَفْسِهِ بِكَ فَقَدْ
طَلَبَ حَاجَتَهُ
14
15
in the most likely place and come to his request
from the right quarter.
فِي مَظَانِّها وَأَتَى طَلِبَتَهُ مِنْ وَجْهِهَا
15
16
But he who turns in his need toward one of Thy
creatures or assigns the cause of its being granted
وَمَنْ تَوَجَّهَ بِحَاجَتِهِ إلَى أَحَد مِنْ
خَلْقِكَ أَوْ جَعَلَهُ سَبَبَ نُجْحِهَا
16
17
to other than Thee, has exposed himself to
deprivation
دُونَكَ فَقَدْ تَعَرَّضَ لِلْحِرْمَانِ
17
18
and deserves to miss Thy beneficence.
وَاسْتَحَقَّ مِنْ عِنْدِكَ فَوْتَ الاِحْسَانِ
18
19
O God, I have a need of Thee: my exertion has fallen
short of it
أللَّهُمَّ وَلِي إلَيْكَ حَاجَةٌ قَـدْ قَصَّرَ
عَنْهَـا جُهْدِي
19
20
and my stratagems have been cut back before reaching
it.
وَتَقَطَّعَتْ دُونَهَا حِيَلِي
20
21
My soul induced me to present it to him who presents
his needs to Thee
وَسَوَّلَتْ لِيْ نَفْسِي رَفْعَهَا إلَى مَنْ
يَرْفَعُ حَوَائِجَهُ إلَيْكَ
21
22
and can do nothing without Thee in his requests,
وَلاَ يَسْتَغْنِي فِي طَلِبَاتِهِ عَنْكَ
22
23
but this is one the slips of the offenders,
وَهِيَ زَلَّةٌ مِنْ زَلَلِ الْخَاطِئِينَ
23
24
one of the stumbles of the sinners!
وَعَثْرَةٌ مِنْ عَثَراتِ الْمُذْنِبِينَ
24
25
Then through Thy reminding me, I was aroused from my
heedlessness,
ثُمَّ انْتَبَهْتُ بِتَذْكِيرِكَ لِي مِنْ غَفْلَتِي
25
26
through Thy giving success, I stood up from my slip,
وَنَهَضْتُ بِتَوْفِيقِكَ مِنْ زَلَّتِي
26
27
and through Thy pointing the way, I returned and
withdrew from my stumble.
وَ رَجَعتُ وَنَكَصْتُ بِتَسْـدِيدِكَ عَنْ عَثْـرَتِي
27
28
I said: Glory be to my Lord! How can the needy ask
from the needy?
وَقُلْتُ: سُبْحَانَ رَبّي كَيْفَ يَسْأَلُ مُحْتَاجٌ
مُحْتَاجـاً
28
29
How can the destitute beseech the destitute?
وَأَنَّى يَرْغَبُ مُعْدِمٌ إلَى مُعْدِم؟
29
30
So I went straight to Thee, my God, in beseeching,
فَقَصَدْتُكَ يا إلهِي بِالرَّغْبَةِ
30
31
and I sent Thee my hope with trust in Thee.
وَأَوْفَدْتُ عَلَيْكَ رَجَائِي بِالثِّقَةِ بِكَ
31
32
I came to know that the many I request from Thee are
few before Thy wealth,
وَعَلِمْتُ أَنَّ كَثِيرَ مَا أَسْأَلُكَ يَسِيرٌ فِي
وُجْدِكَ
32
33
the weighty I ask from Thee is vile before Thy
plenty;
وَأَنَّ خَطِيرَ مَا أَسْتَوْهِبُكَ حَقِيرٌ فِيْ
وُسْعِكَ
33
34
Thy generosity is not constrained by anyone’s
asking,
وَأَنَّ كَرَمَكَ لاَ يَضِيقُ عَنْ سُؤَال أحَد
34
35
Thy hand is higher in bestowing gifts than every
hand!
وَأَنَّ يَدَكَ بِالْعَطايا أَعْلَى مِنْ كُلِّ يَد.
35
36
O God, so bless Muhammad and His Household, take me
through They generosity to Thy gratuitous bounty
أللَهُمَّ فَصَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ
وَاحْمِلْنِي بِكَرَمِكَ عَلَى التَّفَضُّلِ
36
37
And take me not through Thy justice to what I
deserve!
وَلاَ تَحْمِلْنِي بِعَدْلِكَ عَلَى الاسْتِحْقَاقِ
37
38
I am not the first beseecher to beseech Thee and
Thou bestowed upon him while he deserved
withholding,
فَما أَنَا بِأَوَّلِ رَاغِبِ رَغِبَ إلَيْكَ
فَأَعْطَيْتَهُ وَهُوَ يَسْتَحِقُّ الْمَنْعَ
38
39
nor am I the first to ask from Thee and Thou wast
bounteous toward him while he merited deprivation.
وَلاَ بِأَوَّلِ سَائِل سَأَلَكَ فَأَفْضَلْتَ
عَلَيْهِ وَهُوَ يَسْتَوْجِبُ الْحِرْمَانَ.
39
40
O Allah, bless Muhammad and his Household,
أللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ
40
41
respond to my supplication, come near my call,
وَكُنْ لِدُعَائِي مُجِيباً وَمِنْ نِدائِي قَرِيباً
41
42
have mercy on my pleading, listen to my voice,
وَلِتَضَرُّعِي رَاحِماً وَلِصَوْتِي سَامِعاً
42
43
cut not short my hope for Thee, sever not my thread
to Thee,
وَلاَ تَقْطَعْ رَجَائِي عَنْكَ وَلا تَبُتَّ سَبَبِي
مِنْكَ
43
44
turn not my face in this my need, and other needs,
away from Thee,
وَلاَ تُوَجِّهْنِي فِي حَاجَتيْ هَذِهِ وَغَيْرِهَا
إلى سِوَاكَ
44
45
attend for my sake to the fulfillment of my request,
the granting of my need,
وَتَوَلَّنِي بِنُجْحِ طَلِبَتِي وَقَضاءِ حَاجَتِي
45
46
and the attainment of what I have asked before I
leave this place
وَنَيْلِ سُؤْلِي قَبْلَ زَوَالِي عَنْ مَوْقِفِي
هَذَا
46
47
through Thy making easy for me the difficult and Thy
excellent ordainment for me in all affairs!
بِتَيسِيرِكَ لِيَ الْعَسِيْرَ وَحُسْنِ تَقْدِيرِكَ
لِي فِي جَمِيعِ الأُمُورِ.
47
48
Bless Muhammad and his Household with a permanent,
ever-growing blessing, whose perpetuity has no
cutting off
وَصَلِّ عَلَى مُحَمَّد وَآلِهِ صَلاَةً دَائِمَةً
نَامِيَةً لاَ انْقِطَاعَ لأِبَدِهَا
48
49
and whose term knows no limit, and make that a help
to me and a cause for the granting of my request!
Thou art Boundless, Generous!
وَلا مُنْتَهَى لأِمَدِهَا وَاجْعَلْ ذَلِكَ عَوْناً
لِيْ وَسَبَباً لِنَجَاحِ طَلِبَتِي إنَّكَ وَاسِعٌ
كَرِيْمٌ.
49
50
And of my needs,my Lord, are such and such
وَمِنْ حَاجَتِي يَا رَبِّ كَذَا وَكَذَا
50
51
(Here you should state your needs, then prostrate
yourself, and say in your prostration:)
وَتَذْكُرُ حَاجَتَكَ ثمّ تَسْجُـدُ وَتَقُولُ فِي
سُجُودِكَ:
51
52
Thy bounty has comforted me and Thy beneficence has
shown the way,
فَضْلُكَ آنَسَنِي وَإحْسَانُكَ دَلَّنِي
52
53
So I ask Thee by Thee and by Muhammad and his
Household (Thy blessings be upon them) that Thou
sendest me not back in disappointment!
فَأَسْأَلُكَ بِكَ وَبِمُحَمَّـد وَآلِهِ صَلَواتُكَ
عَلَيْهمْ أَنْ لاَ تَرُدَّنِي خَائِباً.
53

পরম করুণাময় এবং অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি

প্রয়োজনের সময় আল্লাহর কাছে তাঁ একটি মুনাজাত।প্রয়োজনের সময় আল্লাহর কাছে তাঁ একটি মুনাজাত। হে প্রভু, আপনি এমনি এমনিই আমাদের চাহিদা পুরা করে দেন (প্রাতদান ব্যতিরেকে)।আপনার থেকে সফলতা নির্ভর করে নামাজের উপর, যিনি কোনো মূল্যের বিনিময়ে তা সহায়তা বিক্রি করেন না। যার নেয়ামতে প্রতিদানের উপর নির্ভর করে না। যার কাছ থেকে স্বাধীনতা অর্জন করা যায় এবং যাকে কেউই স্বাধীনতা দেওয়ার অধিকার রাখে না। যার দিকে লোকেরা ফিরে আসে এবং কেউ তাকে নিজের দিকে ফিরাতে পারে না। যার ভন্ডিার কোনো চাহিদার দ্বারাই খালি করা সম্ভব নয় এবং যার রাজত্ব কোনো ভাবেই বিলিন হবার নয়। যার কাছ থেকে অভাবীর আভাব পূরণের চাহিদা প্রত্যাখান করা হয় না। যিনি কখনও প্রার্থনাকারীদের প্রার্থনায় ক্লান্ত হন না।আপনি আপনার মাখলুককে স্বাধীনতা দানের দ্বারা গর্ব অনুভব করেন এবং আপনার সত্তাই তাদেরকে স্বাধীনতা দানের অধিকার রাখেন।আপনি তাদেরকে অভাবী বলে সম্বোধন করেছেন এবং তারা আপনার কাছে অভাবগ্রস্ত।তারপর, যে কোনো সময় আপনার মারফত তার চাহিদাকে  পুরা করে এবং প্রত্যাশা করে যে তার চাহিদা পূরা হতে পারে আপনার দ্বারা নিশ্চিন্তভাবেই সে উপযুক্ত স্থানই চাচ্ছে। (নিশ্চিন্তভাবেই সে) তার চাহিদার বস্তুকে সঠিক পথেই চেয়ে যাচ্ছে। যে কেউ আপনার কোনো সৃষ্টির কাছে আবেদন অথবা তাকে  (সৃষ্টিকে) তার আবেদন পূরা করতে পারে এমন বিবেচনা করে, আপনাকে বাদ দিয়ে। মূলত, সে তাকে (নিজেকে) দুর্দশায় নিমজ্জিত করে।(নিশ্চিন্তভাবেই)সে) আপনার কাছ থেকে অনুগ্রহের স্বাতন্ত্র্য চা॥।আর হে প্রভু, আপনার কাছে আমার একটা চাহিদা আছে।আমার চেষ্টার কমতি হয়েছে।আমার চাহিদাগুলো অগ্রাহ্য হবার নয়।আমার দিল আমাকে অনুপ্রাণিত করেছে যাতে আমি তার কাছে প্রয়োজন পূরা করবার জন্য চেষ্টা করি যে নিজে আপনার কাছে স্বাধীন নয় এবং যাতে প্রয়োজনসমূহ তার সামনে পেশ করি।এটা আমার একটি ভুল।পাপীর একটা ভুল।তারপর আমি আপনার সতর্কতার সাহায্যে জাগ্রত হলাম এবং জেগে উঠলাম আপনার অনুগ্রহে, আমার নিপতিত হওয়া (পাপে) এবং পুনঃফিরে যাওয়া (গুণায়) হতে। আপনার সাহায্যে, আমি আমার ভুল সংশোধন করেছি এবং বলেছি, ‘আমার প্রভু পবিত্র’একজন অভাবী সৃষ্টি কিভাবে আরেক জনের কাছে চাউতে পারে যে নিজেই অভাবী।একজন দুর্ধশাগ্রস্ত কিভাবে আরেক জনের কাছে আকর্ষণীয় হতে পারে যে নিজেই দুর্ধশগ্রস্ত।তাই একাগ্র প্রত্যাশার সাথে আমি আপনার কাছে প্রত্যাশা করছি এবং আপনার সঠিক বিশ্বাসের আশা স্থাপন করছি।আমি নিশ্চিত ছিলাম যে আমার চরম চাহিদা আপনার সম্পদের তুলনায় নেহায়েৎই তুচ্ছ, আমার সর্বাধিক চাহিদা আপনার প্রাচুর্যের তুলনায় গুরুত্বহীন। আপনার সীমাহীন প্রাচুর্য কারও চাহিদায় শেষ হবার নয়। আপনার ক্ষমতা ব্যাপকভাবে সবার হাতকে উন্নতি করে।   হে প্রভু, এজন্য হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর আপনি অনুগ্রহ করুন। আপনার অনুগ্রহের দ্বারা আমাকে মালামাল করুন।আপনার শাসনের দ্বারা আমাকে লাঞ্চিত করেন না।আমার বিবেচনায়, আমিই প্রথম ব্যক্তি নই যে আপনার কাছে আবেদন করেছে। তবুও আপনি আমার আবেদনকে গ্রহণ করেছেন। যেখানে আমি প্রত্যাখানের শঙ্কা করেছিলাম।আপনার প্রতি যারা আবেদন করেছে তাদের মধ্যে আমি আবেদনকারী নই তবুও আপনি আমার আবেদনকে গ্রহণ করেছেন যখন আমি দুর্ধশগ্রস্ত ছিলাম।হে প্রভু, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর আপনি অনুগ্রহ করুন। আমার প্রার্থনা কবুল করুন। আমার আহবান শ্রবণ করুন। আমার মুনাজাত শুনুন। আমার কথা শুনুন। আপনার কাছ থেকে আমার আশাকে কেটে দিয়েন না। আপনার কাছ থেকে আমাকে পৃথক করেন না। আমাকে আপনি এরকম করেন না এবং অন্যদেরকে আপনার পাশে রাখা দরকার।আমার আবেদন পূরা করুন, আমার চাহিদা মিটিয়ে দিন, আমি প্রার্থনা শেষ করার পূর্বে আমার প্রর্থনার উত্তর দিন। আমার প্রার্থনার স্থান ত্যাগ করার পূর্বে। আমার জন্য যা কঠিন। সহজ এবং আমাকে সাহায্য করুন, সব বিষয়ে আপনার চমৎকার প্রাধান্য বিরাজমান।অবিরত বাড়ন্ত, সময়সীমার বাঁধাহীন এবং সীমাহীন অনুগ্রহের সাথে হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর আপনি অনুগ্রহ করুন।এটাকে  আমার জন্য সাহায্যকারী করে দিন এবং আমার আবেদ অনুমোদন করার বাহানা করে দিন।মূলত, আপনার সত্তা সর্বময় এবং অনুগ্রহশীল।আর হে প্রভু, আমার আবেদন হচ্ছে “আপনার অনুগ্রহ আমাকে শাস্তি দিয়েছে। আপনার গুণ আমাকে পথ নির্দেশ করেছে।”তাই আপনার ন্যায়পরায়ণতার উপর আপনাকে অনুরোধ করছি যে, হযরত মুহাম্মদ এবং তাঁর বংশধরদের উপর আপনি অনুগ্রহ করুন। এবং আমাকে দূরে সরিয়ে হতাশাগ্রস্ত করিয়েন না।

Ref: হযরত ইমাম জয়নাল আবেদীন আল ছহীফাহ্ আল সাজ্জাদীয়াহ্
অনুবাদ মুহাম্মদ মাঈনউদ্দিন
অন্যধারা, ৩৮/২-ক বাংলাবাজার (৫ম তলা) ঢাকা-১১০০
প্রকাশকাল : সেপ্টেম্বর ২০০৮
বাংলা অনুবাদ: প্রকাশক ২০০৮